Coronavirus Vaccine: করোনাজয়ীদের সুস্থ হওয়ার ৬ মাস পর থেকে টিকা নেওয়ার সুপারিশ কেন্দ্রীয় প্যানেলের

করোনাজয়ীদের ৬ মাস পর থেকে টিকা নেওয়ার সুপারিশ কেন্দ্রীয় প্যানেলের

আপনি করোনা আক্রান্ত (Coronavirus Positive)? কিংবা করোনা টিকার (Corona Vaccine) প্রথম ডোজ নেওয়ার পর ভাইরাসে সংক্রামিত হয়েছেন? তাহলে কেন্দ্রীয় প্যানেলের (Government Panel) এই নতুন উপদেশ-নির্দেশিকা আপনার জেনে নেওয়া প্রয়োজন।

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: আপনি করোনা আক্রান্ত (Coronavirus Positive)? কিংবা করোনা টিকার (Corona Vaccine) প্রথম ডোজ নেওয়ার পর ভাইরাসে সংক্রামিত হয়েছেন? তাহলে কেন্দ্রীয় প্যানেলের (Government Panel) এই নতুন উপদেশ-নির্দেশিকা আপনার জেনে নেওয়া প্রয়োজন। কেন্দ্রীয় প্যানেলের নতুন সুপারিশ, যাঁরা করোনাভাইরাসে (Covid-19) আক্রান্ত হয়ে সুস্থ হয়ে উঠছেন, তাঁরা যেন সুস্থ হওয়ার ৬ মাস পর থেকে করোনার টিকা (Coronavirus Vaccine)  নেওয়া শুরু করেন। কেন্দ্রের উপদেষ্টা প্যানেল, দ্য ন্যাশনাল টেকনিকাল অ্যাডভাইজরি গ্রুপ অন ইমিউনিজেশন (NTAGI)-এর তরফে এমনই সুপারিশ করা হয়েছে বৃহস্পতিবার।

    এরই সঙ্গে এই উপদেষ্টা প্যানেলের সুপারিশ, কোভিশিল্ড করোনা টিকা নেওয়ার ক্ষেত্রেও দু'টি ডোজের মধ্যেকার সময়সীমা বাড়ানো হোক। সেখানে বলা হয়েছে, প্রথম কোভিশিল্ডের টিকা থেকে দ্বিতীয় ডোজের ক্ষেত্রে অন্তত ১২ থেকে ১৬ সপ্তাহের ফারাক রাখা হোক। দেশজুড়ে ভ্যাকসিনের বিশালাকার আকাল সামনে আসার পরই কেন্দ্রীয় প্যানেলের এমন সুপারিশ সামনে আসায় স্বাভাবিক ভাবেই সাধারণ মানুষের মনে প্রশ্ন ওঠা শুরু করেছে। তবে কি ভ্যাকসিন নেই বলেই এমন সিদ্ধান্ত সরকারের?

    দ্য ন্যাশনাল টেকনিকাল অ্যাডভাইজরি গ্রুপ অন ইমিউনিজেশন (NTAGI)-এর এই সুপারিশ এবার পাঠানো হবে ন্যাশনাল এক্সপার্ট গ্রুপ অন ভ্যাকসিন অ্যাডমিনিস্ট্রেশন ফর কোভিড ১৯-এর (NEGVAC) আধিকারিকদের কাছে। সেখান থেকে অনুমতি মিললে তবেই এটি দেশজুড়ে নির্দেশিকা হিসেবে ঘোষণা করা হবে। মার্চের শুরুর দিকেই কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে সেরাম ইনস্টিটিউট অফ ইন্ডিয়া (SII)-এর করোনাটিকা নেওয়ার ক্ষেত্রে দুটি ডোজের মাঝে ২৮ থেকে ৬-৮ সপ্তাহের সময়সীমা রাখতে বলা হয়েছিল। যদিও ভারত বায়োটেকের কোভ্যাক্সিনের ক্ষেত্রে এমন কোনও নির্দেশিকা দেওয়া হয়নি।

    কেন্দ্রীয় এই প্যানেলের সুপারিশে বৃহস্পতিবার অন্তঃসত্ত্বা মহিলাদের ক্ষেত্রেও প্রস্তাব দিয়েছে ভ্যাকসিন নেওয়ার। দুগ্ধপ্রদানকারী বা অন্তঃসত্ত্বা মহিলারা করোনার দুই টিকার যে কোনও একটি নিতেই পারেন বলে জানানো হয়েছে সেই প্রস্তাবে। তবে সন্তান জন্ম দেওয়ার পর সেই টিকা নিতে বলা হয়েছে। সম্প্রতি অবস্ট্র্যাকটিকস অ্যান্ড গাইনোকলজির একটি প্রকাশিত জার্নালে টিকার ফলে ভ্রুণের কোনও ক্ষতি না হওয়ার কথাই বলা হয়েছে। যদিও এই পরীক্ষার ক্ষেত্রে মডার্না ও ফাইজারের টিকা নেওয়া মহিলাদের ব্যবহার করা হয়েছে। ভারতীয় মহিলাদের মধ্যে এই পরীক্ষা এখনও করা হয়নি। তবে বিশেষজ্ঞদের মতে, অন্তঃসত্ত্বাদের টিকার ক্ষেত্রে কোনও সমস্যা নেই।

    Published by:Raima Chakraborty
    First published: