Home /News /coronavirus-latest-news /
ফোন করতে গেলেই করোনার সতর্কবার্তায় বিরক্ত? এই মহিলার গলাই শুনছে গোটা দেশ

ফোন করতে গেলেই করোনার সতর্কবার্তায় বিরক্ত? এই মহিলার গলাই শুনছে গোটা দেশ

ভাষ্যপাঠ শিল্পী জসলিন ভাল্লা৷Photo- Instagram

ভাষ্যপাঠ শিল্পী জসলিন ভাল্লা৷Photo- Instagram

জসলিন জানিয়েছেন, তিনি ক্রীড়া সাংবাদিক হিসেবে তাঁর পেশাদারি জীবন শুরু করেছিলেন৷ কিন্তু গত দশ বছর ধরে ভয়েস ওভার আর্টিস্ট বা ভাষ্যপাঠ হিসেবেই কাজই করছেন তিনি৷

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: গত তিন মাস ধরেই ফোন করে গেলে করোনা সংক্রমণ রোখার সতর্কবার্তা শুনতে হচ্ছে সবাইকে৷ কীভাবে করোনা সংক্রমণ রোখা যায়, করোনা রোগীদের সাহায্যের জন্য হেল্পলাইন নম্বর, সবই বলা হয় সেখানে৷ জরুরি ফোন করতে গিয়ে বারংবার এই বার্তা শুনতে গিয়ে অনেক সময় হয়তো আপনি বিরক্তও হয়েছেন৷ কিন্তু বর্তমান পরিস্থিতিতে, এই সতর্কবার্তার গুরুত্ব অস্বীকার করার উপায় নেই৷ আর এই সতর্কবার্তায় যাঁর গলা শোনা যায়, এবার তাঁর পরিচয়ও সামনে এলো৷

    করোনা সংক্রমণ রুখতে এই সতর্কবার্তাটি পাঠ করেছেন ভয়েস ওভার আর্টিস্ট জসলিন ভাল্লা৷ কীভাবে তিনি এই সুযোগ পেলেন, সম্প্রতি সর্বভারতীয় একটি সংবাদমাধ্যমকে তা জানিয়েছেন জসলিন৷ একই সঙ্গে তিনি স্বীকার করে নিয়েছেন, ফোন করতে গিয়ে বার বার একই কথা শুনে শুনে তাঁর পরিবারের সদস্য, আত্মীয়, বন্ধুরাও বিরক্ত হয়ে উঠেছেন৷

    যদিও ফোন করতে গেলেই যে তাঁর গলায় এই সতর্কবার্তা ভারতীয়দের মোবাইলে বাজতে থাকবে, তা আগে থেকে জানতেন না জসলিন৷ আর পাঁচটা রেকর্ডিং-এর মতোই কেন্দ্রীয় সরকারের স্বাস্থ্যমন্ত্রকের জন্য করোনা মোকাবিলায় এই সতর্কবার্তা রেকর্ড করেছিলেন জসলিন৷ তিনি ভেবেছিলেন, খুব বেশি হলে এটি হয়তো দিন দশেক ব্যবহার করা হবে৷ কিন্তু করোনা অতিমারী দেশে যে পর্যায়ে পৌঁছেছে, তাতে তিন মাস ধরে তার রেকর্ড করা সেই সতর্কবার্তা ফোনে ফোনে বেজেই চলেছে!

    জসলিন জানিয়েছেন, তিনি ক্রীড়া সাংবাদিক হিসেবে তাঁর পেশাদারি জীবন শুরু করেছিলেন৷ কিন্তু গত দশ বছর ধরে ভয়েস ওভার আর্টিস্ট বা ভাষ্যপাঠ হিসেবেই কাজই করছেন তিনি৷ এর আগে বিভিন্ন সংস্থা এবং নামী ব্র্যান্ডের হয়ে কাজ করেছেন জসলিন৷ তার মধ্যে রয়েছে দিল্লি মেট্রো, ভারতীয় রেল এবং এয়ারটেল-এর মতো সংস্থাও৷

    Published by:Debamoy Ghosh
    First published:

    পরবর্তী খবর