• Home
  • »
  • News
  • »
  • coronavirus-latest-news
  • »
  • মোদির আদেশ মানতে মোমবাতি-প্রদীপ না জ্বালিয়ে ফাটল শব্দবাজি, কলকাতায় গ্রেফতার ১২৬

মোদির আদেশ মানতে মোমবাতি-প্রদীপ না জ্বালিয়ে ফাটল শব্দবাজি, কলকাতায় গ্রেফতার ১২৬

প্রতীকী ছবি

প্রতীকী ছবি

ধৃতদের বিরুদ্ধে নিষিদ্ধ শব্দবাজি ফাটানোর অভিযোগে কলকাতা পুলিশের বিশেষ আইনে মামলা রুজু করা হয়েছে।

  • Share this:

#কলকাতাঃ  প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বলেছিলেন ৫ এপ্রিল রাত ন'টায় ন'মিনিটের জন্য বাড়ির আলো নিভিয়ে রাখতে। ওই সময় প্রত্যেকে প্রদীপ বা মোমবাতি জ্বালিয়ে কিংবা মোবাইলের টর্চ জ্বেলে একযোগে শামিল হন করোনা বিরোধী লড়াইয়ে। চাঙ্গা করুন দেশবাসীর মনোবল। কলকাতায় প্রধানমন্ত্রীর ডাকে যেমন সাড়া দিয়েছিলেন বহু মানুষ। তার পাশাপাশি কিছু মানুষ যেন এই কঠিন সময়ে উৎসবে আনন্দে মেতে উঠলেন। নানা রকমের আলোর ও শব্দের নিষিদ্ধ বাজি ফাটিয়ে অকাল দীপাবলি পালন করলেন।

রবিবার রাতে যারা নিষিদ্ধ শব্দবাজি ফাটিয়ে ছিলেন তাদের তখনই চিহ্নিত করে রেখেছিল পুলিশ। ন'মিনিট পেরিয়ে যাওয়ার পরই শহর জুড়ে শুরু হয় শব্দবাজির বিরুদ্ধে পুলিশের অভিযান। যে সমস্ত বহুতল আবাসন থেকে নিষিদ্ধ শব্দবাজি ফাটানো হয় সেই জায়গাগুলিতে রাতেই অভিযান চালায় কলকাতা পুলিশ। রাতভর অভিযানে গোটা কলকাতায় ১২৬ জনকে গ্রেফতার করে লালবাজার। তাদের বিরুদ্ধে নিষিদ্ধ শব্দবাজি ফাটানোর অভিযোগে কলকাতা পুলিশের বিশেষ আইনে মামলা রুজু করা হয়েছে।

লালবাজার মনে করছে, যারা বাজি ফাটিয়েছে তাঁরা আগে থেকেই এই ধরনের নিষিদ্ধ বাজি আনিয়ে রেখেছিল। তবে লক ডাউনের সময়ে কোথা থেকে তারা এই নিষিদ্ধ শব্দ বাজি কিনেছিল তা ধৃতদের থেকে জানার চেষ্টা করছে পুলিশ। কলকাতা পুলিশের এক পদস্থ কর্তা বলেন, "যারা এ ধরনের নিষিদ্ধ শব্দবাজি ফাটিয়েছে  তাঁরা  ভেবেছিল পুলিশ শুধুমাত্র দীপাবলির সময় সক্রিয় থাকে এবং নজরদারি চালায়। কিন্তু রবিবার আমরা সক্রিয় ছিলাম। বিধি ভেঙে কেউ কিছু করছে কিনা সেদিকে আমাদের নজর ছিল। বিভিন্ন জায়গায় ছড়িয়ে ছিল কলকাতা পুলিশের টিম। সেখান থেকেই তারা লক্ষ্য করে কোথা থেকে পাঠানো হচ্ছে বাজি। সেই মতোই নির্দিষ্ট সময়ের পরে অভিযান চালিয়ে গ্রেফতার করা হয়েছে।

রাজ্য দূষণ নিয়ন্ত্রণ পর্ষদের আদেশ অনুযায়ী' ৯০ ডেসিবলের বেশি শব্দে কোনও বাজি ফাটানো হলে তা আইনত অপরাধ। রবিবার রাতে যে সব শব্দ বাজি ফাটানো হয়েছে তার বেশির ভাগই ৯০ ডেসিবেলের উপরে ফেটেছিল। তাই তাদের চিহ্নিত করে আইনানুগ ব্যবস্থা নিয়েছে কলকাতা পুলিশ। ধৃতদের গ্রেফতার করার পাশাপাশি তাদের সতর্ক করে দেওয়া হয়েছে। ভবিষ্যতে এরকম কোনও নিষিদ্ধ শব্দ বাজি ফাটানো হলে ফের আরও কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

SUJOY PAL

Published by:Shubhagata Dey
First published: