corona virus btn
corona virus btn
Loading

টেলি কনফারেন্সের মাধ্যমে করোনার মৃদু উপসর্গ যুক্ত রোগীদের বিনামূল্যে চিকিৎসা

টেলি কনফারেন্সের মাধ্যমে করোনার মৃদু উপসর্গ যুক্ত রোগীদের বিনামূল্যে চিকিৎসা
(‌প্রতীকী ছবি)

কোভিড আক্রান্ত রোগীরা নির্দিষ্ট সময়ে ফোনে এই চিকিৎসক দের সঙ্গে কথা বলতে পারবেন। পাবেন প্রয়োজনীয় চিকিৎসাজনিত পরামর্শ। রোগীদের এই টেলিপরামর্শ সম্পূর্ণ বিনামূল্যে দিচ্ছেন এই চিকিৎসকেরা।

  • Share this:

#রায়গঞ্জ: করোনা সংক্রমনের বাড়বাড়ন্তে বিনষ্ট জীবনের স্বাভাবিক ছন্দ। পশ্চিম্বঙ্গেও প্রতিদিন বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। বিশেষজ্ঞদের একাংশের মতে শুরু হয়ে গিয়েছে গোষ্ঠী সংক্রমন। বহু ক্ষেত্রে হোম আইসোলেশনে থেকেই চিকিৎসা চলছে কোভিড আক্রান্তদের। এবারে টেলি কনফারেন্সের মাধ্যমে মৃদু উপসর্গ যুক্ত বা হোম আইসোলেশনে থাকা রোগীদের বিনামূল্যে চিকিৎসা পরামর্শ দানে এগিয়ে এলেন রায়গঞ্জের চারজন বিশিষ্ট চিকিৎসক।

চিকিৎসকদের এই মানবিক উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন সাধারণ মানুষ। উল্লেখ্য উত্তর দিনাজপুর জেলার পাশাপাশি রায়গঞ্জ শহরের বিভিন্ন ওয়ার্ডে বাড়ছে কোভিড রোগীর সংখ্যা। আক্রান্তদের অনেকেই মৃদু উপসর্গ যুক্ত। স্বাস্থদপ্তরের নির্দেশে হোম আইসোলেশনে রয়েছেন তারা। হোম আইসোলেশনে থাকলেও অনেকেই বিভিন্ন সময়ে শারীরিক ও মানসিক সমস্যায় ভুগছেন। ইতিমধ্যেই শহরের অনেক চিকিৎসক করোনা সংক্রমনের কারনে চেম্বার বন্ধ করে দিয়েছেন। ভয়ে সাধারণ মানুষ  হাসপাতালে যেতে চাইছেন না। ফলে সমস্যা জটিল আকার ধারন করেছে। এই পরিস্থিতিতে হোম আইসোলেশনে থাকা কোভিড রোগীদের নিয়ে উদ্বেগে রয়েছেন পরিবারের সদস্যরা।

এবারে মানুষের এই সার্বিক সমস্যায় পাশে দাঁড়ানোর উদ্যোগ নিলেন রায়গঞ্জ শহরের চার বিশিষ্ট চিকিৎসক  জয়ন্ত ভট্টাচার্য, সুদেব সাহা, দেবব্রত রায় ও মীর রাশেদ আলী। কোভিড আক্রান্ত রোগীরা নির্দিষ্ট সময়ে ফোনে এই চিকিৎসক দের সঙ্গে কথা বলতে পারবেন।  পাবেন প্রয়োজনীয় চিকিৎসাজনিত পরামর্শ। রোগীদের এই টেলিপরামর্শ সম্পূর্ণ বিনামূল্যে দিচ্ছেন এই চিকিৎসকেরা।  ডাঃ সুদেব সাহা বলেন," করোনা আক্রান্তদের প্রায় আশি শতাংশ উপসর্গহীন বা মৃদু উপসর্গ যুক্ত। এরা হোম আইসোলেশনে থাকছেন।

এই রোগীদের কাউন্সেলিং,উপসর্গ বুঝে পরামর্শ দান,তাদের আতঙ্ক কাটানোর জন্যই কয়েকজন চিকিৎসক মিলে এই উদ্যোগ নিয়েছি। পাশাপাশি কোভিড আক্রান্তদের সঙ্গে যাতে মানবিক ব্যবহার করা হয় সেবিষয়ে ও সামাজিক সচেতনতা বাড়ানোর চেষ্টা চালাচ্ছি আমরা।চিকিৎসক জয়ন্ত ভট্টাচার্য জানিয়েছেন,সমাজকের বাঁচানোর তাগিদেই তাদের এই ভাবনা।মানুষ মৃত্যুর ভয়ে আতঙ্কিত হয়ে পড়েছেন।তাদের এই ঘোষণার পর রাজ্যের বিভিন্ন এলাকা থেকে থেকে মানুষ ফোন করে তাদের সমস্যার কথা জানাচ্ছেন।

Uttam Paul

Published by: Elina Datta
First published: August 2, 2020, 11:58 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर