• Home
  • »
  • News
  • »
  • coronavirus-latest-news
  • »
  • BREAKING: করোনা সংক্রমণ রুখতে রাজ্যে ১৫ দিন বাড়ছে লক ডাউন, মুখ্যমন্ত্রীর বৈঠকে ঘোষণার সম্ভাবনা

BREAKING: করোনা সংক্রমণ রুখতে রাজ্যে ১৫ দিন বাড়ছে লক ডাউন, মুখ্যমন্ত্রীর বৈঠকে ঘোষণার সম্ভাবনা

১৫ দিন লক ডাউন জারি থাকতে পারে। অর্থাৎ, ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত রাজ্যে লক ডাউন।

১৫ দিন লক ডাউন জারি থাকতে পারে। অর্থাৎ, ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত রাজ্যে লক ডাউন।

১৫ দিন লক ডাউন জারি থাকতে পারে। অর্থাৎ, ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত রাজ্যে লক ডাউন।

  • Share this:

    #কলকাতাঃ করোনা সংক্রমণ ঠেকাতে একমাত্র পথ লক ডাউন। সংক্রমণ যাতে ছড়াতে না পারে সে জন্য লকডাউন ও সোশাল ডিস্টেন্সিং বজায় রাখাই যে একমাত্র পথ সে কথা ক’দিন আগে সর্বদলীয় বৈঠকে বলেছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।আজ সে কথাই ফের বলেছেন মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে বৈঠকে।

    সূত্রের খবর বৈঠকে বেশির ভাগ রাজ্যের সঙ্গে এক সুর লকডাউন বাড়ানোর প্রস্তাব রেখেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রীর কাছে পেশ করেন  এক গুচ্ছ দাবিদাওয়া। আর তারপর প্রায় স্পষ্ট রাজ্যে লকডাউন বাড়ছে লক ডাউনের মেয়াদ। আরও ১৫ দিন লক ডাউন জারি থাকতে পারে। অর্থাৎ, ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত রাজ্যে লক ডাউন। আর কিছুক্ষণের মধ্যেই ঘোষণার সম্ভাবনা। তবে রাজ্যে যে ১০টি হটস্পট চিহ্নিত হয়েছে, সেই সব জায়গাগুলিতে সুপার লক ডাউন থাকবে। অর্থাৎ, সেই সব অঞ্চলের মানুষ কোনও ভাবেই বাড়ির বাইরে বেরতে পারবেন না। তাঁদের নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিস বাড়িতে পৌঁছে দেবে প্রশাসন।

    শনিবার মিটিয়ের শুরুতেই প্রধানমন্ত্রী বৈঠকে উপস্থিত রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের আশ্বাস দেন, করোনা মোকাবিলায় তাঁকে অষ্টপ্রহর যোগাযোগ করা যাবে। একে একে মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী উধ্বব ঠাকরে, পঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী অমরিন্দ্র সিং, দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী কেজরীওয়াল প্রস্তাব দেন এই লকডাউন চালিয়ে নিয়ে যাওয়ার। পালা আসে বাংলার মুখ্যমন্ত্রীরও।

    তিনি বাকিদের মতে সায় দিয়ে লকডাউন চালিয়ে নিয়ে যাওয়ার কথাই বলেন। তবে বেশ কয়েকটি দাবিদাওয়া পেশ করেন তিনি। মুখ্যমন্ত্রী স্পষ্ট জানান তিনি লকডাউনের পক্ষে তিনি। কিন্তু মানবিক দিকগুলি খেয়াল রাখতে হবে। মুখ্যমন্ত্রীর কথায়, সমতা রাখতে হবে জীবন ও জীবিকায়।

    Published by:Shubhagata Dey
    First published: