ভারতে ৩০ লক্ষের বেশি মানুষ একদিনে পেলেন করোনার ভ্যাকসিন, এখনও পর্যন্ত সর্বোচ্চ!

প্রতীকী ছবি

স্বাস্থ্যমন্ত্রক সূত্রে খবর, গত ১৫ দিনের মধ্যে ৬০ বছরের উপরে বয়স যাঁদের সেই তালিকায় প্রায় ১ কোটি মানুষ ভ্যাকসিন নিয়েছেন। ১৫ মার্চ ভ্যাকসিন নেওয়া ৩,২৯,৪৭,৪৩২ জন মানুষের মধ্যে ২৬,২৭,০৯৯ জন ভ্যাকসিনের প্রথম ডোজ পেয়েছেন।

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: ভারতে শুরু হয়ে গিয়েছে করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে টিকাকরণের কাজ। ইতিমধ্যেই ৩.২৯ কোটি মানুষ করোনার ভ্যাকসিন পেয়ে গিয়েছেন বলে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রক সূত্রে খবর। স্বাস্থ্যমন্ত্রক থেকে জানানো হয়েছে, শুধু মাত্র ১৫ মার্চ ৩,২৯,৪৭,৪৩২ জন মানুষ করোনার ভ্যাকসিন নিয়েছেন। মার্চের ১৫ তারিখের মধ্যেই এত মানুষ করোনার বিরুদ্ধে টিকা নিয়েছেন।

    স্বাস্থ্যমন্ত্রক সূত্রে খবর, গত ১৫ দিনের মধ্যে ৬০ বছরের উপরে বয়স যাঁদের সেই তালিকায় প্রায় ১ কোটি মানুষ ভ্যাকসিন নিয়েছেন। ১৫ মার্চ ভ্যাকসিন নেওয়া ৩,২৯,৪৭,৪৩২ জন মানুষের মধ্যে ২৬,২৭,০৯৯ জন ভ্যাকসিনের প্রথম ডোজ পেয়েছেন। ৪,১৪,২৯৫ জন নিয়েছেন ভ্যাকসিনের দ্বিতীয় ডোজ।

    গত ১৬ জানুয়ারি থেকে দেশে করোনার বিরুদ্ধে ভ্যাকসিন দেওয়ার কাজ শুরু করেছে সরকার। প্রথমে করোনার বিরুদ্ধে লড়াই করা প্রথম সারির করোনাযোদ্ধাদের ভ্যাকসিন দেওয়া হয়। ২ ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু হয়েছিল প্রথম সারির করোনা যোদ্ধাদের ভ্যাকসিন দেওয়ার কাজ। মার্চের পয়লা তারিখ থেকে দ্বিতীয় দফার ভ্যাকসিন দেওয়া শুরু হয়েছে। ৬০ বছরের বেশি বয়স এবং ৪৫ বছরের বেশি বয়সী যাঁদের কোমর্বিডিটি রয়েছে তাঁদের টিকা দেওয়ার কাজ চলছে।

    অন্যদিকে, মহারাষ্ট্রে করোনাভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউ শুরু হয়ে গিয়েছে। মঙ্গলবার উদ্ধব ঠাকরের সরকারকে সতর্ক করল কেন্দ্রের পর্যবেক্ষক দল। এবং তারই সঙ্গে আশঙ্কা প্রকাশ করে রিপোর্টে বলা হয়েছে, কোভিড রোগীদের দ্রুততার সঙ্গে চিহ্নিত করে, পরীক্ষা করানো ও তাঁদের চিকিৎসার ক্ষেত্রে গাফিলতি না করে পদক্ষেপ করতে। মহারাষ্ট্রে নতুন করে ফের করোনার মাথাচারা দেওয়ায় চিন্তায় পড়েছে গোটা দেশ। মহারাষ্ট্রের এক মন্ত্রী ঈশ্বরসিন পটেল টিকা নেওয়ার পরও কোভিডে সংক্রমিত হয়েছেন।

    Published by:Raima Chakraborty
    First published: