লকডাউনে অভুক্ত ভবঘুরেরা, ক্ষুধার্তদের খাবার বিলি ইংরেজবাজারের উপপুরপ্রধানের

লকডাউনে অভুক্ত ভবঘুরেরা, ক্ষুধার্তদের খাবার বিলি ইংরেজবাজারের উপপুরপ্রধানের

মঙ্গলবার মালদহ শহরের টাউন স্টেশন এলাকা, সুকান্ত মোড় এলাকা, রথবাড়ি মোড় এলাকা প্রভৃতি জায়গায় প্রায় শ খানেক ক্ষুধার্তকে খাবারের জোগান দেওয়া হয়।

  • Share this:

#মালদহ:-লকডাউন পরিস্থিতিতে বিপাকে ভবঘুরেরা। মিলছে না ন্যূনতম খাবার। ক্ষুধার্ত ভবঘুরেদের জন্য খাবারের ব্যবস্থার উদ্যোগ নিলেন মালদহের ইংরেজবাজার পুরসভার ভাইস চেয়ারম্যান দুলাল সরকার।

গতকাল, সোমবার থেকেই লকডাউনের জন্য মালদহ শহরে প্রচুর ফুটপাতবাসী এবং ভবঘুরের খাবার জোটেনি। এই খবর পেয়ে মানবিক উদ্যোগ নেওয়া হয়। মালদহ শহরের দেশবন্ধু চিত্তরঞ্জন মোড় এলাকায় খিচুরি তৈরি করে শহরের বিভিন্ন এলাকায় ঘুরে ঘুরে যাঁরা খাবার পাননি তাঁদের বিলি করেন দুলালবাবু ও তাঁর অনুগামীরা।

মঙ্গলবার মালদহ শহরের টাউন স্টেশন এলাকা, সুকান্ত মোড় এলাকা, রথবাড়ি মোড় এলাকা প্রভৃতি জায়গায় প্রায় শ খানেক ক্ষুধার্তকে খাবারের জোগান দেওয়া হয়। লকডাউন পরিস্থিতিতে প্রতিদিনই ভবঘুরেদের এইভাবেই খাবার যোগানোর পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। খিচুড়ি, ডিম ভাত-সহ প্রয়োজনীয় খাবার দেওয়া হবে। দুলালবাবু জানান, কোনও অবস্থাতেই রাস্তায় থাকা লোকজন যাতে অভুক্ত না থাকেন সেই চেষ্টাই করা হচ্ছে। এর পাশাপাশি ভবঘুরেরা যাতে উদ্দেশ্যহীন ভাবে শহরে ঘোরাফেরা না করেন, নির্দিষ্ট জায়গায় দিন কাটান সেই বিষয়েও প্রচার করা হচ্ছে।

প্রয়োজনে ভবঘুরেদের নাম, তালিকা তৈরি করে তাঁদেরকে নির্দিষ্ট ঘেরাটোপে রাখার বিষয়টিও চিন্তা ভাবনা করা হবে।  এদিন রাস্তায় খাবার পেয়ে অনেকটাই স্বস্তি প্রকাশ করেন ভবঘুরে লোকজন।অনেকেই জানান, লকডাউন বিষয়টির ধারনা না থাকায় রাত থেকে অভুক্ত থাকতে হয়েছে। তাঁদের কারোর পক্ষে খাবার মজুদ করে রাখাও সম্ভব নয়। এই অবস্থায় দুলালবাবুদের উদ্যোগে খাবারের ব্যবস্থা হওয়ায় খুশি তাঁরা।

Sebak Deb Sharma

First published: March 24, 2020, 4:16 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर