corona virus btn
corona virus btn
Loading

রাজ্যের এই জেলায় হোম কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন ১১ হাজারেরও বেশি পুরুষ মহিলা! 

রাজ্যের এই জেলায় হোম কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন ১১ হাজারেরও বেশি পুরুষ মহিলা! 

পূর্ব বর্ধমান জেলায় করোনা আইসোলেশন ওয়ার্ডে রয়েছেন সাত জন। হোম কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন ১১ হাজারেরও বেশি বাসিন্দা।

  • Share this:

#পূর্ববর্ধমান: পূর্ব বর্ধমান জেলায় করোনা আইসোলেশন ওয়ার্ডে রয়েছেন সাত জন। হোম কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন ১১ হাজারেরও বেশি বাসিন্দা। এদের মধ্যে দেড়শ জনের বেশি পুরুষ মহিলা এসেছেন ভারতের বাইরে থেকে। রবিবার অন্য রাজ্য থেকে জেলায় এসেছেন ৫৮ জন। তাদের সকলকেই চোদ্দ দিন হোম কোয়ারান্টিনে থাকার পরামর্শ দিয়েছে প্রশাসন।

বর্ধমান শহরের প্রায় প্রতিটি এলাকাতেই বিদেশ বা বাইরের রাজ্য থেকে এসেছেন অনেকেই। তারা হোম কোয়ারান্টিন উপেক্ষা করে মাঝেমধ্যেই বাইরে বেরিয়ে পড়ছেন বলে অভিযোগ। জেলা প্রশাসন জানিয়েছে, নিজের ও পরিবারের সকলের স্বার্থেই ১৪ দিন হোম কোয়ারান্টিন জরুরি। রবিবার বর্ধমান স্টেশনে দূর পাল্লার ট্রেন যাত্রীদের প্রত্যেকের শারীরিক পরীক্ষা করা হয়। তাদের মধ্যে সন্দেহজনক ন জনকে অ্যাম্বুলান্সে বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসকরা তাদের চিকিৎসা ছেড়ে দিলেও তাদের চোদ্দ দিন হোম কোয়ারান্টিনে থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

পূর্ব বর্ধমান জেলার মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক প্রণব কুমার রায় বলেন, সাত জন করোনার উপসর্গ নিয়ে সরকারি হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে রয়েছেন। তাদের মধ্যে চার জন রয়েছেন বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। এখনও পর্যন্ত পূর্ব বর্ধমান জেলায় করোনা পজিটিভ কোনও রোগীর সন্ধান মেলেনি।

জেলা শাসক বিজয় ভারতী বলেন, জনবহুল সব বাজারে নজরদারি চলবে। লক ডাউন চলাকালীন যাতে অহেতুক কোথাও বাসিন্দারা ভিড় না করেন তা দেখা হবে। বাজার এলাকাগুলিতেও ভিড় এড়াতে সচেতন করার কাজ চলবে। হোম কোয়ারান্টিনে থাকা পুরুষ মহিলারা যাতে বাড়িতেই থাকেন তা দেখবেন অঙ্গন ওয়াড়ি কর্মী, আশা কর্মী ও সিভিক ভলান্টিয়াররা। জেলা প্রশাসন জানিয়েছে, বর্ধমান শহরের বাইরে কৃষি খামারের কাছে প্রায় দেড়শ বেডের কোয়ারান্টিন রয়েছে। কোয়ারান্টিনের সংখ্যা আরও বাড়ানোর পরিকল্পনা রয়েছে। বেসরকারি হাসপাতাল ও নার্সিংহোমগুলিকে পাঁচ বেডের আইসোলেশন ওয়ার্ড তৈরি বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। এখন লক ডাউন চলাকালীন সবাইকে গৃহবন্দি রাখতে দৃঢ় প্রতিজ্ঞ প্রশাসন।

First published: March 23, 2020, 7:13 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर