corona virus btn
corona virus btn
Loading

ইউজিসির সঙ্গে সংঘাতের মাঝেই চূড়ান্ত বর্ষের ছাত্রছাত্রীদের ফলপ্রকাশ রাজ্য প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের

ইউজিসির সঙ্গে সংঘাতের মাঝেই চূড়ান্ত বর্ষের ছাত্রছাত্রীদের ফলপ্রকাশ রাজ্য প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের

রাজ্যের উচ্চ শিক্ষা দফতরের তরফে ৩১শে জুলাই এর মধ্যে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর স্তরের চূড়ান্ত বর্ষের ছাত্রছাত্রীদের ফলাফল প্রকাশ করার অ্যাডভাইজারি দেওয়া হয়েছে।

  • Share this:

#কলকাতা: ইউজিসির সঙ্গে সংঘাত এর মাঝেই চূড়ান্ত বর্ষের ছাত্রছাত্রীদের ফলাফল প্রকাশ করল রাজ্য প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় বা মৌলানা আবুল কালাম আজাদ ইউনিভার্সিটি অফ টেকনোলজি। সোমবার বিকেলে বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে থেকে ছাত্রছাত্রীরা ফলাফল জানতে পারবেন।

ইতিমধ্যেই ইউজিসির তরফে চূড়ান্ত বর্ষের ছাত্রছাত্রীদের পরীক্ষা নেওয়ার জন্য গাইডলাইন জারি করা হয়েছে। গাইডলাইনে অনলাইন, অফলাইন, অনলাইন ও অফলাইন এ তিনটি মাধ্যমের মধ্যে যেকোনো একটি মাধ্যমের সাহায্যে পরীক্ষা নেওয়ার কথা বলা হয়েছে। যদিও রাজ্য তরফে শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় আগেই জানিয়েছিলেন ইউজিসির গাইডলাইন মেনে বর্তমান করোনা আবহে পরীক্ষা নেওয়া সম্ভব নয়। ছাত্র-ছাত্রীদের মূল্যায়ন কিভাবে করতে হবে তা নিয়ে গত মাসের শেষ দিকেই অ্যাডভাইজারি দিয়েছিল রাজ্যের উচ্চ শিক্ষা দফতর। সেই অ্যাডভাইজারি মেনেই সোমবার সন্ধ্যেবেলায় বিটেক এবং ম্যানেজমেন্ট এর চূড়ান্ত বর্ষের ছাত্রছাত্রীদের ফলাফল প্রকাশ করল রাজ্য প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়।

কতগুলি বিশ্ববিদ্যালয় পরীক্ষা নেওয়ার আগ্রহী দেশব্যাপী তা নিয়ে ইতিমধ্যেই তা নিয়ে চর্চা শুরু হয়েছে। যদিও বিভিন্ন রাজ্যের বিশ্ববিদ্যালয়গুলির তরফে সম্প্রতি ইউজিসির পরীক্ষা নিয়ে জারি করা গাইডলাইনের বিরোধিতা করে জানানো হয়েছে। এ রাজ্যের তরফেও ইউজিসি ও কেন্দ্রীয় মানবসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রীকে ইতিমধ্যেই চিঠি দিয়ে জানানো হয়েছে যে করোনা আবহে ইউজিসির গাইডলাইন মেনে পরীক্ষা করা সম্ভব নয়। শুধু তাই নয় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে ইউজিসি গাইডলাইন নিয়েও কড়া ভাষায় চিঠি লিখেছেন। ইউজিসির গাইডলাইন পুনর্বিবেচনা করার আর্জি মুখ্যমন্ত্রী চিঠি লিখে প্রধানমন্ত্রীকে জানিয়েছেন।

অন্যদিকে রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় ও উচ্চ শিক্ষা সচিব সম্প্রতি রাজ্যপালের সঙ্গে সাক্ষাৎ করে ইউজিসির গাইডলাইন মেনে এরাজ্যে করো না আবহে পরীক্ষা নেওয়া সম্ভব নয় সে বিষয়েও রাজ্যপালকে প্রয়োজনীয় উদ্যোগ নেওয়ার আবেদন রাখেন। যদিও বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়গুলির পরীক্ষার বিরোধিতা করা হলেও আবার অনেক বিশ্ববিদ্যালয় পরীক্ষা নেওয়ার পক্ষে মত দিয়েছে। বলতো ইউজিসির জারি করা সম্প্রতি গাইডলাইন নিয়ে বর্তমানে ইউজিসির অবস্থান কি সে বিষয়ে এখনও পর্যন্ত স্পষ্ট নয়। পাশাপাশি পরীক্ষার ভবিষ্যৎ কি হবে সে বিষয়েও গাইডলাইন জারি করার পর আর ব্যাখ্যা দেওয়া হয়নি।

তারই মাঝে রাজ্যের বিশ্ববিদ্যালয় গুলির মধ্যে রাজ্য প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় চূড়ান্ত বর্ষের ছাত্রছাত্রীদের ফলাফল প্রকাশ করল। এখনও পর্যন্ত রাজ্যের অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয়গুলি চূড়ান্ত বর্ষের ছাত্রছাত্রীদের ফলাফল প্রকাশ করেনি। যদিও রাজ্যের উচ্চ শিক্ষা দফতরের তরফে ৩১শে জুলাই এর মধ্যে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর স্তরের চূড়ান্ত বর্ষের ছাত্রছাত্রীদের ফলাফল প্রকাশ করার অ্যাডভাইজারি দেওয়া হয়েছে। মূলত রাজ্যের তরফে এই ৮০-২০ ফর্মুলা দেওয়া হলেও রাজ্য প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় অবশ্য আগে পরীক্ষাগুলি হয়ে যাবার বদলে চূড়ান্ত বর্ষের ছাত্রছাত্রীদের যে ধারাবাহিক মূল্যায়নগুলি হয়েছে তার মধ্য থেকেই সব থেকে বেশি নম্বর এবং অ্যাসেসমেন্ট ফর্ম এই দুটির সাহায্যেই চূড়ান্ত বর্ষের ছাত্রছাত্রীদের ফলাফল প্রকাশ করেছে। যদিও বিশ্ববিদ্যালয় তরফেই জানানো হয়েছে যদি ছাত্র-ছাত্রীদের ফলাফল নিয়ে কোনো অসন্তোষ থাকে তাহলে সাতদিনের মধ্যে বিশ্ববিদ্যালয়কে তা জানাতে পারবেন ছাত্রছাত্রীরা।

Somraj Bandopadhyay

Published by: Elina Datta
First published: July 20, 2020, 10:42 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर