corona virus btn
corona virus btn
Loading

শুরু হতে চলেছে সরকারি অফিস, লঞ্চ রুটে জুড়ছে শ্রীরামপুর-ফেয়ারলি  

শুরু হতে চলেছে সরকারি অফিস, লঞ্চ রুটে জুড়ছে শ্রীরামপুর-ফেয়ারলি  
সরকারি কর্মীদের ভোগান্তি কমাতে লঞ্চ পরিষেবায় জোর।

১লা জুন থেকে যে সমস্ত রুটে লঞ্চ চলছে সেখানেও ধাপে ধাপে লঞ্চ বাড়ানো হবে অফিস টাইমে।

  • Share this:

#কলকাতা: শ্রীরামপুর থেকে চাঁদপাল। উত্তরপাড়া থেকে ফেয়ারলি। দীর্ঘ দিন পরে ফের এই দূরত্বে শুরু হতে চলেছে হুগলি নদীতে লঞ্চ পরিষেবা। পরিবহণ দফতর সূত্রে খবর, আগামী ৪ জুন থেকে এই পরিষেবা চালু হবে কলকাতা, হাওড়া ও হুগলির মধ্যে।

কলকাতায় কাজের সূত্রে আসা অধিকাংশ ব্যক্তি শেওড়াফুলি, শ্রীরামপুর, উত্তরপাড়া সহ একাধিক জায়গা থেকে লোকাল ট্রেনে চেপে হাওড়া স্টেশন আসেন। এর মধ্য বহু সরকারি কর্মী রয়েছেন। আগামী ৮ জুন থেকে এই রাজ্যে চালু হয়ে যাচ্ছে ৭০ শতাংশ কর্মী নিয়ে সরকারি অফিস। ফলে গণ পরিবহণ ব্যবস্থার ওপর একটা চাপ পড়বে। যদিও লোকাল ট্রেন পরিষেবা আগামী ৩০ জুন অবধি আপাতত স্থগিত রাখার কথা ঘোষণা করা হয়েছে। ফলে এই সমস্ত ব্যক্তিদের আসা যাওয়ার উপায় হয় বাস, নয়তো ব্যক্তিগত গাড়ি, মোটরবাইক বা সাইকেল। এই অবস্থা থেকে রেহাই দেওয়ার জন্যে কলকাতা থেকে পাশ্ববর্তী জেলার কাছের জেটিঘাটগুলিকে সংযুক্ত করা হচ্ছে।

সে কারণেই বাছাই করা হচ্ছে ফেয়ারলি থেকে শ্রীরামপুর, উত্তরপাড়া, রিষড়া, কোন্নগরের মতো এলাকাকে। পরিবহণ মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী জানিয়েছেন, "জলপথে আমরা অনেকগুলো জায়গা জোড়ার চেষ্টা করছি। এর ফলে মানুষের যাতায়াত করতে সুবিধা হবে।"

ইতিমধ্যেই এই বিষয়ে পরিবহণ নিগম ও হুগলী নদী জলপথ পরিবহণ সমবায় সমিতির সাথে আলোচনা সেরে ফেলা হয়েছে। পরিবহণ নিগমের কাছে বহু সংখ্যক আসনের ভেসেল বা লঞ্চ রয়েছে। আধুনিক এই লঞ্চে বহু যাত্রী যাতায়াত করতে পারবেন। সেই কারণে নিগমের লঞ্চ চালানো হবে

এর পাশাপাশি পরিবহণ মন্ত্রী জানিয়েছেন, লঞ্চে ৪০ শতাংশ যাত্রীর বদলে এবার থেকে দুই তৃতীয়াংশ যাত্রী নিয়ে চলা যাবে। রুট ও ভাড়ার তালিকা অনুমোদন করবে রাজ্য পরিবহণ নিগম। ১লা জুন থেকে যে সমস্ত রুটে লঞ্চ চলছে সেখানেও ধাপে ধাপে লঞ্চ বাড়ানো হবে অফিস টাইমে। প্রতি ১ ঘন্টা অন্তর যে লঞ্চ চলছে তার সময়ের ব্যবধানও কমানো হবে।

Published by: Arka Deb
First published: June 3, 2020, 12:07 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर