খুবই সামান্য খরচায় ভারতীয়রা পাবেন কোভিড ভ্যাকসিন, বলছে ফাইজার

খুবই সামান্য খরচায় ভারতীয়রা পাবেন কোভিড ভ্যাকসিন, বলছে ফাইজার

ফাইজার সংস্থার সঙ্গে বৈঠকের পরেও, এই সংস্থার ভ্যাকসিন নেওয়া হবে কি না সে বিষয়ে সরকার এ পর্যন্ত কোনও সিদ্ধান্ত নিয়ে উঠতে পারেনি।

ফাইজার সংস্থার সঙ্গে বৈঠকের পরেও, এই সংস্থার ভ্যাকসিন নেওয়া হবে কি না সে বিষয়ে সরকার এ পর্যন্ত কোনও সিদ্ধান্ত নিয়ে উঠতে পারেনি।

  • Share this:

    #নয়াদিল্লিঃ ভারতীয়দের জন্য অত্যন্ত স্বল্পমূল্য ভ্যাকসিনের। এমনই বলল ওষুধের আন্তর্জাতিক সংস্থা ফাইজার। ফাইজার সংস্থা তাদের এমআরএনএ ভ্যাকসিন এমনই মূল্যে ভারত সরকারকে দেবে, যাতে গণ টিকাকরণ শুরু হলেই দেশের মানুষ তা নিয়ে নিতে পারে।

    ফাইজারের তরফে একটি বিবৃতিতে জানানো হয়েছে যে, “আমরা ভ্যাকসিনের এমনই দাম রাখব, যাতে ভারত সরকার এই ভ্যাকসিন স্বল্প থেকে বিনা মূল্যে বন্টন করতে পারে দেশের মানুষকে। ভ্যাকসিনকে দেশের সর্বসাধারণের কাছে সহজলভ্য করে তোলার বিষয়ে আমরা এদেশের সরকারের কাছে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ ।”

    সূত্রের খবর, ফাইজার সংস্থার সঙ্গে বৈঠকের পরেও, এই সংস্থার ভ্যাকসিন নেওয়া হবে কি না সে বিষয়ে সরকার এ পর্যন্ত কোনও সিদ্ধান্ত নিয়ে উঠতে পারেনি। ভ্যাকসিন নেওয়ার ব্যাপারে ভারত সরকারের তরফে দ্বিধার মূল কারণ, ভ্যাকসিন সংরক্ষণের জন্য প্রয়োজন -৭০ ডিগ্র সেলসিয়াস তাপমাত্রা।

    তবে ফাইজার সংস্থা জানিয়েছে যে, ভারত সরকার তাঁদের ভ্যাকসিন নিলে, সংরক্ষণের জন্য কোল্ড স্টোরেজ এবং অন্যান্য রসদ যোগাবে তারাই। সারা বিশ্বের যে কোনও দেশে ভ্যাকসিন পাঠানোর সময় ফাইজারের তরফ থেকেই নির্দিষ্ট তাপমাত্রা বজায় রাখার ব্যবস্থা করা হয়। এছাড়া, দেশে এসে যাওয়ার পর হাসপাতালে পাঁচদিন পর্যন্ত এই ভ্যাকসিন সংরক্ষণ করা সম্ভব ২ থেকে ৮ ডিগ্রি তাপমাত্রায়।

    তবে ফাইজার সংস্থা থেকে ভারতের জন্য এখনও কোনও নির্দিষ্ট দাম ঘোষণা করা হয়নি। প্রসঙ্গত, আমেরিকায় ফাইজারের ভ্যাকসিনের দাম ভারতের সিরাম ইনস্টিউটের তৈরি কোভিশিল্ড ভ্যাকসিনের ছয় গুণ। এদিকে ভারত সরকার গণ টিকাকরণের জন্য সিরাম ইনস্টিটিউটের কোভিশিল্ড, ভারত বায়োটেকের ভ্যাকসিন এবং রাশিয়ার স্পুটনিক ভি ভ্যাকসিনের অপেক্ষায় রয়েছে।

    Published by:Antara Dey
    First published:

    লেটেস্ট খবর