গত ৬ মাসে ভারতে করোনা সংক্রমণের দৈনিক হার সবচেয়ে কম

গত ৬ মাসে ভারতে করোনার দৈনিক সংক্রমণের হার সবচেয়ে কম

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: ব্রিটেনের নতুন করোন স্ট্রেন সারা বিশ্বের মতোই ভারতকেও ভাবাচ্ছে। পুরনো স্ট্রেনের তুলনায় ৭০ শতাংশ বেশি সংক্রমক এই করোনার সংক্রমণের গতি কয়েক গুণ হারে বেড়েছে বলেই চিন্তার। তবুও ভারতবাসীর জন্য স্বস্তির খবর৷ গত ৬ মাসে ভারতে করোনার দৈনিক সংক্রমণের হার সবচেয়ে কম৷

    রবিবার এই দেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ১৮,৭৩২৷ গত ১ জুলাইয়ের থেকে সর্বনিম্ন৷ তখন আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ১৮, ৬৫৩৷ শেষ ২৪ ঘণ্টায় এই ঘাতক ভাইরাসে প্রাণ হারিয়েছেন ২৭৯ জন৷ জানুয়ারিতে করোনা থাবা বসিয়েছিল ভারতে৷ ২৭ ডিসেম্বর সকাল ৮ টা পর্যন্ত স্বাস্থ্য মন্ত্রকের আপডেট অনুযায়ী এর মধ্যে ১,৪৭, ৬২২ জনের মৃত্যু হয়েছে এবং ৯৭, ৬১, ৫৩৮ জন সুস্থ হয়েছেন৷ এখনও পর্যন্ত দেশে করোনা পজিটিভের সংখ্যা ১,০১,৮৭,৮৫০৷ দেশের রাজধানী দিল্লিতে শেষ ২৪ ঘণ্টায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৬৫৫৷ গত চার মাসের মধ্যে যা সর্বনিম্ন৷ যা নিঃসন্দেহে দিল্লির কাছে স্বস্তিদায়ক৷

    চিন, ব্রিটেন, আমেরিকা ও রাশিয়ায় ইতিমধ্যেই শুরু হয়েছে টিকাকরণ। কিন্তু ভারতে একাধিক টিকার ট্রায়াল রান শুরু হলেও, এখনও পর্যন্ত টিকাকরণ নিয়ে কোনও চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়নি ভারত সরকার। জানা যাচ্ছে আগামী সপ্তাহে অক্সফোর্ড অ্যাস্ট্রাজেনেকাকে টিকার জন্য অনুমোদন দেওয়া হতে পারে। এর পাশাপাশি আপৎকালীন স্থিতিতে ব্যবহারের জন্য ভারত বায়োটেক এবং ফাইজারকে অনুমোদন দিতে পারে কেন্দ্র। টিকা সুরক্ষিত প্রমাণ হলেই ভারতে টীকাকরণ শুরু হবে৷

    দেশ জুড়ে করোন টিকাকরণের জন্য প্রস্তুত হচ্ছে কেন্দ্র৷ আগামী সপ্তাহের মধ্যে ভৌগলিক অবস্থানের বিচারে অন্ধ্রপ্রদেশ, অসম, গুজরাত ও পঞ্জাবে শুরু হয়ে যাবে করোনা টিকার ড্রাই রান৷ এর মধ্যেই দ্য ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অফ মেডিক্যাল রিসার্চ (আইসিএমআর) দুর্দান্ত এক খবর শুনিয়েছে৷ তারা জানিয়েছে ভারতে দেশীয় প্রযুক্তিতে তৈরি করোনার টিকা ‘কোভ্যাকসিন’ বিশ্বে অলোড়ন ফেলে দিয়েছে৷

    Published by:Subhapam Saha
    First published: