corona virus btn
corona virus btn
Loading

বাবাকে শেষবার দেখতে দেওয়া হল মাত্র ৩ মিনিটের জন্য, পিপিই পরে শেষকৃত্য কন্যার

বাবাকে শেষবার দেখতে দেওয়া হল মাত্র ৩ মিনিটের জন্য, পিপিই পরে শেষকৃত্য কন্যার
Photo- Representative(File)

মেয়েকে বাবার মৃতদেহ দেখার অনুমতি দেওয়া হল মাত্র ৩ মিনিটের জন্য ৷

  • Share this:

#ইম্ফল: ভারতে করোনা ভাইরাসে সংক্রমিত হয়ে মৃত্যুর হার মাত্র ২.৮২ শতাংশ ৷ সারা বিশ্বের বিভিন্ন দেশের নিরিখে যা অনেকটাই কম ৷ কিন্তু এই মারণ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে যাঁরা মারা যাচ্ছেন তাঁদের ও তাঁদের পরিবারের সদস্যদের জন্য তা অত্যন্ত বেদনাদায়ক ৷ শেষ বিদায়ের সময় পরিবারের মানুষ তাঁর কাছ পর্যন্ত পৌঁছতেও পারছেন না ৷ যেটুকু সময় শেষ দেখাটা দেখতে দেওয়া হচ্ছে সে সময়েও পরিবারের মানুষকে অনেকটা দূরে দাঁড় করিয়ে রাখা হচ্ছে ৷ আর স্বাস্থ্যকর্মীরা বিভিন্ন ভাবে প্রোটেকশন দিয়ে মৃতের শরীর ঘিরে রাখছেন ৷ এরকমই করুণ ঘটনার সাক্ষী হলেন এক মণিপুরী কন্যা ৷ তাঁকে বাবার মৃতদেহ দেখার অনুমতি দেওয়া হল মাত্র ৩ মিনিটের জন্য ৷

শেষের ৩ মিনিট

নর্থ ইস্ট টুডে সংবাদমাধ্যমের খবর অনুযায়ী ২২ বছরের অঞ্জলি হিমাঙ্গটে -র বাবা দীর্ঘ সময় অসুস্থ থাকার পর মারা যান ৷ জেলার ডিএম অঞ্জলিকে অনুমতি দেন বাবার মৃতদেহ শেষবার দেখার জন্য ৷ শব অ্যাম্বুল্যান্সে তাঁর বাড়ি যায় ৷ অঞ্জলি পিপিই কিট পরে বাবার মৃতদেহের কাছে যান ৷ মৃতদেহের সঙ্গে থাকা স্বাস্থ্যকর্মীরা তাঁকে শেষবার বাবাকে দেখার জন্য মাত্র ৩ মিনিটের সময় দিয়েছিলেন ৷ অঞ্জলি যখন বাবাকে দেখছিলেন তখন ডাক্তারের নজর ছিল ঘড়ির কাঁটার দিকে ৷ মৃত বাবার শরীর দেখে মেয়েটি কান্নায় ভেঙে পড়ে৷ মেয়েটি কাঁদতে কাঁদতে বলেন , ‘ড্যাডি আমায় ক্ষমা করে দিও. আপনি দয়া করে নিরাশ হবেন না,আমি আপনার সঙ্গে এর চেয়ে বেশি সময় থাকতে পারছি না ৷ আমার জন্য আপনি অনেক কিছু করেছেন আমি চিরকাল তা মনে রাখব ৷ ’

৩ মিনিট অতিক্রান্ত হয়ে গেলে মেডিক্যাল স্টাফরা মৃতদেহর কাছ থেকে তাঁকে সরিয়ে নেন ৷ মৃত ব্যক্তি করোনা সংক্রমিত সন্দেহ হওয়ায় শেষ কয়েকদিন মেয়েকে ও তাঁর মা-কে মৃত ব্যক্তির কাছে যাওয়ার অনুমতি দেননি চিকিৎসকরা ৷ পরিবারের অন্য কোনও ব্যাক্তিও মৃতের কাছে যেতে পারেননি ৷ মৃতদেহ চলে যাওয়ার পর গোটা এলাকা স্যানিটাইজ করা হয় ৷

অঞ্জলি ২৫ মে শ্রমিক স্পেশাল ট্রেনে চেন্নাই থেকে মণিপুরে ফেরেন ৷ অঞ্জলি যাঁর সঙ্গে ফিরেছিলেন তিনি করোনা পজিটিভ হওয়ায় তাঁকেও কোয়ারেন্টাইনে পাঠিয়ে দেওয়া হয় ৷ বাবার শেষকৃত্যও তাঁকে পিপিই কিট পরেই করতে হয় ৷

Published by: Debalina Datta
First published: June 5, 2020, 2:32 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर