• Home
  • »
  • News
  • »
  • coronavirus-latest-news
  • »
  • করোনা মোকাবিলায় প্রধানমন্ত্রীর তহবিলে ১ কোটি টাকা দিল আইআইটি খড়গপুর

করোনা মোকাবিলায় প্রধানমন্ত্রীর তহবিলে ১ কোটি টাকা দিল আইআইটি খড়গপুর

অধ্যাপক অধ্যাপিকা আধিকারিক ও শিক্ষা কর্মীদের একদিনের বেতন মিলিয়ে এই টাকা অনুদান দেওয়া হয়েছে।

অধ্যাপক অধ্যাপিকা আধিকারিক ও শিক্ষা কর্মীদের একদিনের বেতন মিলিয়ে এই টাকা অনুদান দেওয়া হয়েছে।

অধ্যাপক অধ্যাপিকা আধিকারিক ও শিক্ষা কর্মীদের একদিনের বেতন মিলিয়ে এই টাকা অনুদান দেওয়া হয়েছে।

  • Share this:

#খড়গপুরঃ করোনা মোকাবিলায়  পিএম কেয়ারস ফান্ডে এক কোটি টাকা আর্থিক অনুদান দিল আইআইটি খড়গপুর কর্তৃপক্ষ। মূলত অধ্যাপক অধ্যাপিকা আধিকারিক ও শিক্ষাকর্মীদের একদিনের বেতন মিলিয়ে এই টাকা অনুদান দেওয়া হয়েছে। বুধবারই অনুদান দেওয়ার কথা আইআইটি খড়্গপুরের তরফে জানানো হয়। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি আহ্বানে এই অনুদান দাবি কর্তৃপক্ষের। এ প্রসঙ্গে আইআইটি খড়গপুর অধিকর্তা ভিরেন্দ্র তিওয়ারি বলেন, "আমরা সবার কাছে প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে করোনা মোকাবিলার জন্য আর্থিক অনুদানের আবেদন জানিয়েছিলাম। এটা দেখে খুবই ভালো লাগছে আইআইটি খড়গপুর সবাই তাঁদের  একদিনের বেতন প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে অনুদান হিসেবে দিয়েছেন। আমরা এই অনুদান দেওয়ার কথা কেন্দ্রীয় মানব সম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রকের কাছে জানিয়েছি।"

এদিকে, আইআইটি খড়গপুর তরফে  মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে থাকা প্রাক্তনীদের কাছে একটি আপৎকালীন তহবিল তৈরি করার কথা আবেদন করা হয়েছে। মূলত এই তহবিল থেকে ছয় মাসের জন্য যাতে ক্যাম্পাসের ভেতরে এবং বাইরে  আর্থিকভাবে দুর্বলরা আছেন তাদের যাতে এই তহবিল থেকে আর্থিক সহযোগিতা করা যায়।

দেশজুড়ে ক্রমশই বাড়ছে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা। গত কয়েকদিনে করোনাভাইরাসে  আক্রান্ত লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে। দেশবাসীর কাছে করোনা মোকাবিলা করার জন্য আর্থিক অনুদান দেওয়ার জন্য আবেদন জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। এবার সেই আবেদনে সাড়া দিল আইআইটি খড়গপুর। দেশের অন্যতম প্রথম সারির এই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান পিএম কেয়ার ফান্ডে এক কোটি টাকা আর্থিক অনুদান দিল তারা। গোটা আইআইটি খড়গপুর এর সবাই তাদের একদিনের বেতন করোনা মোকাবিলার জন্য অনুদান দিয়েছেন।তবে শুধু অনুদান দেওয়াই নয়, একাধিক কর্মসূচিও নিয়েছে আইআইটি খড়গপুর কর্তৃপক্ষ।

বর্তমানে আইআইটি খড়গপুর এ ৫ হাজারেরও বেশি ছাত্র-ছাত্রী রয়েছে।করোনাভাইরাস মোকাবিলায় ইতিমধ্যেই একাধিক সুরক্ষা মূলক ব্যবস্থা নিয়েছে কর্তৃপক্ষ। এ প্রসঙ্গে অধিকর্তা ভিরেন্দ্র তিওয়ারি বলেন, "সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা, অত্যাবশ্যকীয় দ্রব্যের মজুত, সহ একাধিক বিষয়ে প্রয়োজনীয় নির্দেশিকা জারি করা আছে।এখন শুধুমাত্র একটি মাত্র গেট খোলা যাওয়া ও আসার জন্য।"

SOMRAJ BANDOPADHYAY

Published by:Shubhagata Dey
First published: