• Home
  • »
  • News
  • »
  • coronavirus-latest-news
  • »
  • ৯ ঘন্টা মৃতদেহ আগলে ফুটপাথে বসে থাকল স্ত্রী ও মেয়ে! ফিরেও দেখল না মহানগর

৯ ঘন্টা মৃতদেহ আগলে ফুটপাথে বসে থাকল স্ত্রী ও মেয়ে! ফিরেও দেখল না মহানগর

 ডাক্তার দেখানোর মতো পয়সাটুকুও নেই ।গঙ্গার স্ত্রী’র অভিযোগ কেউ এগিয়ে আসেননি তাঁদের পাশে দাঁড়াতে। সকাল থেকে প্রচুর পথ চলতি মানুষ ফুটপাথ দিয়ে হেঁটে গিয়েছেন, কেউ ফিরেও তাকাননি।

ডাক্তার দেখানোর মতো পয়সাটুকুও নেই ।গঙ্গার স্ত্রী’র অভিযোগ কেউ এগিয়ে আসেননি তাঁদের পাশে দাঁড়াতে। সকাল থেকে প্রচুর পথ চলতি মানুষ ফুটপাথ দিয়ে হেঁটে গিয়েছেন, কেউ ফিরেও তাকাননি।

ডাক্তার দেখানোর মতো পয়সাটুকুও নেই ।গঙ্গার স্ত্রী’র অভিযোগ কেউ এগিয়ে আসেননি তাঁদের পাশে দাঁড়াতে। সকাল থেকে প্রচুর পথ চলতি মানুষ ফুটপাথ দিয়ে হেঁটে গিয়েছেন, কেউ ফিরেও তাকাননি।

  • Share this:

SHANKU SANTRA

#কলকাতা: সকাল দশটা। রাসবিহারীর মোড়ে, হাজরার দিকে যাওয়ার বাসস্ট্যান্ডে একটি মৃতদেহ পড়ে ছিল। সেই মৃতদেহটি আগলে এক মহিলা এবং তাঁর মেয়ে বসেছিলেন। এ দিকে ও দিকে কানাকানি হতে হতে খবর হতে বহুক্ষণ লেগে গেল। পুলিশের কাছে খবর ছিল। জানা গেল, ৯ ঘণ্টা মৃতদেহ আগলে নিয়ে খোলা রাস্তায় বসে রয়েছেন ওই মহিলা এবং তাঁর মেয়ে। সূত্রের খবর, মৃতদেহটি গঙ্গা দাসের। গঙ্গা ওখানে জুতো পালিশের কাজ করতেন দীর্ঘদিন। বাসস্থান বলতে, ওই ফুটপাত। সঙ্গে পঙ্গু স্ত্রী ও মেয়ে থাকতেন। গত কয়েকদিন ধরে গঙ্গা বেশ অসুস্থ ছিলেন।  গতকাল অসুস্থতা অনেকটা বেড়ে যায়। ডাক্তার দেখানোর মতো পয়সাটুকুও নেই ।গঙ্গার স্ত্রী’র অভিযোগ কেউ এগিয়ে আসেননি তাঁদের পাশে দাঁড়াতে। সকাল থেকে প্রচুর পথ চলতি মানুষ ফুটপাথ দিয়ে হেঁটে গিয়েছেন, কেউ ফিরেও তাকাননি।

কলকাতার রাসবিহারী মোড়ে প্রতিটি কোণে পুলিশ মোতায়েন থাকে। কিন্তু পুলিশের তরফেও কোনও সাহায্য পাওয়া যায়নি। গঙ্গার পঙ্গু স্ত্রী রেণুর বক্তব্য, গতকাল রাত একটার সময় হৃদরোগে মারা গিয়েছেন তাঁর স্বামী। গঙ্গার কি করোনা হয়েছিল? এ প্রশ্নের সাফ উত্তর প্রত্যেকের কাছে। পরীক্ষা করানো হয়নি। যে ধরনের সাবধানতা অবলম্বন করার কথা ছিল, তা কিছুই করেনি।

এরপর বেলা সাড়ে ১১ টা নাগাদ কালীঘাট থানার পুলিশ শব দেহবাহী ভ্যান নিয়ে আসে। গঙ্গা দাসের দেহ যখন তুলে নিয়ে যায়। তবে স্থানীয়রা বলছেন, করোনা প্রটোকল মেনে শব নিয়ে যাওয়া হয়নি। এই গাফিলতির দায়িত্ব কার? সে উত্তর অবশ্য কারও কাছে নেই ।

Published by:Simli Raha
First published: