করোনা ভাইরাস

?>
corona virus btn
corona virus btn
Loading

বৃদ্ধ করোনা আক্রান্ত স্ট্রেচারও দিল না হাসপাতাল, দরজার সামনে আধঘণ্টা মাটিতে পড়ে থেকে মৃত্যু বৃদ্ধের

বৃদ্ধ করোনা আক্রান্ত স্ট্রেচারও দিল না হাসপাতাল, দরজার সামনে আধঘণ্টা মাটিতে পড়ে থেকে মৃত্যু বৃদ্ধের

না আছে পেশাগত দায়বদ্ধতা না আছে মানবিকতা, চোখের সামনে মারা গেল বৃদ্ধ

  • Share this:

#পটনা : করোনা ভাইরাস মহামারীর প্রকোপ থেকে বাঁচতে পাটনা সিটি-র নালন্দা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালকে (NMCH)  সরকার কোভিড হাসপাতাল বলে তিন মাস আগে ঘোষণা করেছিল ৷ হাসপাতাল প্রশাসন একের পর দাবি জানিয়েছে তাঁদের হাসপাতালে একের পর এক করোনা পীড়িতদের সফল চিকিৎসা হচ্ছে এমনটাই দাবি করছে ৷

কিন্তু হাসপাতাল প্রশাসনের এই রূপ সকলের সামনে এনে দিয়েছে একটি মর্মান্তিক ঘটনা ৷ শুক্রবার হাসপাতালের গেটের সামনেই করোনা পীড়িত এক ব্যক্তি শ্বাসকষ্টে তড়পে তড়পে মারা যায় ৷ মেডিসিন বিভাগের গেটের সামনে সে অত্যন্ত কষ্ট পেয়ে কাতরাচ্ছিল ৷ কিন্তু চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীরা তাঁকে এভাবে কষ্ট পেতে দেখেও না নিজেদের কর্তব্য না মানবিক মুখ দেখান ৷ সকলেই বিষয়টি দেখেও অগ্রাহ্য করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল ৷

যে ছবিটি ভাইরাল হয়েছিল তাতে দেখা যাচ্ছিল করোনা পীড়িত ওই বয়স্ক ব্যক্তি অত্যন্ত যন্ত্রনায় কাতরাচ্ছেন ৷ তাঁর বাড়ির লোক তাঁকে ওখান থেকে ওঠানোর চেষ্টা করছেন ৷ কিন্তু হাসপাতালের কেউ তাঁদের দিকে সামাণ্য সাহায্যের হাতও বাড়িয়ে দেয়নি ৷ স্বাস্থ্যকর্মী থেকে সুরক্ষাকর্মী সকলেই শুধুমাত্র মূক দর্শক হয়েছিল ৷ আর যার পরিণামে কষ্টের সীমা সহ্য না করতে পেরে ওই ব্যক্তি মারা যান ৷ মৃত ব্যক্তি সারণ জেলার নৌতনের বাসিন্দা ৷ তাঁর বয়স ছিল ৫৮ বছর ৷ তাঁকে ১৭ জুন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল ৷

অসুস্থ অবস্থায় যখন তাঁকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল তখন সেখানে তিনি করোনা পজিটিভ জানা যায় ৷ এরপর তাঁকে অন্য ওয়ার্ডে পাঠানোর জন্য কোনও ট্রলিও দেওয়া হয়নি ৷ অপারগ পরিবার বর্গ তাঁকে হাতে করে এক ওয়ার্ড থেকে অন্য ওয়ার্ডে নিয়ে যাচ্ছিলেন ৷ সেখানেই মেডিসিন ওয়ার্ডের সামনে মাটিতে পড়ে যান ওই অসুস্থ রোগী ৷ আর সেখানেই করুণ মৃত্যু নেমে আসে তাঁর জীবনে ৷

মৃতের পুত্র সচিন কুমার জানিয়েছেন কানিহইয়া প্রসাদের শ্বাসকষ্ট ছিলই ৷ তারসঙ্গে যোগ হয়েছিল জ্বরের উপসর্গ৷ প্রচণ্ড জ্বর থাকার সময় যদি তাঁর চিকিৎসা করা হত তাহলে হয়ত তাঁকে বাঁচানো যেত ৷ ছেলে এই ঘটনার তদন্ত চেয়েছে ৷ এদিকে এই মর্মান্তিক ঘটনা ঘটে যাওয়ার পর হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ মেনে নিয়েছে এই ঘটনায় তাদের দোষ রয়েছে ৷ হাসপাতালের আধিকারিক জানিয়েছেন এই গাফিলতি কীভাবে হল তা পূর্ণাঙ্গ তদন্ত করে খতিয়ে দেখা হবে ৷

Published by: Debalina Datta
First published: June 19, 2020, 10:49 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर