Home /News /coronavirus-latest-news /
করোনা নিয়ে আলোচনায় মগ্ন দুই পাইলট, পাক বিমান দুর্ঘটনার তদন্তে চাঞ্চল্যকর তথ্য

করোনা নিয়ে আলোচনায় মগ্ন দুই পাইলট, পাক বিমান দুর্ঘটনার তদন্তে চাঞ্চল্যকর তথ্য

গত মাসেই করাচিতে ভেঙে পড়েছিল যাত্রীবাহী বিমান৷ PHOTO- REUTERS

গত মাসেই করাচিতে ভেঙে পড়েছিল যাত্রীবাহী বিমান৷ PHOTO- REUTERS

করাচির ওই বিমান দুর্ঘটনার তদন্ত রিপোর্ট পাকিস্তানের সংসদে পেশ করেছেন সেদেশের বিমান পরিবহণ মন্ত্রী গুলাম সরওয়ার খান৷

  • Share this:

    #ইসলামাবাদ: করোনা ভাইরাস নিয়ে আলোচনায় মগ্ন ছিলেন দুই বিমানচালকই৷ আর তার জেরেই মনসংযোগ হারিয়েছিলেন তাঁরা৷ গত মাসে পাকিস্তানের করাচিতে ঘটে যাওয়া ভয়াবহ বিমান দুর্ঘটনার তদন্ত রিপোর্টে এমনই চাঞ্চল্যকর তথ্য উঠে এসেছে৷ ওই বিমান দুর্ঘটনায় ৯৭ জনের মৃত্যু হয়৷

    করাচির ওই বিমান দুর্ঘটনার তদন্ত রিপোর্ট পাকিস্তানের সংসদে পেশ করেছেন সেদেশের বিমান পরিবহণ মন্ত্রী গুলাম সরওয়ার খান৷ তিনি দাবি করেছেন, বিমান চালক এবং এটিসি-র আধিকারিকরা নির্দিষ্ট বিধি না মানাতেই ওই ভয়াবহ দুর্ঘটনা ঘটে৷ দুর্ঘটনাগ্রস্ত বিমানটিতে কোনও ত্রুটি ছিল না বলেও দাবি করেন মন্ত্রী৷

    পাক সংসদে তিনি বলেন, 'দুর্ভাগ্যবশত, বিমানটির গোটা যাত্রা পথেই করোনা নিয়ে আলোচনা করছিলেন দুই পাইলট৷' বিমানটির ককপিট ভয়েস রেকর্ডার থেকেই এই তথ্য পাওয়া গিয়েছে বলে জানিয়েছেন পাকিস্তানের মন্ত্রী৷ তিনি আরও বলেন, 'দুই পাইলটের মনেই করোনার ভয় গ্রাস করেছিল৷ ওঁদের পরিবারের সদস্যও করোনায় আক্রান্ত ছিলেন৷ আর ওঁরা সেসব নিয়েই আলোচনা করছিলেন৷' পাক মন্ত্রী অবশ্য দাবি করেছেন, দুই পাইলটই বিমান ওড়ানোর জন্য শারীরিক ভাবে সম্পূর্ণ সুস্থ ছিলেন৷

    তদন্ত রিপোর্ট উঠে এসেছে, বিমানটি যখন রানওয়ে থেকে দশ নটিক্যাল মাইল দূরে, তখনও সেটি ৭২২০ ফুট উচ্চতায় উচ্চতায় ছিল৷ কিন্তু সেই সময় বিমানটির ২৫০০ ফুট উচ্চতায় থাকার কথা ছিল৷ এ নিয়ে এটিসি থেকে দুই পাইলটকে সতর্কও করা হয়েছিল৷ তাঁদের আরও একবার চক্কর কেটে এসে অবতরণের চেষ্টা করতে বলা হয়৷ কিন্তু এটিসি-র সেই পরামর্শও কানে তোলেননি দুই পাইলট৷ পাক মন্ত্রী বলেন, 'যখন দুই বিমান চালক অবতরণের চূড়ান্ত প্রস্তুতি নিচ্ছেন, তখনও এটিসি থেকে তাঁদের সতর্ক করা হয়৷ কিন্তু পাইলটি বলেন তিনি সামলে নেবেন৷'

    বিমানের ফ্লাইট ডেটা রেকর্ডার থেকে দেখা যায়, বিমানটি অবতরণের আগে একবার ল্যান্ডিং গিয়ারটি নামিয়েও ফের তা তুলে নেন দুই চালক৷ পাক মন্ত্রী জানান, 'বিমানটি যখন ১০ নটিক্যাল মাইল দূরে, তখন ল্যান্ডিং গিয়ার নামানো হয়৷ কিন্তু রানওয়ের ৫ নটিক্যাল মাইল দূরে থাকার সময় ফের কেন সেটি তুলে নেওয়া হয়, তা ভাবনারও বাইরে!' পাক মন্ত্রী জানান, দুর্ঘটনার ঠিক আগে হায় 'ঈশ্বর! হায় ঈশ্বর!' বলে চেঁচিয়ে ওঠেন বিমানচাল৷

    Published by:Debamoy Ghosh
    First published:

    Tags: Coronavirus, Pakistan

    পরবর্তী খবর