৭০ বছরের বিবাহিত জীবনে ইতি টানল করোনা! হাসপাতালে স্বামী-স্ত্রী মারা গেলেন হাত ধরাধরি করে

প্রতীকী চিত্র ।

একইসঙ্গে করোনায় আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন তাঁরা । ৭০ বছরের সংসার ছেড়ে হাতে হাত ধরেই মারা গেলেন বৃদ্ধ দম্পতি ।

  • Share this:

    #ওহিও: এমন স্বপ্নের ভালবাসা বুঝি রূপকথার গল্পের পাতাতেই শুধু দেখা যায় । সেই রাজকুমার আর রাজকন্যের প্রেমগাথা পড়তে পড়তে আমরাও কখন যেন ডুবে যাই অতল কল্পনার জগতে । কিন্তু সেই রোম্যান্টিক কাহিনী যখন আমাদেরই চোখের সামনে এসে দাঁড়ায় তখন তা বাস্তব বলে বিশ্বাস করতে কষ্ট হয় । কিন্তু মন ভরে ওঠে কানায় কানায় ।

    ৭০ বছর একসঙ্গে ঘর করার পর হাসপাতালের শয্যায় শেষ হল এমনই এক মধুর সম্পর্ক । ওহিও-র কলম্বাসের দুই বৃদ্ধ দম্পতি হাসপাতালের মারা গেলেন ঠিক এক মিনিটের ব্যবধানে । জীবনের শেষক্ষণ পর্যন্ত একে অপরের হাত শক্ত করে ধরেছিলেন তাঁরা ।

    গত ডিসেম্বরে ৭০ বছরের বিবাহবার্ষিকী পালন করেছিলেন । তারপরেই একসঙ্গে করোনায় আক্রান্ত হন ডিক আর শার্লি । এর কিছুদিন পরেই ছিল ডিকের জন্মদিন । ৯০ বছরে পা রেখেছিলেন ডিক, আর শার্লির বয়স ৮৭ বছর । দম্পতির তিন ছেলেমেয়ে ডেবি, ভিকি আর কেলি জুম কল করেছিলেন বাবা-মা’কে । বাবা’কে জন্মদিনের শুভেচ্ছাও জানিয়েছিলেন তাঁরা । এরপরেই ছেলেমেয়েদের তাঁরা বলেন, সম্ভবত তাঁদের শরীর ধীরে ধীরে ঠান্ডা হয়ে যাচ্ছে ।

    ৮ জানুয়ারি ডিক ও শার্লি করোনায় আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন । প্রথমে দু’জনকে আলাদা আলাদা ঘরে রাখা হয়েছিল । কিন্তু ডিকের শারীরিক অবস্থার অবনতি হতেই ছেলেমেয়েরা তাঁদের বাবা-মা’কে একই ঘরের পাশাপাশি বেডে স্থানান্তরিত করার আর্জি জানান হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের কাছে । বৃদ্ধ দম্পতির সেই অনুরোধ উপেক্ষা করতে পারেননি চিকিৎসকরাও । তাঁদের একই ঘরে নিয়ে আসা হয় ।

    ‘হোয়েন দ্য রিভার মিটস সি’ গানটি শুনতে চান ডিক । তাঁদের ঘরে খুব আস্তে বাজিয়ে দেওয়া হয় সেই গান । একে অপরের হাত ধরে গান শুনতে শুনতেই চলে যান শার্লি । নার্স ডিক’কে বলেন, ‘‘শার্লি আপনার জন্য অপেক্ষা করছে ।’’ এক মিনিটের মধ্যেই শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন ডিকও ।

    পাঁচ সন্তান, ১৩ নাতনিতে ভরা সুখী পরিবার রেখে অন্তত শান্তির পথে যাত্রা করেন ৭০ বছর একসঙ্গে কাটানো ডিক আর শার্লি ।

    Published by:Simli Raha
    First published: