Home /News /coronavirus-latest-news /
সরকারি হাসপাতাল শুধু দিল্লিবাসীদেরই চিকিৎসা করবে, সোমবার থেকে খুলছে বর্ডার, ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়ালের

সরকারি হাসপাতাল শুধু দিল্লিবাসীদেরই চিকিৎসা করবে, সোমবার থেকে খুলছে বর্ডার, ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়ালের

অরবিন্দ কেজরিওয়াল৷

অরবিন্দ কেজরিওয়াল৷

পাঁচ চিকিৎসক কমিটির রিপোর্টের সুপারিশ মেনেই এদিন কেজরিওয়াল ঘোষণা করেন, সরকারি হাসপাতালে দিল্লি নিবাসী ছাড়া আপাতত অন্য রাজ্যের কোনও রোগীর চিকিৎসা করা সম্ভব হবে না ৷ তবে কেন্দ্রের অধীনস্থ হাসপাতালে দিল্লির বাসিন্দা নয় এমন মানুষও চিকিৎসার সুযোগ পাবেন৷

আরও পড়ুন...
  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: পাঁচ চিকিৎসক কমিটির সুপারিশ মেনেই স্বাস্থ্য পরিষেবা নিয়ে বড় ঘোষণা কেজরিওয়াল সরকারের ৷ এবার দিল্লি শহরের সরকারি ও প্রাইভেট হাসপাতালে চিকিৎসা পাবেন শুধু দিল্লিবাসীরাই ৷ এবার দিল্লির হাসপাতালে চিকিৎসা পাবেন শুধু দিল্লিবাসীরাই ৷ ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়ালের ৷ একইসঙ্গে ৮ জুন থেকে উত্তরপ্রদেশ ও হরিয়ানার বর্ডার খুলে দেওয়ার কথাও ঘোষণা করেন মুখ্যমন্ত্রী ৷

    দিল্লি সরকার গত সপ্তাহেই ডাঃ মহেশ ভার্মার নেতৃত্বে পাঁচ চিকিৎসকের কমিটি গঠন করে৷ দিল্লিতে স্থানীয় ব্যক্তি ছাড়া অন্য কারোর চিকিৎসা করা সম্ভবপর আর হবে ৷ শনিবারই করোনা পরিস্থিতিতে আপ সরকারের তৈরি পাঁচ চিকিৎসকের কমিটি সরকারকে পেশ করা রিপোর্টে এমনটাই জানায় ৷ চিকিৎসকদের পেশ করা রিপোর্টে বলা হয়, রাজধানীর এই মুহূর্তে যা স্বাস্থ্য পরিকাঠামো তা দিল্লিবাসীদেরই প্রাধান্য দিয়ে চিকিৎসা করা উচিত ৷ করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের দাপটে হাসপাতালে বেড পাওয়া দায় ৷ তাই যে হারে সংক্রমণ বাড়ছে তাতে রোগীদের জন্য দরকার আরও বেড ৷ আজকের দিনে দাঁড়িয়ে দিল্লিতে সব হাসপাতাল মিলিয়ে যত সংখ্যক বেড আছে, তা ৩ দিনের মধ্যে ভরে যাবে ৷ এর থেকে বেশি রোগীর চিকিৎসার ভার রাজ্যের স্বাস্থ্য পরিকাঠামোর পক্ষে বহন করা প্রায় অসম্ভব কাজ বলে উল্লেখ করা হয় ওই রিপোর্টে ৷ সেই রিপোর্টের সুপারিশ মেনেই এদিন কেজরিওয়াল ঘোষণা করেন, সরকারি হাসপাতালে দিল্লি নিবাসী ছাড়া আপাতত অন্য রাজ্যের কোনও রোগীর চিকিৎসা করা সম্ভব হবে না ৷ তবে কেন্দ্রের অধীনস্থ হাসপাতালে দিল্লির বাসিন্দা নয় এমন মানুষও চিকিৎসার সুযোগ পাবেন৷

    রবিবার অনলাইন সাংবাদিক বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রী কেজরিওয়াল বলেন, ‘৯০ শতাংশের বেশি মানুষ এই করোনা আবহে রাজধানীর হাসপাতালেই চিকিৎসা করাতে চাইছেন ৷ এই মাসের শেষ হতে হতে বর্তমান পরিসংখ্যান অনুযায়ী আরও ১৫ হাজার বেডের প্রয়োজন পড়বে ৷ তাই সরকার সিদ্ধান্ত নিয়েছে আপাতত দিল্লির সরকারি ও প্রাইভেট হাসপাতালগুলিতে শুধু দিল্লিবাসীরাই স্বাস্থ্য পরিষেবা পাবেন ৷’ একইসঙ্গে তিনি এটাও বলেন, যদি কেউ বাইরের কোনও রাজ্য থেকে বিশেষ কোনও অপারেশনের জন্য দিল্লিতে আসেন তাহলে সেক্ষেত্রে প্রাইভেট হাসপাতাল তার চিকিৎসা করবে ৷ চিকিৎসকদের পেশ করা রিপোর্টের ভিত্তিতেই অরবিন্দ কেজরিওয়াল বলেন, এই মুহূর্তে দিল্লির স্বাস্থ্য পরিকাঠামোকে মহামারি করোনাকে নিয়ন্ত্রণের উপরই জোর দিতে হবে ৷

    সোমবার থেকে খুলে যাচ্ছে উত্তরপ্রদেশ এবং হরিয়ানা সীমানা ৷ কেন্দ্রের অনুমতিতেই আগামিকাল থেকে দিল্লিতে করোনা স্বাস্থ্য বিধি মেনে খুলছে শপিং মল, রেস্তোরাঁ এবং মন্দির-মসজিদ সহ সমস্ত ধর্মীয় স্থান ৷

    Published by:Elina Datta
    First published:

    Tags: Arvind Kejriwal, Corona, Corona outbreak, Corona state lock down, Coronavirus, Covid ১৯, Delhi Hospital

    পরবর্তী খবর