corona virus btn
corona virus btn
Loading

রোগী পিছু সংক্রমণে শীর্ষে গুজরাত, দাবি আইআইটি দিল্লির সমীক্ষায়

রোগী পিছু সংক্রমণে শীর্ষে গুজরাত, দাবি আইআইটি দিল্লির সমীক্ষায়
প্রতীকী চিত্র৷

ওই পোর্টালের তথ্য অনুযায়ী, বর্তমানে জাতীয় স্তরে গড়ে একজন আক্রান্তের থেকে ১.৮ জন রোগীর মধ্যে সংক্রমণ ছড়াচ্ছে৷

  • Share this:

#দিল্লি: একজন আক্রান্তের থেকে কতজনের মধ্যে ছড়াচ্ছে করোনা সংক্রমণ? আইআইটি দিল্লির তৈরি পোর্টাল Pracriti-র তথ্য অনুযায়ী সেই নিরিখে দেশের মধ্যে সবথেকে খারাপ অবস্থা গুজরাতের৷ আর তার পরেই রয়েছে পশ্চিমবঙ্গের নাম৷ এমনকী, যে রাজ্যে করোনা সংক্রমণ সবথেকে খারাপ আকার নিয়েছে, সেই মহারাষ্ট্র, মধ্যপ্রদেশের থেকেও একজন আক্রান্তের থেকে বেশি সংখ্যক রোগীর মধ্য গুজরাত ও পশ্চিমবঙ্গে সংক্রমণ ছড়াচ্ছে বলে দাবি করা হয়েছে৷

করোনা নিয়ে গোটা দেশের বিভিন্ন প্রান্তের খুঁটিনাটি তথ্য নিয়ে একটি পোর্টাল তৈরি করেছে আইআইটি দিল্লির দুই অধ্যাপক এবং পড়ুয়ারা৷ একজন রোগী কতজনের মধ্যে সংক্রমণ ছড়াচ্ছেন, তাঁকে সাংকেতিক ভাবে বলা হচ্ছে Ro (Rate of transmission)৷ শনিবার রাতে ওই পোর্টালে দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, গুজরাতে একজন আক্রান্ত ৩.৩ জন মানুষের মধ্যে সংক্রমণ ছড়িয়ে দিচ্ছেন৷ সেখানে পশ্চিমবঙ্গে একজন আক্রান্তের থেকে সংক্রমণ ছড়াচ্ছে ২.৩১ জন মানুষের মধ্যে৷ এই নিরিখে গুজরাত এবং পশ্চিমবঙ্গের পরেই রয়েছে মধ্যপ্রদেশ (২.২৫), উত্তর প্রদেশ ও মহারাষ্ট্র (২.২০), রাজস্থান (১.৯৭) এবং ঝাড়খণ্ড (১.৯৫)৷ তবে গুজরাতে বা মধ্যপ্রদেশের মতো রাজ্যের ক্ষেত্রে জেলাভিত্তিক আক্রান্ত এবং সংক্রমণের হার নিয়ে তথ্য থাকলেও পশ্চিমবঙ্গের প্রায় কোনও জেলার করোনা আক্রান্ত এবং সংক্রমণের হার নিয়ে এই পোর্টালে বিস্তারিত তথ্য নেই৷

দেশের ১৯টি রাজ্য এবং ১০০টি জেলার সংক্রমণ সংক্রান্ত তথ্য এই পোর্টালে পাওয়া যাচ্ছে৷ দাবি করা হচ্ছে, দেশের মোট করোনা আক্রান্তের ষাট শতাংশই এই জেলা এবং রাজ্যগুলির বাসিন্দা৷ ওই পোর্টালের তথ্য অনুযায়ী, বর্তমানে জাতীয় স্তরে গড়ে একজন আক্রান্তের থেকে ১.৮ জন রোগীর মধ্যে সংক্রমণ ছড়াচ্ছে৷ বেছে নেওয়া ১০০টি জেলার মধ্যে ২৮টি এমন জেলা রয়েছে, যেখানে সংক্রমণের হার জাতীয় গড় (১.৮)-এর থেকে বেশি৷

এই ২৮টি জেলা আবার ছড়িয়ে রয়েছে ৯টি রাজ্যের মধ্যে৷ তার মধ্যে রাজস্থানে (৫চি), উত্তরপ্রদেশ, মধ্যপ্রদেশ এবং গুজরাতে (৪টি করে), তামিলনাড়ু ও মহারাষ্ট্রে (৩টি করে), তেলেঙ্গানা ও কর্ণাটকে (২টি করে) এবং পঞ্জাবে একটি জেলা রয়েছে৷ পোর্টালে যাঁরা তথ্য সংগ্রহ করেছেন, অনেক জেলাই রয়েছে যেখানে বাকি রাজ্যের বাকি অংশে সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে থাকলেও কোনও একটি জেলায় সংক্রমণের হার তুলনায় অনেক বেশি৷ আবার যে জেলাগুলিতে সংক্রমণের হার অস্বাভাবিক হারে বেশি এবং কোনও নির্দিষ্ট RO সংখ্যা নির্ণয় করা সম্ভব হচ্ছে না, সেগুলিকে এই সমীক্ষার বাইরে রাখা হয়েছে৷

 
First published: April 25, 2020, 11:27 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर