• Home
  • »
  • News
  • »
  • coronavirus-latest-news
  • »
  • সংক্রমণ এড়াতে চিড়িয়াখানার সব কর্মীকে মুখোশ পরে থাকার নির্দেশ

সংক্রমণ এড়াতে চিড়িয়াখানার সব কর্মীকে মুখোশ পরে থাকার নির্দেশ

করোনা আতঙ্কে রবিবার থেকেই বন্ধ করে দেওয়া হল কলকাতার ভিক্টোরিয়া মেমোরিয়াল, জাদুঘর, সায়েন্স সিটি-সহ সব বড় দ্রষ্টব্য স্থান।

করোনা আতঙ্কে রবিবার থেকেই বন্ধ করে দেওয়া হল কলকাতার ভিক্টোরিয়া মেমোরিয়াল, জাদুঘর, সায়েন্স সিটি-সহ সব বড় দ্রষ্টব্য স্থান।

করোনা আতঙ্কে রবিবার থেকেই বন্ধ করে দেওয়া হল কলকাতার ভিক্টোরিয়া মেমোরিয়াল, জাদুঘর, সায়েন্স সিটি-সহ সব বড় দ্রষ্টব্য স্থান।

  • Share this:

#কলকাতা: স্কুল, কলেজ, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ হয়েছিল আগেই। এ বার করোনা আতঙ্কে বন্ধ করে দেওয়া হল কলকাতা শহরের যাবতীয় দ্রষ্টব্য স্থান। একমাত্র সেই তালিকা থেকে এখনও পর্যন্ত বাদ রয়েছে কলকাতা চিড়িয়াখানা।

করোনা আতঙ্কে রবিবার থেকেই বন্ধ করে দেওয়া হল কলকাতার ভিক্টোরিয়া মেমোরিয়াল, জাদুঘর, সায়েন্স সিটি-সহ সব বড় দ্রষ্টব্য স্থান। তবে এই তালিকা থেকে এখনও বাদ রয়েছে চিড়িয়াখানা। রবিবার পর্যন্ত অন্তত দর্শকদের জন্য খোলা রাখারই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন চিড়িয়াখানা কর্তৃপক্ষ। তবে খোলা রাখলেও সংক্রমণ যাতে না ছড়ায়, সে ব্যাপারে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কলকাতা চিড়িয়াখানা।

সংক্রমণ এড়াতে চিড়িয়াখানার সব কর্মীদের মুখোশ পরে থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। নিয়মিত হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহারও করতে বলা হয়েছে। পর্যটকদের সংখ্যা করোনা আতঙ্কে অনেকটাই কমে গিয়েছে। তা-ও যাঁরা আসছেন, তাঁদেরও মুখোশ পরে চিড়িয়াখানা ঢোকার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। চিড়িয়াখানা সূত্রে খবর, দর্শক সংখ্যা কম থাকলে পরিস্থিতি বিবেচনা করে সোমবার থেকে চিড়িয়াখানা  বন্ধ করা হতে পারে। লিখিত কোনও নির্দেশ না থাকলেও মৌখিক ভাবে আপাতত বন্ধ রাখা হয়েছে বিদেশিদের আনাগোনা। চিড়িয়াখানার অধিকর্তা আশিস কুমার সামন্ত বলেন, "সমস্ত প্রাণীদের খাঁচা এবং তার বাইরের চত্বর ডিস-ইনফেক্ট করা হয়েছে।"

শুক্রবারই কেন্দ্রের পরামর্শ মেনে যে কোনও রকম জমায়েত করতে নিষেধ করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। শনিবার বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে রাজ্যের সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। এ বার করোনা আতঙ্কের কোপ পড়ল দর্শনীয় স্থানেও।

Shalini Datta

Published by:Siddhartha Sarkar
First published: