corona virus btn
corona virus btn
Loading

শহরের প্রথম করোনা আক্রান্তের পাড়ায় আতঙ্ক! থার্মাল গান, সাবানের পাউচ নিয়ে হাজির অনন্যা

শহরের প্রথম করোনা আক্রান্তের পাড়ায় আতঙ্ক! থার্মাল গান, সাবানের পাউচ নিয়ে হাজির অনন্যা

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়ের নির্দেশ মেনে এবং পুরসভার সহযোগিতায় নিজের এলাকা জীবাণুমুক্ত করতে বেশ কিছু প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিয়েছেন। সমস্ত রকম সাবধানতার পাশাপাশি নাগরিকদের অহেতুক আতঙ্কিত না হয়ে সতর্ক থাকার পরামর্শ অনবরত দিয়ে চলেছেন পুর কাউন্সিলর।

  • Share this:

#কলকাতা:  নজরে ১০৯ নম্বর ওয়ার্ড। রাজ্যের প্রথম করোনার পজিটিভ ভাইরাস  তাঁর ওয়ার্ডেই সন্ধান মিলেছে। ইতিমধ্যেই  নজরদারি  জোরদার করেছেন  কলকাতা পুরসভার  ১০৯  নম্বর ওয়ার্ডের পুর প্রতিনিধি  অনন্যা  বন্দ্যোপাধ্যায়।

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়ের নির্দেশ মেনে এবং পুরসভার সহযোগিতায় নিজের এলাকা জীবাণুমুক্ত করতে বেশ কিছু প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিয়েছেন। সমস্ত রকম সাবধানতার পাশাপাশি নাগরিকদের অহেতুক আতঙ্কিত না হয়ে সতর্ক থাকার পরামর্শ  অনবরত দিয়ে চলেছেন পুর কাউন্সিলর। বিশেষ ব্যবস্থা হিসেবে বাইপাস লাগোয়া মুকুন্দপুর প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রে স্বাস্থ্য কর্মীর সংখ্যাও  বাড়ানো  হয়েছে।

নতুন করে কোনও  নাগরিকের যদি  করোনা উপসর্গের সন্ধান পাওয়া যায় সে ক্ষেত্রে  সর্বক্ষণ অ্যাম্বুলেন্সও  মজুত রাখা হয়েছে। এলাকায়  সাফাইয়ের  কাজের জন্য অতিরিক্ত  সাফাই কর্মী নিযুক্ত করা হয়েছে। রাতেও চলছে সাফাই অভিযান। ঝুপড়ি থেকে বহুতল। ওয়ার্ডে নানা শ্রেণীর মানুষের বসবাস। গোটা পশ্চিমবঙ্গের মধ্যে তাঁদের মহল্লাতেই করোনায় প্রথম আক্রান্ত হওয়ার ঘটনায় এখনও  চাপা আতঙ্ক রয়েছে। এলাকায় গিয়ে দেখা গেল, অনেকের চোখে মুখেই এখনও আতঙ্কের ছাপ স্পষ্ট ।

ভয় লাগছে ? প্রশ্ন করার সঙ্গে সঙ্গেই  মাস্ক পড়ে থাকা এক মহিলার উত্তর , 'ভয় তো লাগবেই বলুন'।  কলকাতায় প্রথম করোনা আক্রান্ত তরুণ যে বহুতলে থাকতেন সেই এলাকার কাউন্সিলর অনন্যা বন্দোপাধ্যায় বাড়ি বাড়ি গিয়ে খোঁজ নিলেন নতুন করে কারোর  করোনা উপসর্গ রয়েছে কিনা। বাজারে হ্যান্ড স্যানিটাইজারের  আকাল । তাই নিজের ওয়ার্ডের  আনাচে-কানাচে ঘুরে বেড়িয়ে  পুর  প্রতিনিধি  নাগরিকদের হাতে তুলে দিলেন সাবানের পাউচ, বিলি করলেন সচেতনতামূলক লিফলেট। এলাকায় এখন বাড়তি নজর। তবুও আতঙ্ক কিছুতেই পিছু ছাড়ছে না । মূলত আতঙ্ক কাটাতেই আজ, শনিবার  সকাল থেকে স্থানীয় একটি বেসরকারি হাসপাতালের  চিকিৎসাকর্মী, নাগরিক সমাজকে সঙ্গে নিয়ে খোদ জনপ্রতিনিধি অনন্যা বন্দ্যোপাধ্যায় তাঁর ওয়ার্ডে বিলি করলেন  সচেতনতামূলক লিফলেট।  স্বাস্থ্যকর্মীরা বাড়ি বাড়ি গিয়ে থার্মাল গান দিয়ে পরীক্ষা করলেন  শরীরের তাপমাত্রা।

নাগরিকদের কাউন্সিলর অনন্যা বন্দ্যোপাধ্যায় পরামর্শ দিলেন, আতঙ্কিত হবেন না, সতর্ক  সচেতন থাকার। বাসিন্দাদের সতর্ক করে বললেন, 'ভিড় জায়গা এড়িয়ে চলুন। নির্দিষ্ট হেল্পলাইন নাম্বারে যোগাযোগ করলেই চটজলদি মিলবে সাহায্য'।  কাউন্সিলর অনন্যা বন্দোপাধ্যায়ের দাবি,'এখনও পর্যন্ত নতুন করে কারও শরীরে করোনার  উপসর্গের সন্ধান মেলেনি। আমরা গোটা বিষয়টির ওপর নজর রাখছি। করোনা ভাইরাস সংক্রমণের হাত থেকে পুরবাসীকে সুরক্ষিত রাখা আমাদের কর্তব্য'।

VENKATESWAR  LAHIRI

First published: March 21, 2020, 9:12 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर