করোনা ভাইরাস

?>
corona virus btn
corona virus btn
Loading

করোনার প্রতিষেধকের দাম হোক সাধারণ মানুষের নাগালের মধ্যেই, দাবি গোটা বিশ্বের

করোনার প্রতিষেধকের দাম হোক সাধারণ মানুষের নাগালের মধ্যেই, দাবি গোটা বিশ্বের
Representational Image

করোনার টিকা নিয়ে গবেষণা ও তার জন্য প্রয়োজনীয় অর্থ সংগ্রহে গতকাল, সোমবার ভিডিও কনফারেন্স করেছেন বিশ্বনেতারা ৷

  • Share this:

#নিউইয়র্ক: করোনা ভাইরাসের টিকা কবে আসবে বাজারে ? তা নিয়ে স্পষ্ট ধারণা এখনও কোনও দেশের গবেষকদেরই নেই ৷ ভ্যাকসিন তৈরির কাজে জোরকদমে নেমে পড়েছে চিন, আমেরিকা, ব্রিটেনের মতো অনেক দেশই ৷ অনেকেরই ধারণা চলতি বছরের শেষেই মিলবে ভ্যাকসিন ৷ আবার অনেকের মতে ভ্যাকসিন পুরোপুরি তৈরি হতে পরের বছর হয়ে যাবে ৷ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা হু আবার আশঙ্কা প্রকাশ করেছে করোনার প্রতিষেধক হয়তো নাও মিলতে পারে ৷  এক মরশুমেই হয়তো পুরোপুরি বিদায় নেবে না এই মারণ ভাইরাস ৷ আগামী বছরেই আবার ফিরে আসতে পারে করোনা ৷ লন্ডনের ইম্পিরিয়াল কলেজের অধ্যাপক ডেভিড নেবারো যিনি বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার একজন দূত, তিনি বলেছেন, ‘‘ আমরা ধরে নিতে পারি না যে প্রতিষেধক অবশ্যই মিলবে ৷ প্রতিষেধক না পাওয়ার ঘটনাও অতীতে অনেকবার ঘটেছে ৷ ’’ উদাহরণ হিসেবে তিনি এইচআইভি-র কথা উল্লেখ করেছেন ৷ এমনকী, ম্যালেরিয়া বা ডেঙ্গিকেও মুছে ফেলা যায়নি ৷ প্রতি বছরই লক্ষ লক্ষ মানুষের মৃত্যু হয় এর জন্য ৷

করোনার টিকা নিয়ে গবেষণা ও তার জন্য প্রয়োজনীয় অর্থ সংগ্রহে গতকাল, সোমবার ভিডিও কনফারেন্স করেছেন বিশ্বনেতারা ৷ তাঁদের সবারই বক্তব্য যে এমন প্রতিষেধক আবিষ্কার করতে হবে যা জনস্বার্থে ব্যবহত হবে ৷ এবং দাম সবার নাগালের মধ্যে থাকে ৷ যাতে প্রত্যেকের কাছেই তা যেন পৌঁছতে পারে ৷ নাহলে খুব দামি বা পাওয়াই যাচ্ছে না, এমন প্রতিষেধক দিয়ে কোনও লাভ নেই সাধারণ মানুষের ৷ অতীতে অনেক সময়েই দেখা গিয়েছে, কোনও ভ্যাকসিন যখন নতুন নতুন বাজারে আসে, তখন তার দাম অনেক বেশি হয় ৷ ১৯২০ সালে একটা টিটেনাস ভ্যাকসিনের একটা শটের দামই ছিল ৩৫ ডলার থেকে কিছুটা কম ৷ এইচপিভি ভ্যাকসিন ২০০৬ সালে সিঙ্গল ডোজের জন্য লাগত প্রায় ২৩০ মার্কিন ডলার ৷ ১৯৮৬ থেকে ২০১৪ সালের মধ্যে আমেরিকার শিশুদের সম্পূর্ণ রোগ প্রতিরোধের ক্ষমতা যুক্ত ভ্যাকসিনের দাম ১০০ ডলার থেকে বেড়ে ২০০০ ডলার পর্যন্ত হয়েছিল ৷ তাই বাজারে একটা ভ্যাকসিনের দাম কত হবে, তা অনেকাংশে নির্ভর করে সে দেশের সরকারের উপরও ৷ ধনী দেশগুলির সরকারের পক্ষেই ভ্যাকসিনের জন্য বেশি টাকা দেওয়া সম্ভব ৷ যেমন হাম, পোলিও বা টিউবারকিউলোসিসের ভ্যাকসিন উন্নয়নশীল দেশগুলিতে ইউরোপ বা আমেরিকার উন্নত দেশগুলির তুলনায় ১০ শতাংশ কম দামে পাওয়া যায় ৷

Published by: Siddhartha Sarkar
First published: May 5, 2020, 9:30 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर