• Home
  • »
  • News
  • »
  • coronavirus-latest-news
  • »
  • করোনার ‘হটস্পট’ দেশের মোট ১৭০ জেলা, হটস্পটের তালিকায় পশ্চিমবঙ্গের ক’টি ? জেনে নিন

করোনার ‘হটস্পট’ দেশের মোট ১৭০ জেলা, হটস্পটের তালিকায় পশ্চিমবঙ্গের ক’টি ? জেনে নিন

এমনিতেই করোনায় দিশেহারা অবস্থা মু্ম্বইয়ের৷ মহারাষ্ট্রের সিংহভাগ করোনা আক্রান্তই মুম্বই শহরের বাসিন্দা৷ কীভাবে করোনা সংক্রমণ আটকানো যায়, সেই পথ খুঁজে পাচ্ছে না মহারাষ্ট্র সরকার এবং বৃহন মুম্বই পুরসভা৷

এমনিতেই করোনায় দিশেহারা অবস্থা মু্ম্বইয়ের৷ মহারাষ্ট্রের সিংহভাগ করোনা আক্রান্তই মুম্বই শহরের বাসিন্দা৷ কীভাবে করোনা সংক্রমণ আটকানো যায়, সেই পথ খুঁজে পাচ্ছে না মহারাষ্ট্র সরকার এবং বৃহন মুম্বই পুরসভা৷

বেশি সংক্রমণের তালিকায় রাজ্যের চার জেলার মধ্যে রয়েছে কলকাতা, হাওড়া, পূর্ব মেদিনীপুর এবং উত্তর ২৪ পরগনা ৷

  • Share this:

    #কলকাতা: সারা দেশে ক্রমেই বেড়ে চলেছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। মৃতের সংখ্যাও বাড়ছে সমানতালে। এই পরিস্থিতিতে লকডাউনের মেয়াদ ৩ মে পর্যন্ত বাড়িয়ে দিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। এই দিনগুলিতে নাগাড়ে টেস্ট করার কথাও বলছেন বিশেষজ্ঞরা। সেই অনুযায়ী পশ্চিমবঙ্গের হটস্পটগুলিতে বাড়ি-বাড়ি সার্ভে করার কাজ শুরু করছে রাজ্য স্বাস্থ্য দফতর। বুধবার দেশের ১৭০টি করোনার ‘হটস্পট’ জেলা চিহ্নিত করল কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রক ৷ সেই তালিকায় রয়েছে রাজ্যের ১১টি জেলাও ৷ বেশি সংক্রমণের তালিকায় কলকাতা-সহ রাজ্যের চার জেলা ৷

    বেশি সংক্রমণের তালিকায় রাজ্যের চার জেলার মধ্যে রয়েছে কলকাতা, হাওড়া, পূর্ব মেদিনীপুর এবং উত্তর ২৪ পরগনা ৷ রাজ্যের আরও ৭ জেলাকে গণ্ডিবদ্ধ সংক্রমণের তালিকায় রাখা হয়েছে ৷ দক্ষিণ ২৪ পরগনা, হুগলি, নদিয়া ও জলপাইগুড়ি জেলাতে গণ্ডিবদ্ধ সংক্রমণ ৷ পাশাপাশি পশ্চিম বর্ধমান,দার্জিলিং, পশ্চিম মেদিনীরপুর-কেও গণ্ডিবদ্ধ সংক্রমণের তালিকায় রাখা হয়েছে ৷

    ভারতে করোনায় মৃত বেড়ে ৩৭৭। আক্রান্ত ১১ হাজারের বেশি। গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু হয়েছে আরও ৩৮ জনের, নতুন করে আক্রান্ত ১০৭৬ জন। করোনা সংক্রমণ-মুক্ত ১ হাজার ৩০৬। করোনার হটস্পট হিসেবে তাই চিহ্নিত ১৭০ জেলা। জেলা প্রশাসনের সঙ্গে আলোচনা করে হটস্পট সিল করা হচ্ছে। সিল করা এলাকায় ঢোকা-বেরোনোয় নিষেধাজ্ঞা জারি করা হচ্ছে। স্বাস্থ্যকর্মীরা বাড়ি বাড়ি গিয়ে বাসিন্দাদের স্বাস্থ্য সম্পর্কে তথ্য নেবেন। জেলাগুলিকে করোনা হাসপাতাল তৈরির কথা বলা হয়েছে। স্বাস্থ্যকর্মীদের সুরক্ষিত থাকতে ট্রেনিং দেওয়ার কথাও এদিন বলা হয়েছে।

    Published by:Siddhartha Sarkar
    First published: