Mamata Banerjee: অক্সিজেনের ঘাটতি থাকলেও পরিস্থিতি আয়ত্তে, কালোবাজারি রুখতে নির্দেশ মমতার

Mamata Banerjee: অক্সিজেনের ঘাটতি থাকলেও পরিস্থিতি আয়ত্তে, কালোবাজারি রুখতে নির্দেশ মমতার

মালদহে সাংবাদিক বৈঠকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷

করোনা চিকিৎসায় মহারাষ্ট্র, উত্তর প্রদেশ, হরিয়ানা, দিল্লির মতো রাজ্যগুলিতে অক্সিজেনের সংকট দেখা দিয়েছে৷

  • Share this:

    #মালদহ: সংক্রমণের হার বাড়লেও রাজ্যে করোনা আক্রান্তদের চিকিৎসার জন্য বেডের অভাব নেই বলে দাবি করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ তিনি দাবি করেছেন, এই মুহূর্তে রাজ্যে করোনা রোগীদের জন্য ১১ হাজার বেড রয়েছে৷ দিন দু' য়েকের মধ্যেই তা বাড়িয়ে ১৩ হাজার করা হবে৷

    করোনা চিকিৎসায় মহারাষ্ট্র, উত্তর প্রদেশ, হরিয়ানা, দিল্লির মতো রাজ্যগুলিতে অক্সিজেনের সংকট দেখা দিয়েছে৷ মুখ্যমন্ত্রী অবশ্য আশ্বাস্ত করে বলেছেন, সরকারি হাসপাতাল বাদেও রাজ্যের ৮০টি বেসরকারি হাসপাতালে অক্সিজেনের সুবিধা যুক্ত ৭ হাজার বেড করোনা রোগীদের জন্য রাখা আছে৷ এর মধ্যে আইসিইউ, এইচডিইউ-এর সুবিধা যুক্ত বেডও রয়েছে৷ অক্সিজেনের কালোবাজারি যাতে না হয়, প্রশাসন সেদিকেও নজর রাখছে৷ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছেন, 'অক্সিজেনের ঘাটতি আছে৷ অক্সিজেন মজুত করে রাখা বা কালোবাজারি রুখতে বলা আছে৷'

    রাজ্যে মোট ৭০টি কোভিড হাসপাতাল রয়েছে বলে জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী৷ এ ছাড়াও তৈরি করে ফেলা হচ্ছে ২০০ সেফ হোম৷ রাজ্যে এই মুহূর্তে প্রায় ৬০ হাজার সক্রিয় করোনা রোগী রয়েছেন৷ মুখ্যমন্ত্রী অবশ্য জানিয়েছেন, এর মধ্যে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন ৬৭৯৩ জন৷ একই সঙ্গে কোনও গুরুতর রোগীকে যাতে একটি হাসপাতাল থেকে ফিরিয়ে দিলেও সংশ্লিষ্ট হাসপাতালের কর্তৃপক্ষই যাতে তাঁকে অন্য হাসপাতালে ভর্তির ব্যবস্থা করে দেয়, সেই নির্দেশও রাজ্য সরকারি- বেসরকারি সব হাসপাতালগুলিকে দিয়েছে বলে জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী৷

    মুখ্যমন্ত্রী অবশ্য দাবি করেছেন, জনজীবন স্বাভাবিক থাকায় রাজ্যে সংক্রমণের হার বেশি হলেও তা নিয়ে আতঙ্কিত হওয়ার কারণ নেই৷ আতঙ্কিত না হয়ে মানবিকতার হাত বাড়াতে হবে৷ আগের বারের ঝড় আমরা সামলেছি৷ এবারের ঝড়টা একটু বেশি উঠেছে, কারণ বাংলায় বাইরের লোক ভরে গেছে৷' একই সঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী পরামর্শ দিয়েছেন, যে করোনা রোগীদের খুব বেশি শারীরিক সমস্যা নেই, তাঁরা যেন হাসপাতালের বেড দখল করে না রেখে সেফ হোম বা হোম আইসোলেশনে থাকেন৷ যাতে গুরুতর অসুস্থদের বেড পেতে অসুবিধা না হয়৷ তবে মুখ্যমন্ত্রী স্পষ্ট করে দিয়েছেন, এই মুহূর্তে রাজ্যে লকডাউন করার কোনও পরিকল্পনা নেই সরকারের৷ কারম মুখ্যমন্ত্রীর মতে, এতে সাধারণ মানুষের হয়রানি বাড়ে৷

    Published by:Debamoy Ghosh
    First published: