২৪ ঘণ্টায় স্পেনকেও ছাড়াল ভারত! করোনা সংক্রমণের নিরিখে এখন পঞ্চম স্থানে

করোনা আক্রান্তের নিরিখে বিশ্বে পঞ্চম স্থানে ভারত।

দেশের পঞ্চমদফার লকডাউনকে বলা হচ্ছে আনলক ওয়ান। অর্থনীতির চাকা সচল করতে খুলে দেওয়া হচ্ছে একের পর এক পরিষেবা ক্ষেত্র। এর মধ্যেই হু হু করে বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা।

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: ইতালিকে ছাড়িয়েছিল আগেই। এবার করোনা আক্রান্তের পরিসংখ্যানে স্পেনকেও ছাড়াল ভারত। এ দিন সর্বশেষ পাওয়া খবরে ভারতে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ২ লক্ষ ৪১ হাজার ৯৭০ জন। এক সপ্তাহ আগেও করোনার এক আঁতুড়ঘর স্পেনে আক্রান্ত ছিলেন ২লক্ষ ৪০ হাজার ৯৭৮ জন।

    শনিবার সকালেই স্বাস্থ্যমন্ত্রক সূত্রে জানিয়ে দেওয়া হয় ভারতে শেষ চব্বিশ ঘণ্টায় আক্রান্ত হয়েছেন ৯ হাজার ৮৮৭ জন। ২৪ ঘন্টার হিসেবে এটাই ভারতের সর্বোচ্চ সংক্রমণ। এ পর্যন্ত দেশে করোনায় মৃত্যু হয়েছে ৬ হাজার৬৪৭ জনের। শেষ ২৪ ঘন্টায় মারা গিয়েছেন ২৯৪ জন।

    শুক্রবারের পরিসংখ্যানে ইতালির থেকে এগিয়ে ছিল ভারত। আমেরিকার জন হপকিনস বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিসংখ্যানবিদরা তুলনামূলক তথ্য তুলে এনে দেখান ইতালিতে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা যেখানে ২ লক্ষ ৩৪ হাজার ৫৩১ জন, সেখানে ভারতে করোনা আক্রান্ত্রের সংখ্যা ২ লক্ষ ৩৫ হাজার ছাড়িয়েছে।

    গোটা দেশে এই মুহূর্তে সক্রিয় রোগীও রয়েছেন ১ লক্ষের বেশি। এর মধ্যেই হাসপাতালের করোনা-বেড নিয়ে সমস্যা তৈরি হচ্ছে রাজধানীতে। দিল্লি, গুজরাতে করোনা রোগীর সংখ্যা পাঁচ অঙ্কের সংখ্যায় পৌঁছেছে। ৯ হাজার পেরিয়ে গিয়েছে উত্তর প্রদেশ, রাজস্থানে আক্রান্তের সংখ্যা। এই মুহূর্তে সবচেয়ে বেশি করোনা আক্রান্ত অবশ্য মহারাষ্ট্রে। পশ্চিমবঙ্গেও উত্তরোত্তর বাড়ছে সংক্রমণ। শেষ ২৪ ঘন্টায় আক্রান্ত হয়েছে ৪৩৫ জন। মোট আক্রান্ত ৭ হাজার ৭৩৮ জন।

    দেশের পঞ্চমদফার লকডাউনকে বলা হচ্ছে আনলক ওয়ান। অর্থনীতির চাকা সচল করতে খুলে দেওয়া হচ্ছে একের পর এক পরিষেবা ক্ষেত্র। খুলতে চলেছে বহু সরকারি-বেসরকারি অফিস। এই পরিস্থিতিতে সংক্রমণের পরিসংখ্যান এবং দেশের পরিকাঠামো নিয়ে চিন্তায় স্বাস্থ্যবিদরা।

    Published by:Arka Deb
    First published: