মহারাষ্ট্রে করোনার নতুন স্ট্রেইন? সংক্রমিত হলেই নিউমোনিয়া, বলছেন বিশেষজ্ঞরা

মহারাষ্ট্রে করোনার নতুন স্ট্রেইন? সংক্রমিত হলেই নিউমোনিয়া, বলছেন বিশেষজ্ঞরা
যেহেতু এই স্ট্রেইনটির ফলে নিউমোনিয়া বাসা বাঁধার সম্ভাবনা প্রবল, তাই এর সংক্রমণ দ্রুত হতে থাকলে মৃত্যু ও আক্রান্তের হার ফের আরও বাড়বে বলে সাবধান করছেন বিশেষজ্ঞরা।

যেহেতু এই স্ট্রেইনটির ফলে নিউমোনিয়া বাসা বাঁধার সম্ভাবনা প্রবল, তাই এর সংক্রমণ দ্রুত হতে থাকলে মৃত্যু ও আক্রান্তের হার ফের আরও বাড়বে বলে সাবধান করছেন বিশেষজ্ঞরা।

  • Share this:

    #মুম্বই: করোনা সংক্রমণের হার কিছুটা কমেছিল। কিন্তু ফের মহারাষ্ট্রে দৈনিক আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা বাড়ছে। এরই মধ্যে মহারাষ্ট্রের এক করোনা ভাইরাসের এক নতুন স্ট্রেইনের কথা বলছেন বিশেষজ্ঞরা। মহারাষ্ট্রের অমরাবতী ও আকোলাতে এই স্ট্রেইন ছড়াচ্ছে এবং এর সংক্রমণও দ্রুত হয় বলে জানা যাচ্ছে। বিশেষজ্ঞরা এও জানাচ্ছেন যে এই নতুন স্ট্রেইনটির ফলে শরীরে নিউমোনিয়া বাসা বাঁধে।

    যেহেতু এই স্ট্রেইনটির ফলে নিউমোনিয়া বাসা বাঁধার সম্ভাবনা প্রবল, তাই এর সংক্রমণ দ্রুত হতে থাকলে মৃত্যু ও আক্রান্তের হার ফের আরও বাড়বে বলে সাবধান করছেন বিশেষজ্ঞরা। সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদন থেকে জানা যাচ্ছে, অমরাবতীতে ইতিমধ্যেই ৩৫০ থেকে ৭০০ জন আক্রান্ত হয়েছেন। তবে এই সংক্রমণ আরও বাড়তে থাকলে আগামী ১৫ দিনে ফের মহারাষ্ট্র ও দেশের বাকি অংশেও আক্রান্তের সংখ্যা ফের উর্ধমুখী হবে।

    দেশের বাকি রাজ্যগুলিতে এখন করোনা পরিস্থিতি অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে। কিন্তু মহারাষ্ট্র ফের নতুন করে চিন্তা বাড়াচ্ছে। গত সাত দিনে কোভিড সংক্রমণের হার মারাত্মকভাবে বেড়েছে এই রাজ্যে । মুম্বইতে অন্তত ৬টি ওয়ার্ডে সংক্রমণ ৫০ শতাংশেরও বেশি । ১০ হাজার বাড়ি সিল করে দেওয়া হয়েছে ।


    কিন্তু আবার কী ভাবে সংক্রমণ বাড়ছে? বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন, লোকাল ট্রেন থেকেই সংক্রমণ ছড়াচ্ছে। কারণ পরিস্থিতি কিছুটা নিয়ন্ত্রণে আসায় কেউ স্বাস্থ্যবিধি আর মানছেন না, মাস্ক পরছেন না। এই পরিস্থিতি যত দ্রুত সম্ভব নিয়ন্ত্রণ না করা গেলে ফের সারা দেশে এর প্রভাব পড়বে।

    এমনকী মহারাষ্ট্রে ফের লকডাউন হওয়ার সম্ভাবনাও রয়েছে বলে জানা যাচ্ছে। আগামী কয়েকদিনের মধ্যে পরিস্থিতি সামলানো না গেলে ফের লকডাউন শুরু হবে। মারাঠা রাজ্যে শুধু বৃহস্পতিবারই নতুন করে ৫ হাজার জনের রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে । তার মধ্যে মুম্বইয়েই করোনা ধরা পড়েছে ৭৩৬ জনের শরীরে । তাই এই পরিস্থিতি নতুন করে চিন্তা বাড়াচ্ছে।

    Published by:Swaralipi Dasgupta
    First published:

    লেটেস্ট খবর