Home /News /coronavirus-latest-news /

Kolkata Metro: সকাল ৮টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত পরিষেবা, ১৭৬ দিন পরে কলকাতায় সবার জন্য চালু মেট্রো

Kolkata Metro: সকাল ৮টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত পরিষেবা, ১৭৬ দিন পরে কলকাতায় সবার জন্য চালু মেট্রো

নিউ নর্মালে বিশেষ প্রযুক্তি ব্যবহার করে ফের কলকাতায় ছুটল গণ পরিবহণের লাইফ লাইন।

  • Share this:

#কলকাতা: ১৭৬ দিন পরে অবশেষে কলকাতায় চালু হয়ে গেল মেট্রো পরিষেবা। নিউ নর্মালে বিশেষ প্রযুক্তি ব্যবহার করে ফের কলকাতায় ছুটল গণ পরিবহণের লাইফ লাইন। নোয়াপাড়া থেকে কবি সুভাষ আর সল্টলেক সেক্টর ফাইভ থেকে সল্টলেক স্টেডিয়াম পর্যন্ত দৌড়ল মেট্রো।

সংখ্যায় কম হলেও, কোভিড প্রটোকল মেনে চালু হয়ে যাওয়া এই মেট্রো পরিষেবা নিয়ে আগ্রহ ছিল সব মহলেই। বিশেষ করে ই-পাস প্রযুক্তির ব্যবহার করে মেট্রো রাইড নিয়ে ভাবনা চিন্তা শুরু হয়ে যাওয়ায় কলকাতা মেট্রোর অন্দরে। নিয়মানুযায়ী, আজ থেকে মেট্রো চলবে সকাল ৮টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত। দু'প্রান্তের শেষ ট্রেন সন্ধ্যা ৭টায় ছাড়বে। স্টেশন কন্টেইনমেন্ট এলাকার মধ্যে হলে বন্ধ থাকবে।

রবিবার মেট্রো পরিষেবা থাকবে না। মেট্রো স্টপ সময় প্রতি প্ল্যাটফর্মে ২০ সেকেন্ডের বদলে ৩০ সেকেন্ড দাঁড়াবে। রেক স্যানিটাইজেশনের পর চালানো হবে। যে সমস্ত সিটে ক্রস চিহ্ন দেওয়া থাকবে সেখানে কেউ বসবেন না।মেট্রো রেলের ওয়েবসাইট বা পথদিশা অ্যাপ থেকে মিলছে ই-পাস। ই-পাস ১২ ঘন্টা আগে বুকিং করা যাচ্ছে।  রাজ্য পুলিশ ও আরপিএফ কো অর্ডিনেশন করে ই-পাস চেক করে যাত্রীদের স্টেশনে প্রবেশের অনুমতি দিচ্ছে। মেট্রো অফিসিয়ালরা আই কার্ড দেখিয়ে স্টেশনে প্রবেশ করে ই-পাস সংগ্রহ করছেন। ঠিকাদার সংস্থার কর্মীদের ভেতরে প্রবেশের বিশেষ অনুমতি দেওয়া হচ্ছে। তবে প্রয়োজন হচ্ছে না ই-পাসের৷

টোকেন ইস্যু করা হবে না। শুধুমাত্র স্মার্ট কার্ড দেওয়া হচ্ছে। স্মার্ট কার্ড দেওয়ার জন্যে বুকিং কাউন্টার খোলা থাকছে। যাত্রীদের থার্মাল স্ক্রিনিং হচ্ছে স্টেশনে। আরোগ্য সেতু অ্যাপ ডাউনলোড করতে বলা হয়েছে যাত্রীদের। তবে স্টেশনে প্রবেশের সময় আজ বাধ্যতামূলক ছিল না।  জ্বর, সর্দি, কাশি থাকলে স্টেশনে আসা যাবে না, আগেই জানিয়ে দেওয়া হয়েছিল। সেটা অবশ্য পরীক্ষা করা হচ্ছে। মাস্ক পরা, নাক ও মুখ ঢেকে রাখা বাধ্যতামূলক। লিফটে মাত্র ৩ জন উঠতে পারবেন। স্টেশনে থুতু ফেললেই মোটা টাকা জরিমানা করা হবে। মাটির নীচে স্টেশনে যে সব  খাবার ও পানীয়ের দোকান ছিল তা বন্ধ থাকছে। মাটির উপরের স্টেশনে দোকান থাকলে তা অবশ্য খোলা রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে যথাযথ স্যানিটাইজ করে।

স্টেশন সুপারিন্টেন্ডেন্টের ঘরে ২ জনের বেশি থাকা যাবে না। অ্যাপ্রন ও ক্যাপ পড়ে থাকতে হচ্ছে হাউজ কিপিং সদস্যদের। কলকাতার উত্তর-দক্ষিণ ও পূর্ব - পশ্চিম এই দুই মেট্রো পরিষেবার জন্যেই। এই নিয়ম মেনে চলা বাধ্যতামূলক করে দেওয়া হয়েছে। তবে সল্টলেক সেক্টর ফাইভ থেকে সল্টলেক স্টেডিয়াম অবধি যেহেতু যাত্রী এমনিতেই কম যাতায়াত করে তাই এখানে রাখা হচ্ছে না কোনও ই-পাস ব্যবস্থা। শুধু স্মার্ট কার্ড দেখিয়েই চড়া যাচ্ছে মেট্রোয়। তবে স্টেশনের বাইরে আর পি এফ, মেট্রো রেল পুলিশ যৌথ ভাবে সমন্বয় রেখেই চালিয়ে গেল পরিষেবা।

আবীর ঘোষাল

Published by:Siddhartha Sarkar
First published:

Tags: Kolkata metro

পরবর্তী খবর