• Home
  • »
  • News
  • »
  • coronavirus-latest-news
  • »
  • করোনা আক্রান্ত? গন্ধ শুঁকে জানান দেবে এই প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত কুকুরেরা

করোনা আক্রান্ত? গন্ধ শুঁকে জানান দেবে এই প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত কুকুরেরা

প্রতীকী চিত্র

প্রতীকী চিত্র

হেলসিঙ্কি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে আসা যাত্রীদের গায়ের গন্ধ শুঁকেই কুকুরেরা এ বার জানান দিয়ে দিবে কারা কারা করোনা আক্রান্ত।

  • Share this:

ফিনল্যান্ড: কুকুরদের ঘ্রাণশক্তি নিয়ে নতুন করে আর কিছু বলার নেই। সারমেয় প্রজাতির এই ক্ষমতাকে কাজে লাগিয়ে তাবড় তাবড় অপরাধীদের পাকড়াও করা পুলিশের বাঁ হাতের খেল। তবে ফিনল্যান্ড সরকার কুকুরের এই গন্ধ শুঁকে শনাক্তকরণ পদ্ধতিকে একটু অন্য ভাবে কাজে লাগাল। সে দেশের হেলসিঙ্কি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে আসা যাত্রীদের গায়ের গন্ধ শুঁকেই কুকুরেরা এ বার জানান দিয়ে দিবে কারা কারা করোনা আক্রান্ত।

ফিনল্যান্ডের স্মেল ডিটেকশন অ্যাসোসিয়েশন-এর প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত চারটি বিভিন্ন প্রজাতির কুকুর বুধবার থেকে বিমানবন্দরে করোনা ডিটেকশনের কাজে নামে। হেলসিঙ্কি বিশ্ববিদ্যালয়ের-এর ইক্যুইন অ্যান্ড স্মল অ্যানিমাল মেডিসিন-এর অধ্যাপক আনা হেল্ম বিওয়ার্কম্যান জানান, কুকুরদের ঘ্রাণশক্তি এমনিতেই প্রবল। তাদের গন্ধ শুঁকে এই করোনা নির্ণয়ের পদ্ধতি খুবই ফলদায়ক হতে চলেছে। যদি এই পদ্ধতি কাজ দেয়, তা হলে অন্যান্য জায়গাতেও এই নিয়ম মেনে করোনা আক্রান্তদের সহজেই খুঁজে বার করা যাবে।

অস্ট্রেলিয়া, ফ্রান্স, জার্মানি, আমেরিকাতেও কুকুরদের ঘ্রাণশক্তি কাজে লাগিয়ে করোনা আক্রান্তদের খুঁজে বার করা যায় কি না, তা নিয়ে গবেষণা চলছে। তবে ফিনল্যান্ডের সরকার কুকুরের ঘ্রাণশক্তিকে এখন থেকেই সেই দেশের বিমানবন্দরে করোনা আক্রান্তদের শনাক্ত করতে কাজে লাগানো শুরু করে দিয়েছে।‌‌

আনা হেল্ম বিওয়ার্কম্যান আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম অ্যাসোসিয়েট প্রেসকে জানিয়েছেন, আরব আমিরশাহির পর গোটা ইউরোপে প্রথম ফিনল্যান্ডে এই কুকুরদের করোনা রোগী শনাক্তকরণে কাজে লাগানো হল। দুবাইয়ে আগের থেকেই কুকুরদের এই কাজে নামানো হয়েছিল।

হেলসিঙ্কি বিমানবন্দরে যাত্রীরা ইচ্ছা করলেই বিনা পয়সায় এই টেস্টটি করতে পারবেন। তবে এর জন্য কুকুরদের কাছে গিয়ে তাঁদের গা শোঁকাতে হবে না। নিজেদের ত্বক কাপড় দিয়ে মুছে নিয়ে যাত্রীদের সেটি একটি বাক্সে রাখতে হবে। অন্য আরেকটি বুথে থাকা কুকুরদের কাছে বাক্স সমেত কাপড়টি পৌঁছে দেওয়া হবে।

করোনা রোগীদের শনাক্তকরণ কাজে ইটি, কোজি, মিনা এবং ভালো নামের চারটি কুকুর অংশ নিয়েছে। কোনও যাত্রীর করোনা হয়েছে কি না তা এই কুকুরেরা কাপড়ের গন্ধ শুঁকেই বুঝতে পারবে বলে আশা করা হচ্ছে। ১০ সেকেন্ডের মধ্যেই এই প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত কুকুরেরা জানান দেবে কে আক্রান্ত আর কে নয়। যদি কুকুরদের পরীক্ষায় কোনও যাত্রীর করোনা ধরা পড়ে, তা হলে তা মিলিয়ে দেখতে ওই যাত্রীর করোনা টেস্ট করাতে হবে।

পালাবদল করে করোনা শনাক্তের কাজ চালাবে চারটি কুকুরই। সময়ে সময়ে তাদেরও যে বিশ্রামও দরকার।

Written By: Koustav Ganguly

Published by:Arka Deb
First published: