বডিগার্ড লাইনে ডাক্তার! পুলিশদের চলল শারীরিক পরীক্ষা

বডিগার্ড লাইনে ডাক্তার! পুলিশদের চলল শারীরিক পরীক্ষা

অনেক পুলিশ কর্মীও আবার থাকেন বডিগার্ড লাইনের বিভিন্ন ব্যারাকে।

  • Share this:

#কলকাতা: সচেতনতার কাজ করছে পুলিশ।  পুলিশ বিভিন্ন সময় সাধারণ মানুষকে বোঝানোর চেষ্টা করছে। সচেতন করার জন্য হ্যান্ড বিল, ব্যানার,  ফেস্টুন দিয়েছে শহরের বিভিন্ন জায়গায়। মঙ্গলবার কলকাতা পুলিশের হেড কোয়ার্টারে স্যানিটাইজার ও থার্মাল স্ক্যানারের মাধ্যমে পরীক্ষা করতে দেখা যায়। তবে কলকাতা পুলিশের বিভিন্ন কাজে যেতে হয় আলিপুরের বডিগার্ড লাইনে।

অনেক পুলিশ কর্মীও আবার থাকেন বডিগার্ড লাইনের বিভিন্ন ব্যারাকে। এবার  বুধবারই সেই জায়গায় ঘুরে দেখলেন অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার ডি পি সিং। বিভিন্ন ঘরে গিয়ে শুরু দেখা নয় পরিস্কার আছে কিনা সেটাও বুঝে নেন। বুধবার সেই সমস্ত জায়গায় ঘুরে দেখার সময় স্যানিটাইজিং করতেও দেখা গেল। সেই স্যানিটাইজিং করার ফলে অনেকেই মনে করছেন কিছুটা হলেও করোনা আতঙ্ক কমল। যদিও একবার নয় বারবার এই স্যানিটাইজিং করার কাজ করতে হয় তা বিলক্ষণ জানেন আলিপুর বডিগার্ড লাইনের পুলিশ কর্মীরা।

তবে শুধুই কি পরিস্কার?  না পরিস্কার করার পাশাপাশি নজর দেওয়া হল পুলিশ কর্মীদের উপরে। কারন আলিপুর বডিগার্ড লাইনের পুলিশ ব্যারাকের পাশাপাশি কোয়ার্টারে অনেক পুলিশ কর্মীর পরিবারেরও বাস। তাদের শরীরের দিকে শুরু নজর নয়, তাদের শরীর কেমন আছে তাও দেখে নেওয়া হল। মূলত একজন চিকিৎসকের মাধ্যমে দেখে নেওয়া হল গায়ের তাপমাত্রা ও শরীরের সমস্যা। স্যানিটাইজিং করার জন্য স্যানিটাইজার ব্যাবহারের কথাও বলা হল। এদিন অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার ডি পি সিং বলেন ট্রাফিক পুলিশের কর্মীদের হ্যান্ড স্যানিটাইজার ও মুখের মাস্ক দেওয়া হয়। তবে গুজব নিয়ে এবার আরও কড়া হল লালবাজার। গুজব না ছড়ানোর জন্য আইনানুসারে ব্যবস্থা নেওয়া হতে পারে টুইটও করেন পুলিশ কমিশনার।

Susovan Bhattacharya

First published: March 18, 2020, 10:15 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर