corona virus btn
corona virus btn
Loading

আলু পেঁয়াজই ভরসা, বাজারে দেখা নেই সবুজ শাক সবজির !

আলু পেঁয়াজই ভরসা, বাজারে দেখা নেই সবুজ শাক সবজির !

কয়েক দিনের সবজি বাজার সেড়ে নেওয়ার পরিকল্পনা নিয়ে বাজারে গিয়েছিলেন অনেকেই। কিন্তু সবুজ শাক সবজি দেখা না পেয়ে হতাশ বেশিরাই।

  • Share this:

#বর্ধমান: সবজি বাজারে চড়া দামের আলু পেঁয়াজই ভরসা, অন্য শাক সবজির দেখা নেই। বর্ধমানের সব বাজারেই এক চিত্র। বিকেল থেকেই লক ডাউন। কয়েক দিনের সবজি বাজার সেড়ে নেওয়ার পরিকল্পনা নিয়ে বাজারে গিয়েছিলেন অনেকেই। কিন্তু সবুজ শাক সবজি দেখা না পেয়ে হতাশ অনেকেই। সামান্য যেটুকু শাক সবজি রয়েছে তার দাম আকাশ ছোঁয়া। তা কেনা অনেকেরই সাধ্যের বাইরে। তাই আলু পেঁয়াজ ঝোলায় ভরে বাড়ি ফিরেছেন অনেকেই।

বর্ধমানের স্টেশন বাজার, নীলপুর বাজার, রানিগঞ্জ বাজার, তেঁতুল তলা বাজার, কালনা গেট বা পুলিশ লাইন বাজার সর্বত্রই সকাল থেকে ক্রেতাদের উপচে পড়া ভিড়। শাক সবজি কিনে বাড়ি ফেরাই পরিকল্পনা ছিল অনেকের। কিন্তু এদিন বাজারে আসেন নি বেশিরভাগ বিক্রেতাই। তার জেরে কুড়ি টাকার বেগুনের দর উঠল ৮০ টাকা। এতদিন বাঁধা কপি পাঁচ টাকা পিস কেনারও লোক ছিল না। সেই বাঁধাকপি এদিন বিক্রি হল ত্রিশ টাকা কেজি দরে। পঞ্চাশ টাকা কেজির এঁচোড় বিক্রি হল নব্বই টাকায়। উচ্ছে, পটল, লাউ, কুমড়ো, ক্যাপসিকাম, টমেটো, ঝিঙে, সীম, মুলো, ফুলকপি, পালং শাক, আকাশ ছোঁয়া দর সবেরই।

বাজারের বিক্রেতারা বলছেন, বাস ট্রেন চলছে না। ফলে সবজির আমদানি নেই। রবিবার জনতা কারফিউয়ের জেরে সব বন্ধ ছিল। কৃষকরা সবজি তুলে বাজারে পাঠানোর শ্রমিক গাড়ি পায়নি। বাস ট্রেন বন্ধ থাকায় আসেননি অনেক বিক্রেতাও। তাই সামান্য যেটুকু সবজি ছিল তা কিনতে ক্রেতাদের মধ্যে কাড়াকাড়ি পড়ে যায়। সজনে ডাঁটা বিক্রি হয়েছে ৪০০ টাকা কেজি দরে। পেঁপে, কাঁচাকলা, উচ্ছে করলা সবেরই দাম আগুন।

বিক্রেতারা বলছেন, বাস ট্রেন ট্রাক চলবে না।  আগামী কয়েক দিন এমনই অবস্থা চলবে বলেই মনে হচ্ছে। বাসিন্দারা বলছেন, সবুজ শাক সবজি ডুমুরের ফুল হয়ে দাঁড়িয়েছে। কোথাও কোথাও তার দেখা মিললেও দাম শুনলেই গায়ে ছেঁকা লাগছে। আপাতত আলু পেঁয়াজ আদা রসুনেই ইতি টানতে হচ্ছে। সেসবের দামও ক্রমশ ঊর্ধ্বমুখী।

Saradindu Ghosh

First published: March 23, 2020, 1:59 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर