corona virus btn
corona virus btn
Loading

করোনা নিয়ে গুজব ছড়ানোয় কলকাতায় আটক ১৭ ! নজর রাখছে সাইবার সেল

করোনা নিয়ে গুজব ছড়ানোয় কলকাতায় আটক ১৭ ! নজর রাখছে সাইবার সেল
Representational Image

সোশ্যাল মিডিয়ায় অনেক মানুষ করোনা নিয়ে বিভিন্ন ধরনের গুজব ছড়াচ্ছে বলে অভিযোগ।

  • Share this:

#কলকাতা: করোনা নিয়ে আতঙ্কিত না হয়ে সচেতন হোন। প্রশাসনের সর্বোচ্চ স্তর থেকে বারবার প্রচার করা হচ্ছে এই বার্তা। কিন্তু তারপরেও সোশ্যাল মিডিয়ায় অনেক মানুষ করোনা নিয়ে বিভিন্ন ধরনের গুজব ছড়াচ্ছে বলে অভিযোগ। তার জেরে আতঙ্কিত হয়ে পড়ছেন সাধারণ মানুষও। তাই এই গুজব রুখতে এবার কড়া পদক্ষেপ নিল কলকাতা পুলিশ। ইতিমধ্যেই সোশ্যাল মিডিয়ায় করোনা নিয়ে গুজব ছড়ানোর অভিযোগে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত ১৭ জনকে আটক করেছে কলকাতা পুলিশের গোয়েন্দা বিভাগ। এরমধ্যে বুধবার ১২ জনকে আটক করা হয় এবং বৃহস্পতিবার ৫ জনকে আটক করা হয়েছে। সোশ্যাল মিডিয়ার গুজব রুখতে নজরদারি চলবে বলে জানাচ্ছে লালবাজার। তবে এদের জিজ্ঞাসাবাদ করার পরে বয়ানে সন্দেহজনক কিছু না পাওয়ায়, ছেড়েও দেওয়া হয় ৷

বুধবার পুলিশ কমিশনার অনুজ শর্মা ট্যুইট করে জানিয়েছিলেন, সত্যতা যাচাই না করে সোশ্যাল মিডিয়ায় অযথা গুজব ছড়ালে কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তারপরই কলকাতা পুলিশের সাইবার সেল একটি বিশেষ দল গঠন করে এবং সেই দল বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়ায় শুরু করে নজরদারি। কে বা কারা বিভিন্ন ধরনের ছবি পোস্ট করছে বা ভিত্তিহীন লেখা লিখে এ ধরনের গুজব ছড়াচ্ছে তাদের চিহ্নিত করার কাজ শুরু হয়েছে।

লালবাজার সূত্রের খবর, বুধবার সোশ্যাল মিডিয়ায় গুজব ছড়ানোর অভিযোগে যে ১২ জনকে আটক করা হয়েছিল তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার এখনও পর্যন্ত ৫ জনকে আটক করেছে লালবাজার। এখনও নজরদারি চলছে বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়ায়। কেউ সোশ্যাল মিডিয়ায় করোনা নিয়ে কোন ভুয়ো পোস্ট করলে বা কোন পোস্ট শেয়ার করলে কিংবা কমেন্ট করলে তাদের চিহ্নিত করে কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। সূত্রের খবর, যাদের আটক করা হয়েছে তাদেরকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে কিসের ভিত্তিতে তারা এই ধরনের পোস্ট করছেন কিংবা কোনো অসৎ উদ্দেশ্য রয়েছে কি না তা-ও জানার চেষ্টা করা হচ্ছে।

প্রসঙ্গত, সোশ্যাল মিডিয়ায় বেশ কিছুদিন ধরেই বিভিন্ন ধরনের পোস্ট শেয়ার হচ্ছে যাতে বলা হচ্ছে মুরগির মাংস থেকে করোনা ভাইরাস ছড়ায়। লালবাজারের এক কর্তা জানাচ্ছেন, কোনও তথ্যপ্রমাণ ছাড়াই এই ধরনের পোস্ট শেয়ার করলে বা তাতে কমেন্ট করলে তাকে চিহ্নিত করছে লালবাজার। লালবাজারের গোয়েন্দা বিভাগের সাইবার সেলে এজন্য যে বিশেষ একটি দল গঠন করা হয়েছে তারাই মূলত ফেসবুক, টুইটার বা অন্য কোন সোশ্যাল মিডিয়ায় খুঁটিয়ে দেখছেন এসব পোস্ট কারা করছে।

লালবাজার সূত্রে খবর যাদের আটক করা হয়েছে তাদেরকে জিজ্ঞাসাবাদ করে যদি প্রমাণ মেলে যে কোনো অসৎ উদ্দেশ্যে এ ধরনের পোস্ট করা হচ্ছে তাহলে তথ্য প্রযুক্তি আইনে গ্রেফতার করাও হতে পারে।

Sujoy Pal

First published: March 19, 2020, 3:38 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर