করোনায় কালো হয়ে গেল মহিলার হাত, তিনটি আঙুল বাদ দিতে হল কেটে!

করোনায় কালো হয়ে গেল মহিলার হাত, তিনটি আঙুল বাদ দিতে হল কেটে!
৮৬ বছর বয়সী করোনা আক্রান্তের হাতে অস্ত্রোপচার করতে হয় এবং এর ফলে তিনটি আঙুল বাদ যায়।

৮৬ বছর বয়সী করোনা আক্রান্তের হাতে অস্ত্রোপচার করতে হয় এবং এর ফলে তিনটি আঙুল বাদ যায়।

  • Share this:

#ইতালি: রক্তনালীতেও সংক্রমণ ঘটাতে পারে করোনা। যার ফলে রক্ত জমাট বেঁধে শরীরের যে কোনও অংশ খারাপ হয়ে যেতে পারে। করোনা নিয়ে গবেষণায় এমন কথা অনেক আগেই চিকিৎসকরা বলেছিলেন। এবার তেমনই ঘটনা দেখা গেল ইতালিতে। এক ৮৬ বছর বয়সী মহিলার হাতের আঙুলে রক্ত জমাট বেঁধে যাওয়ায় তা বাদ দিতে হল চিকিৎসকদের। ওই মহিলার হাতের তিনটি আঙুল বাদ গিয়েছে বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।

ঘটনাটি জানা যায় ইয়োরোপিয়ান জার্নাল অফ ভাস্কুলার অ্যান্ড এন্ডোভাস্কুলার সার্জারি-র একটি জার্নাল থেকে। যাতে ওই ঘটনাটির বিবরণের সঙ্গে ওই মহিলার হাতের ছবিও দেখা যায়। ছবিতে স্পষ্ট বোঝা যাচ্ছে, হাতে বেশ কয়েকটি আঙুল কালো হয়ে আছে। এই কালো হওয়ার কারণ হিসেবে চিকিৎসকরা জানিয়েছেন রক্ত জমাট বেঁধে যাওয়া। যা থেকে ওই আঙুলে সাড় চলে যায় এবং আঙুল কাজ করা বন্ধ করে দেয়। যার ফলে ওই ৮৬ বছর বয়সী করোনা আক্রান্তের হাতে অস্ত্রোপচার করতে হয় এবং এর ফলে তিনটি আঙুল বাদ যায়।

এই বিষয় ওই মহিলা জানিয়েছেন, কয়েকমাস আগে তিনি দেখেন আঙুলে গ্যাংগ্রিনের মতো কিছু হচ্ছে। কিন্তু শরীরে অন্য কোনও সমস্যা ছিল না। তার আগে গত বছরের মার্চে তাঁর হার্টে সমস্যা দেখা গিয়েছিল। তখন চিকিৎসা করাতে গিয়ে দেখা যায়, রক্ত তাঁর হার্টে পৌঁছচ্ছে না। চিকিৎসকরা তাঁকে ওষুধ দেন এবং পরে তিনি কোভিড পরীক্ষা করান। নিয়ম অনুযায়ী তা করাতে হয়। রিপোর্ট পজিটিভ আসে। এবং এর প্রায় ১-২ মাস পর হাতে গ্যাংগ্রিনের মতো বিষয়টি লক্ষ্য করেন। চিকিৎসকরা দেখেন করোনা রক্তনালীতে সংক্রমণ ঘটিয়েছে। যার ফলে রক্ত আঙুলের নিচের দিকে জমাট বেঁধেছে। এবং আঙুলের উপরের দিকে রক্ত চলাচল বন্ধ হয়েছে।


চিকিৎসকরা দেখেন, ধমনীতেও রক্তচাপ কম আছে। ফলে তাঁর হাতে অস্ত্রোপচার করা হয়।

ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট ফর হেলথ রিসার্চের অধ্যাপক গ্রাহান কুক জানান, করোনা একটি মাল্টি-সিস্টেম ডিজিজ। এটির একাধিক বৈশিষ্ট্য রয়েছে। একাধিক রোগ শরীরে তৈরি করতে পারে।

আর এটা প্রথম নয়, চিকিৎসকরা জানাচ্ছেন, এমন ঘটনা আগেও দেখা গিয়েছে। বহু করোনায় আক্রান্ত রোগীদের মধ্যে সংক্রমণের পাশাপাশি রক্ত জমাট বাঁধার বিষয়টি লক্ষ্য করা গিয়েছে।

কিংস কলেজ, লন্ডনের অধ্যাপক রুপেন আর্য বলেন, করোনায় আক্রান্ত ৩০ শতাংশ রোগীরই রক্ত জমাট বাঁধার সমস্যাটি হয়েছে। বিশেষ করে শুরুর দিকে। তাই করোনা সংক্রমণ থ্রম্বোসিস ঘটাতে পারে বলে মনে করছেন তিনি।

Published by:Simli Raha
First published:

লেটেস্ট খবর