করোনা থেকে বাঁচতে স্বামী-পুত্রসহ হোম কোয়ারেন্টাইনে মাধুরী !

করোনা থেকে বাঁচতে স্বামী-পুত্রসহ হোম কোয়ারেন্টাইনে মাধুরী !
photo source Instagram

করোনা ভাইরাসের আতঙ্ক থেকে মুক্তি পাননি অভিনেত্রীও।

  • Share this:

#মুম্বই: পৃথিবীতে এখন একটাই আতঙ্ক, করোনা ভাইরাস। চিনের ছোট্ট শহর থেকে যেভাবে দ্রত গতিতে বিশ্বকে ভয় দেখাচ্ছে এই ভাইরাস তাতে আতঙ্কিত হওয়ারই কথা। সব দেশ নিজের নিজের মতো করে সতর্কতা অবলম্বন করছে যাতে এই ভাইরাস ছড়ানো থেকে আটকানো যায়। আর ভাইরাস ছড়ানো আটকাতে হলে সবচেয়ে আগে করা দরকার কোয়ারেন্টাইন। সব দেশই মোটামোটি মানুষজনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে পাঠিয়েছে। তবে গৃহবন্দী জীবন যে সুখের নয়। সেই জীবনকে সামান্য হলেও রঙিন করতে অনেকেই অনেক কিছু করছেন। বন্ধ হয়ে গেছে স্কুল কলেজ। বাচ্চা থেকে বুড়ো সকলেই গৃহবন্দী। আতঙ্ক গ্রাস করছে সকলকে। কিন্তু তার মধ্যেও তো বেঁচে থাকতে হবে। লড়াই করতে হবে। হাল ছেড়ে দিলে চলবে কেন। তাছাড়া সামান্য সতর্কতা মানলেই এই ভাইরাসকে কাবু করা যায়। কারও শরীরে এই ভাইরাস ধরা পড়লেও ঘাবড়ে যাবেন না। সতর্কতা মানুন, ডাক্তারের পরামর্শ নিন। রেস্ট করুন, নিজেকে কোয়ারেন্টাইন করুন তাহলেই দূরে পাঠানো যাবে এই ভাইরাসকে। তবে সচেতন সবাইকে হতে হবে। আর থাকতে হবে এক সঙ্গে একজোট হয়ে লড়াই করার মানসিকতা। এই একই গৃ্হবন্দী দশাতে দিন কাটাতে হচ্ছে গোটা বলিউডকে।

বলিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রীদের মধ্যে মাধুরী দিক্ষিতের নাম আসবেই। মাধুরী তাঁর অভিনয় দক্ষতা দিয়ে জয় করেছেন সকলের মন। কিন্তু করোনা ভাইরাসের আতঙ্ক থেকে মুক্তি পাননি অভিনেত্রীও। মাধুরী তাঁর দুই ছেলে ও স্বামী নেনেকে নিয়ে কার্যত গৃ্হবন্দী। অভিনেত্রী তাঁর সোশ্যাল মিডিয়া হ্যান্ডেলে স্বামী ও ছেলের সঙ্গে ছবি পোস্ট করে লিখলেন, "নিজেকে ও পরিবারকে করোনা ভাইরাসের হাত থেকে বাঁচাতে বাড়িতেই সেল্ফ কোয়ারেন্টাইন করলাম। তবে এই সুযোগে পরিবারের সঙ্গে কিছুটা সময় কাটাতে পারবো। সবাইকে বলবো নিজেদের সেফ রাখতে।" মাধুরীর এই পোস্টের নীচে অনেকেই কমেন্ট করে তাঁকেও সুস্থ থাকতে বলেছেন।

 
View this post on Instagram
 

Making the most of this quarantine by spending some quality time with my family... Everyone, please take the necessary precautions. Take care. Stay safe. Love, MD.

A post shared by Madhuri Dixit (@madhuridixitnene) on Mar 18, 2020 at 3:45am PDT

First published: March 18, 2020, 8:52 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर