Covid Horror: অক্সিজেনের অভাবে মধ্যপ্রদেশের হাসপাতালে মৃত্যু ১২ করোনা রোগীর!

Covid Horror: অক্সিজেনের অভাবে মধ্যপ্রদেশের হাসপাতালে মৃত্যু ১২ করোনা রোগীর!

অক্সিজেনের অভাবে মধ্যপ্রদেশের হাসপাতালে মৃত্যু ১২ করোনা রোগীর!

শাহদোল মেডিক্যাল কলেজের ডিন ডক্টর মিলিন্দ শিরালকার জানিয়েছেন, ওই কোভিড ১৯ পজিটিভ (Covid-19 Positive) রোগীদের মৃত্যুর কারণ মেডিক্যাল অক্সিজেনের অভাব।

  • Share this:

    #ভোপাল: মধ্যপ্রদেশের শাহদোল মেডিক্যাল কলেজে (Shahdol Medical College) অক্সিজেনের অভাবে বারো জন করোনা রোগীর (Coronavirus) মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে বলে খবর পাওয়া গিয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে শনিবার মধ্যরাতে। শাহদোল মেডিক্যাল কলেজের ডিন ডক্টর মিলিন্দ শিরালকার জানিয়েছেন, ওই কোভিড ১৯ পজিটিভ (Covid-19 Positive) রোগীদের মৃত্যুর কারণ মেডিক্যাল অক্সিজেনের অভাব।

    মৃতদের পরিবারও হাসপাতালে বিরুদ্ধে একই অভিযোগ করেছেন। অক্সিজেনের সরবরাহ কম থাকার জন্যই মৃত্যু হয়েছে ১২ জনের। শাহদোলের অ্যাডিশনাল জেলাশাসক অর্পিত ভার্মা যদিও এই অভিযোগ সম্পূর্ণ অস্বীকার করেছেন। তাঁর দাবি, এই মৃত্যুর সঙ্গে অক্সিজেনের অভাবের কোনও যোগ নেই। এই এলাকায় শাহদোল মেডিক্যাল কলেজেই সমস্ত রকমের ব্যবস্থা রয়েছে কোভিড রোগীদের জন্য।

    এই ঘটনার পরই মুখ খুলেছেন মধ্যপ্রদেশের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী কমল নাথ। তিনি সরকারের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছেন অক্সিজেন নিয়ে মিথ্যে কথা বলার। তিনি ট্যুইট করে শিবরাজ সিং সরকারের বিরুদ্ধে গাফিলতির অভিযোগ তুলেছেন। তাঁর কথায়, 'ভোপাল, ইন্দোর, উজ্জয়িন, সাগর, জবলপুর ও খরগোনের পরিস্থিতি দেখেও শিক্ষা হয়নি?'

    মধ্যপ্রদেশের শশ্মান, সমাধিক্ষেত্রে সারি সারি মৃতদেহের লাইন। স্থানীয় বাসিন্দারা এই ঘটনার সঙ্গে ১৯৮৪ সালের ভোপাল গ্যাস ট্রাজেডির তুলনা করেছেন। তাঁদের অনেকেই জানাচ্ছেন ভোপাল গ্যাস ট্রাজেডির পর এই প্রথম এভাবে সারি সারি মৃতদেহের শেষকৃত্য হচ্ছে। ৫৪ বছরের বিএন পান্ডের ভাইয়ের করোনায় মৃত্যু হয়েছে। তাঁর অন্ত্যোষ্টিক্রিয়ার জন্য আনা হয়েছিল ভোপালের ভদভদা শ্মশানে তিনি জানান, 'ভোপাল গ্যাস দুর্ঘটনার সময় আমি ক্লাস নাইনে পড়তাম। সেই সময় এই রকম পরিস্থিতি দেখেছিলাম। আজকে চার ঘণ্টার মধ্যে এখানে ৩০ থেকে ৪০টি করোনায় মৃতদের দাহ করা হল। এখনও বহু মৃতদেহ বাইরে রাখা হয়েছে।' মধ্যপ্রদেশে করোনা সংক্রমণের সরকারিভাবে যে পরিসংখ্যান দেখানো হয়েছে, অবস্থা তার থেকেও ভয়ানক। ইতিমধ্যেই অভিযোগ উঠছে, মধ্যপ্রদেশ সরকার করোনা আক্রান্ত ও মৃত্যুর পরিসংখ্যান গোপন করা হচ্ছে।

    Published by:Raima Chakraborty
    First published: