কোভিডের কারণে স্বাদ আর গন্ধ না পাওয়া আসলে একটা আশীর্বাদ! কারণটা জেনে নিন

Representational Image

সারা বিশ্বজুড়ে দেখা যাচ্ছে যাঁদের অসম্ভব শ্বাসকষ্ট হয়েছে বা যাঁদের আইসিইউতে রাখতে হয়েছে, তাঁদের মধ্যে কিন্তু এরকম স্বাদ বা গন্ধ না পাওয়ার কোনও পূর্ব লক্ষণ দেখা যায়নি।

  • Share this:

#কলকাতা: কোভিড আক্রান্ত হলে অনেকেই খাবারের স্বাদ বা গন্ধ পান না। ভাইরাস সংক্রমণ শুরু হলেই এই লক্ষণ দেখা যায়। অনেকেই স্বাদ ও গন্ধ না পাওয়ার সঙ্গে ডায়রিয়া জাতীয় অসুখে ভোগেন। আশার কথা হচ্ছে এই যে এরকম উপসর্গ দেখা দেওয়া ভাল। শুনে অবাক লাগলেও, চিকিৎসক মহল এটাই বলছেন যে রোগীর যদি এই জাতীয় উপসর্গ দেখা যায় তাহলে ১৪ দিনে ভাইরাসের যে চক্র সেখানে শ্বাসকষ্ট জনিত কোনও সমস্যা হওয়ার আশঙ্কা নেই।

করোনার আক্রমণ শুরু হওয়ার পর প্রায় ১০ মাস কাটতে চলল। সারা বিশ্বজুড়ে দেখা যাচ্ছে যাঁদের অসম্ভব শ্বাসকষ্ট হয়েছে বা যাঁদের আইসিইউতে রাখতে হয়েছে, তাঁদের মধ্যে কিন্তু এরকম স্বাদ বা গন্ধ না পাওয়ার কোনও পূর্ব লক্ষণ দেখা যায়নি।

গুরুগ্রামের ডিপার্টমেন্ট অব ইন্টারনাল মেডিসিনের সিনিয়র ডিরেক্টর ডাঃ সুশীলা কাটারিয়া বলেছেন যে যদি কারও স্বাদ বা গন্ধ না পাওয়ার উপসর্গ দেখা যায় তাহলে সেটা হেলাফেলা না করতে। বরং এরকম হলে কোভিডের পরীক্ষা করিয়ে নিতে হবে এবং খুব হাল্কা উপসর্গ হলেও নিজেকে অন্যদের থেকে দূরে সরিয়ে রাখতে হবে। এইভাবে অন্তত কিছুটা হলেও সংক্রমণ রোধ করা যাবে বলে অনুমান করছেন ডাঃ কাটারিয়া।

ডক্টর কাটারিয়া সমর্থন করেছেন ডক্টর অরুন লখনপালের বক্তব্যকেও। ডক্টর লখনপাল নয়ডার একটি হাসপাতালের একজন চেস্ট ফিজিশিয়ান। তিনি বলেছেন যে কোভিড আক্রান্ত হলেই বেশিরভাগ ক্ষেত্রে স্বাদ ও গন্ধ না পাওয়ার প্রবণতা দেখা দিচ্ছে। আর এটা মোটেই আশঙ্কার নয়, উল্টে এটা খুব ভাল লক্ষণ। ডক্টর লখনপাল দেখেছেন মোটামুটি ৪০% রোগীদের এই রকম উপসর্গ দেখা যায় আর এঁরা বেশ তাড়াতাড়ি সুস্থ হয়ে বাড়িও ফিরে যান।

সবচেয়ে স্বস্তির কারণ হল যাঁদের এই উপসর্গ দেখা যায় তাঁদের বিশেষ কোনও শারীরিক কষ্ট হয়না বা এঁদের কৃত্রিম অক্সিজেন সরবরাহেরও প্রয়োজন পড়ে না। তবে করোনা ভাইরাস দ্বারা কেউ আক্রান্ত হলে এই খাবারের স্বাদ বা গন্ধ কেউ কেন পায় না বা কী কারণে পেটের অসুখ দেখা দেয়, সেই বিষয়ে চিকিৎসক ও বিজ্ঞানীরা এখনও নিশ্চিত হতে পারেননি।

Published by:Siddhartha Sarkar
First published: