Maharashtra Lockdown: বন্ধ ফিল্ম, সিরিয়াল শ্যুট! ফের রোজগার বন্ধের আশঙ্কায় শিল্পীরা

২০২০ মে মাসে মহারাষ্ট্র সরকার শ্যুটিং-এর অনুমতি দেয়৷ এক এক করে শুরু হয় কাজ৷ কিন্তু তার মধ্যেই একের পর এক ছবির তারকা করোনা আক্রান্ত হন৷

২০২০ মে মাসে মহারাষ্ট্র সরকার শ্যুটিং-এর অনুমতি দেয়৷ এক এক করে শুরু হয় কাজ৷ কিন্তু তার মধ্যেই একের পর এক ছবির তারকা করোনা আক্রান্ত হন৷

  • Share this:

    #মুম্বই: মহারাষ্ট্রে লকডাউনের মতো পরিস্থিতির (Maharashtra Lockdown) ঘোষণা হয়েছে৷ বুধবার রাত ৮ থেকে ১ মে সকাল ৭টা পর্যন্ত এই সময়ে বন্ধ থাকবে সবকিছু৷ জুরুরি পরিষেবা ছাড়া কোথাও কোনও ছাড় মিলবে না৷ করোনার গ্রাফ উর্দ্ধমুখী (Coronavirus rise) হওয়ায় এ ছাড়া অন্য কোনও উপায় ছিল না৷ এর ফলে বন্ধ হয়েছে সমস্ত রকম শ্যুটিং-এর (Shooting stop) কাজকর্মও৷ যার জেরে আরও একবার গভীর সমস্যায় পড়েছেন শিল্পীরা৷ গত বছর দীর্ঘ সময় লকডাউনের (COVID19 Lockdown) ফলে অনেক দিন কাজ বন্ধ ছিল ফিল্ম বা টিভির সঙ্গে যুক্ত কলাকুশলীদের৷ অর্থনৈতিকভাবে মুখ থুবড়ে পড়েছিল ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির৷ আবার কাজ বন্ধ হওয়ায় আশঙ্কার কালো মেঘ দেখছে ইন্ডাস্ট্রির সঙ্গে যুক্ত সকলে৷

    ফেডারেশন অব ওয়েস্টার্ন ইন্ডিয়া সিনে এপ্লোইজ (Federation of Western India Cine Employees-FWICE) প্রেসিডেন্ট বি এন তিওয়ারি জানিয়েছেন যে, সরকারের এই সিদ্ধান্তে তাঁরা খুবই হতাশ৷ কোনও ভাবে যদি তাঁদের কাজের অনুমতি দিত সরকার, তাহলে ভাল হত৷ তিনি বলছেন, ফিল্ম হোক বা টিভির শ্যুটিং, সবটাই খুব নিয়ম মেনে করা হচ্ছিল৷ সমস্ত রকম সরকারের বেঁধে দেওয়া করোনা রোধের নিয়ম মেনেই হচ্ছিল ফিল্ম বা টিভির কাজ৷ কিন্তু সম্পূর্ণ কাজ বন্ধের ফলে প্রচুর মানুষ সমস্যায় পড়বেন৷ আমরা মুখ্যমন্ত্রী উদ্ভব ঠাকরের (Uddhav Thakarey) সঙ্গে শ্যুটিং চালুর বিষয় কথা বলব৷ কারণ তাঁর মতে কঠিন নিয়ম মেনে কাজ করার পক্ষে রয়েছেন কলাকুশলীরা৷ তবে একেবারে কাজ বন্ধ হলে তাঁদের পেটেও তালা পড়বে৷ রোজগার বন্ধ হবে হাজার হাজার মানুষের৷ অমিতাভ বচ্চনের গুডবাই, শাহরুখ খানের পাঠান, সলমন খানের টাইগার থ্রি শ্যুটিং আটকে পড়েছে৷ এতে বিপুল সংখ্যক মানুষের ক্ষতির কথাই বারবার উঠে আসছে FWICE-র প্রেসিডেন্টের মুখে৷

    অন্যদিকে টিভি অ্যান্ড ওয়েব উইং অব ইন্ডিয়ান ফিল্মস অ্যান্ড টিভি প্রোডিউসারস কাউন্সিল (TV & Web wing of Indian Films & TV Producers Council-IFTPC)-র চেয়ারম্যান জেডি মাজেথিয়া জানাচ্ছেন যে তিনি মুখ্যমন্ত্রীর সিদ্ধান্তের সঙ্গে একমত৷ তবে শ্যুটিং-এর জন্য অন্য কোনও ব্যবস্থা চাইছেন তিনি৷ সাধারণ মানুষ বাড়িতে বসে বিরক্ত৷ টিভিতে কিছু তাঁদের সামনে তুলে ধরে আমরা তাঁদের মনোরঞ্জন করার ব্যবস্থা করছি৷ তাই আমরাও একরম ভাবে প্রথম সারির যোদ্ধা৷ আমাদের কাজকেও জরুরি পরিষেবা হিসেবে ছাড় দেওয়া উচিৎ৷ গত বছর সব কিছু বন্ধ ছিল৷ কিন্তু এবছর তেমন কিছু হলে, খুব ক্ষতি হয়ে যাবে৷

    ২০২০ মে মাসে মহারাষ্ট্র সরকার শ্যুটিং-এর অনুমতি দেয়৷ এক এক করে শুরু হয় কাজ৷ কিন্তু তার মধ্যেই একের পর এক ছবির তারকা করোনা আক্রান্ত হন৷ আটকে যায় কাজ৷ আলিয়া ভাট, অক্ষয় কুমার, ভিকি কৌশল, ভূমি পেডনেকর, ক্যাটরিনা কইফ সকলেই আক্রান্ত হন করোনায়৷ আপাতত লকডাউন মহারাষ্ট্রে৷ বন্ধ হয়েছে সিনেমা হল, মাল্টিপ্লেক্স৷ মঙ্গলবার ৬০২১২ জন নতুন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন৷ নতুন করে মৃত্যু হয়েছে ২৮১জন৷ এই নিয়ে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৩৫১৯২০৮জন, মোট মৃতের সংখ্যা ৫৮৫২৬জন৷

    Published by:Pooja Basu
    First published: