৪টে বড় মুরগির দাম ১০০ টাকা! এখানে গেলেই জলের দরে পাবেন চিকেন

৪টে বড় মুরগির দাম ১০০ টাকা! এখানে গেলেই জলের দরে পাবেন চিকেন
  • Share this:

Saradindu Ghosh

#বর্ধমান: ১০০ টাকায় ১ টা নয়। ওই দামে মুরগি মিলছে চার চারটে। নেহাত ছোটও নয়। এক একটি মুরগির ওজন দেড় কেজি বা তার কাছাকাছি। গাড়িতে চাপিয়ে জলের দরে মুরগি বিক্রি হচ্ছে বর্ধমানে। পঁচিশ টাকায় মিলছে এক একটি মুরগি। বিক্রি তলানিতে গিয়ে ঠেকায় এখন নাম মাত্র দামে মুরগি বিক্রি করছেন অনেকেই। সস্তার মুরগি কিনছেনও অনেকেই।

 বিক্রেতা শানে আলম খান। ফার্মে মুরগি রাখার জায়গা নেই। বিক্রি প্রায় তলানিতে গিয়ে ঠেকায় উপায় না দেখে গাড়িতে মুরগি চাপিয়ে বর্ধমানের তেলিপুকুর, সদরঘাট, বাঁকুড়া মোড়ে ঘুরছেন তিনি।রাস্তার মোড়ে গাড়ি দাঁড় করিয়ে হাঁকছেন, তাজা মুরগি নিয়ে যান। একশো টাকায় চারটে। অনেকে সে ডাকে সাড়াও দিচ্ছেন। দেখে বাছাই করে সতেজ মুরগি ব্যাগে ভরছেন অনেকেই। তাদের দেখে মুরগি কিনতে এগিয়ে আসছেন অন্যরাও। ধীরে ধীরে মুরগির গাড়ি ফাঁকা হচ্ছে শানে আলম খানের।

এতো কমে দিচ্ছেন কি করে? উত্তরে শানে আলম খান বললেন, হিসেব করলে দেখা যাবে কুড়ি টাকা কেজি দরে মুরগির মাংস পাচ্ছেন ক্রেতারা।  আজ একশো টাকায় চারটে করে মুরগি দিচ্ছি। কাল হয়তো পাঁচটা করে দিতে হবে। যতদিন খামারে মুরগি থাকবে ততদিনই লোকসান বাড়বে। মুরগির খাবারের কেজি প্রতি দামই পঞ্চাশ টাকা। এরপর বিদ্যুতের খরচ আছে। শ্রমিকের মজুরি আছে। এখন তো মুরগির মাংস অনেকেই খাচ্ছেন না। যত দিন যাবে অবস্থা আরও খারাপ হবে বলেই মনে হচ্ছে। তাই আর লোকসান না বাড়িয়ে দ্রুত মুরগি ফাঁকা করতেই এই পদ্ধতি নিয়েছি।

এমনিতে শনি রবিবার বা ছুটির দিনে মুরগির মাংস ছাড়া দিন চলতো না বাঙালির। হোটেলে গিয়ে চিকেন বিরিয়ানি, চিকেন কষা, চিলি চিকেন, চিকেন তন্দুরি বা চিকেন টিক্কা কাবাব ছাড়া মন ভরতো না অনেকেরই। তাঁরাই এখন করোনা আতঙ্কে মুরগির মাংসের দিকে তাকাতেই চাইছেন না। মুরগি থেকে করোনা ছড়ায় এই গুজবে মুরগির মাংসের দাম কেজি প্রতি একশো আশি টাকা থেকে নব্বই টাকায় নেমে এসেছিল। শানে আলম খানের হাত ধরে এবার সেই মুরগির মাংসের দাম কেজি প্রতি কুড়ি টাকায় নেমে এলো।

First published: March 16, 2020, 6:24 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर