corona virus btn
corona virus btn
Loading

সরকারি হাসপাতাল শুধু দিল্লিবাসীদেরই চিকিৎসা করবে, সোমবার থেকে খুলছে বর্ডার, ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়ালের

সরকারি হাসপাতাল শুধু দিল্লিবাসীদেরই চিকিৎসা করবে, সোমবার থেকে খুলছে বর্ডার, ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়ালের
অরবিন্দ কেজরিওয়াল৷

পাঁচ চিকিৎসক কমিটির রিপোর্টের সুপারিশ মেনেই এদিন কেজরিওয়াল ঘোষণা করেন, সরকারি হাসপাতালে দিল্লি নিবাসী ছাড়া আপাতত অন্য রাজ্যের কোনও রোগীর চিকিৎসা করা সম্ভব হবে না ৷ তবে কেন্দ্রের অধীনস্থ হাসপাতালে দিল্লির বাসিন্দা নয় এমন মানুষও চিকিৎসার সুযোগ পাবেন৷

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: পাঁচ চিকিৎসক কমিটির সুপারিশ মেনেই স্বাস্থ্য পরিষেবা নিয়ে বড় ঘোষণা কেজরিওয়াল সরকারের ৷ এবার দিল্লি শহরের সরকারি ও প্রাইভেট হাসপাতালে চিকিৎসা পাবেন শুধু দিল্লিবাসীরাই ৷ এবার দিল্লির হাসপাতালে চিকিৎসা পাবেন শুধু দিল্লিবাসীরাই ৷ ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়ালের ৷ একইসঙ্গে ৮ জুন থেকে উত্তরপ্রদেশ ও হরিয়ানার বর্ডার খুলে দেওয়ার কথাও ঘোষণা করেন মুখ্যমন্ত্রী ৷

দিল্লি সরকার গত সপ্তাহেই ডাঃ মহেশ ভার্মার নেতৃত্বে পাঁচ চিকিৎসকের কমিটি গঠন করে৷ দিল্লিতে স্থানীয় ব্যক্তি ছাড়া অন্য কারোর চিকিৎসা করা সম্ভবপর আর হবে ৷ শনিবারই করোনা পরিস্থিতিতে আপ সরকারের তৈরি পাঁচ চিকিৎসকের কমিটি সরকারকে পেশ করা রিপোর্টে এমনটাই জানায় ৷ চিকিৎসকদের পেশ করা রিপোর্টে বলা হয়, রাজধানীর এই মুহূর্তে যা স্বাস্থ্য পরিকাঠামো তা দিল্লিবাসীদেরই প্রাধান্য দিয়ে চিকিৎসা করা উচিত ৷ করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের দাপটে হাসপাতালে বেড পাওয়া দায় ৷ তাই যে হারে সংক্রমণ বাড়ছে তাতে রোগীদের জন্য দরকার আরও বেড ৷ আজকের দিনে দাঁড়িয়ে দিল্লিতে সব হাসপাতাল মিলিয়ে যত সংখ্যক বেড আছে, তা ৩ দিনের মধ্যে ভরে যাবে ৷ এর থেকে বেশি রোগীর চিকিৎসার ভার রাজ্যের স্বাস্থ্য পরিকাঠামোর পক্ষে বহন করা প্রায় অসম্ভব কাজ বলে উল্লেখ করা হয় ওই রিপোর্টে ৷ সেই রিপোর্টের সুপারিশ মেনেই এদিন কেজরিওয়াল ঘোষণা করেন, সরকারি হাসপাতালে দিল্লি নিবাসী ছাড়া আপাতত অন্য রাজ্যের কোনও রোগীর চিকিৎসা করা সম্ভব হবে না ৷ তবে কেন্দ্রের অধীনস্থ হাসপাতালে দিল্লির বাসিন্দা নয় এমন মানুষও চিকিৎসার সুযোগ পাবেন৷

রবিবার অনলাইন সাংবাদিক বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রী কেজরিওয়াল বলেন, ‘৯০ শতাংশের বেশি মানুষ এই করোনা আবহে রাজধানীর হাসপাতালেই চিকিৎসা করাতে চাইছেন ৷ এই মাসের শেষ হতে হতে বর্তমান পরিসংখ্যান অনুযায়ী আরও ১৫ হাজার বেডের প্রয়োজন পড়বে ৷ তাই সরকার সিদ্ধান্ত নিয়েছে আপাতত দিল্লির সরকারি ও প্রাইভেট হাসপাতালগুলিতে শুধু দিল্লিবাসীরাই স্বাস্থ্য পরিষেবা পাবেন ৷’ একইসঙ্গে তিনি এটাও বলেন, যদি কেউ বাইরের কোনও রাজ্য থেকে বিশেষ কোনও অপারেশনের জন্য দিল্লিতে আসেন তাহলে সেক্ষেত্রে প্রাইভেট হাসপাতাল তার চিকিৎসা করবে ৷ চিকিৎসকদের পেশ করা রিপোর্টের ভিত্তিতেই অরবিন্দ কেজরিওয়াল বলেন, এই মুহূর্তে দিল্লির স্বাস্থ্য পরিকাঠামোকে মহামারি করোনাকে নিয়ন্ত্রণের উপরই জোর দিতে হবে ৷

সোমবার থেকে খুলে যাচ্ছে উত্তরপ্রদেশ এবং হরিয়ানা সীমানা ৷ কেন্দ্রের অনুমতিতেই আগামিকাল থেকে দিল্লিতে করোনা স্বাস্থ্য বিধি মেনে খুলছে শপিং মল, রেস্তোরাঁ এবং মন্দির-মসজিদ সহ সমস্ত ধর্মীয় স্থান ৷

Published by: Elina Datta
First published: June 7, 2020, 6:45 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर