করোনা ভাইরাস

corona virus btn
corona virus btn
Loading

মাস্কের ওপর নিজের ছবি, মেয়েদের ক্ষেত্রে লাল লিপস্টিকে হাসি!ডিজাইনার মাস্কের চাহিদা তুঙ্গে

মাস্কের ওপর নিজের ছবি, মেয়েদের ক্ষেত্রে লাল লিপস্টিকে হাসি!ডিজাইনার মাস্কের চাহিদা তুঙ্গে
(Image credit: Reuters)

অনলাইনে নিজের ছবি পোস্ট করে দিচ্ছেন ক্রেতারা৷ সেখান থেকে সরাসরি প্রিন্ট করা হচ্ছে৷

  • Share this:

#জাকার্তা: করোনায় আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা বাড়ছে৷ এই রোগ নিয়েই বেঁচে থাকতে হবে সকলকে৷ আপাতত এই বিষয়টা বুঝে গিয়েছেন অনেকে৷ নিউ নর্মাল জীবনে ধীরেধীরে প্রস্তুত হচ্ছেন সবাই৷ মাস্ক, গ্লাবসই এখন নিত্যসঙ্গী হয়েছে৷ তাই তো সেই মাস্কের মধ্যে নানা ডিজাইন করে পরতে পছন্দ করছেন অনেকে৷ আর তাতেই চাহিদা বাড়ছে ডিজাইনার মাস্কের৷ ফ্যাশনের অঙ্গ হিসেবে ডিজাইনার মাস্কের কদর বাড়ছে ইন্দোনেশিয়া, মালয়েশিয়ায়৷

পুণর্ব্যবহার যোগ্য কাপড়ে নিজের মুখের প্রিন্ট করা মাস্কের চাহিদা সবথেকে বেশি৷ মাস্কের ওপর থাকছে চওড়া হাসি এবং মহিলাদের ক্ষেত্রে ঠোঁট লিপস্টিকে রাঙা৷ এভাবে যার মাস্ক, তার মুখের ছবি ছাপানো হচ্ছে মাস্কে৷ মিলছে অর্ডারও৷ যেমন বায়না দিয়েছেন ৪৬ বছরের হীনী কুসমিজাতি৷

যখন আমাদের অন্যরা দেখেন, তখন ভাবেন কেন আমরা এভাবে হাসছি? বলছেন হীনা! জাকার্তায় একটি প্রিন্টিং-এর দোকানে শুরু হয় এই ব্যবসা৷ করোনার সময় এই ব্যবসাই চলছে রমরমিয়ে৷

অনলাইনে নিজের ছবি পোস্ট করে দিচ্ছেন ক্রেতারা৷ সেখান থেকে সরাসরি প্রিন্ট করা হচ্ছে৷ ৩০ মিনিট লাগছে সময়৷ যার দাম পড়ছে ভারতীয় মুদ্রার হিসেবে ২৫০ থেকে ২৭০ টাকা৷ এতেই ব্যবসাও হচ্ছে ভাল৷ এবং চাহিদাও তুঙ্গে৷

প্রথমে আমরাও একটু দ্বিধা করছিলাম৷ তারপর দেখলাম সবাই খুব আগ্রহী৷ এই মাস্কের ব্যবসাই আমাদের ক্ষতির হাত থেকে বাঁচিয়েছে৷ একইভাবে দক্ষিণপূর্ব এশিয়ায় অনেকে ঝুঁকছে ডিজাইনার মাস্কের দিকে৷ কোথাও ফিলিপিন্সের শিল্পী বানাচ্ছেন হরর (ভূতুরে) মাস্ক, কোথাও আবার থাই শিল্পী ফেসশিল্ডের ওপর কার্টুন এবং ছবির চরিত্র যুক্ত করেছেন৷

বাটিক ডিজাইন খুবই জনপ্রিয় মলায়েশিয়ায়৷ যদিও সেখানে মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক নয়৷ কিন্তু তবুও এই ডিজাইনের মাস্কের অর্ডার পাচ্ছেন শিল্পীরা৷

Published by: Pooja Basu
First published: June 28, 2020, 5:11 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर