corona virus btn
corona virus btn
Loading

মহিলা বিজ্ঞানীর শরীরেই প্রথম শুরু হল করোনা ভ্যাকসিনের পরীক্ষা,গোটা বিশ্ব তাকিয়ে অক্সফোর্ডের দিকে

মহিলা বিজ্ঞানীর শরীরেই প্রথম শুরু হল করোনা ভ্যাকসিনের পরীক্ষা,গোটা বিশ্ব তাকিয়ে অক্সফোর্ডের দিকে
coronavirus vaccine test

আপাতত আশা দেখাচ্ছে লন্ডনের অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়৷ কারণ সেখানে শুরু হল মানবদেহে পরীক্ষা-নিরীক্ষা৷ বিজ্ঞানীদের আশা সেপ্টেম্বরের মধ্যে ফল মিলবে৷

  • Share this:

#লন্ডন: করনোর ভ্যাকসিন কবে আসবে? ভ্যাকসিনেই একমাত্র মুক্তি এই মারণ রোগ থেকে৷ এই বিষয়টি স্পষ্ট হয়েছে সাধারণ মানুষের মধ্যে৷ কিন্তু বিজ্ঞানীরা কবে সেই লড়াইয়ের সরঞ্জাম তৈরি করতে পারবে, সেটাই এই লাখ টাকার প্রশ্ন৷ আপাতত আশা দেখাচ্ছে লন্ডনের অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়৷ কারণ সেখানে শুরু হল মানবদেহে পরীক্ষা-নিরীক্ষা৷ বিজ্ঞানীদের আশা সেপ্টেম্বরের মধ্যে ফল মিলবে৷

আপাতত দু’জনের শরীরে শুরু হয়েছে পরীক্ষা৷ ৮০০ জন স্বেচ্ছাসেবকের মধ্যে বেছে নেওয়া হয়েছিল দু’জনকে৷ তবে প্রথম যার শরীরে ইঞ্জেকশন পুশ করা হয়েছে তিনি একজন মহিলা৷ নাম এলিসা গ্র্যানাতো৷ তিনি নিজেও একজন বিজ্ঞানী৷ নিজের ইচ্ছাতেই তিনি এগিয়ে এসেছে করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে৷ এলিসা জানিয়েছেন যে তিনি আশাবাদী এই ভ্যাকসিন খুব শীঘ্রই তৈরি করা হবে৷

দু’রকম ভাবে চলবে পরীক্ষা৷ ভ্যাকসিন পরীক্ষার অংশগ্রহণকারীদের দুটি দলে ভাগ করা হয়েছে৷ একদলের ওপর চলবে করোনার পরীক্ষা, অন্য দলটি বেছে নেওয়া হয়েছে ম্যানিনজাইটিস ভ্যাকসিনের জন্য৷ যাদের শরীরের ওপর গবেষণা চালানো হবে, তাদের রাখা হয়েছে পর্যবেক্ষণে৷

অক্সফোর্ড যে ভ্যাকসিনটি তৈরি করতে চলেছে তার নাম দেওয়া হয়েছে চ্যাডক্স১৷ কীভাবে কাজ করবে এই ভ্যাকসিন? জানা যাচ্ছে যে এটি সাধারণ সর্দি-কাশির-জ্বরের ভাইরাস (যাকে অ্যাডিনোভাইরাস বলা হয়) যা শিম্পাঞ্জিদের থেকে তৈরি হয়৷ মারণ করোনভাইরাসের উপরে থাকা প্রোটিন থেকে বিজ্ঞানীরা নিয়েছেন জিন এবং তা মেশানো হয়েছে এমন ভাইরাসের সঙ্গে যা শরীরে কোনও ক্ষতি করবে না৷ এর থেকেই ভ্যাকসিন তৈরি হবে৷ এই রসটি মানব দেহে ইনজেক্ট করা হচ্ছে৷ মানুষে দেহে প্রবেশ করে তা করোনাভাইরাস স্পাইক প্রোটিন তৈরি করবে এই রস৷ এরাই আবার শরীরের প্রতিরোধ ক্ষমতা থেকে অ্যান্টিবডি তৈরি করে মারণ করোনার সঙ্গে লড়াই চালাবে৷

যেই বিজ্ঞানীরা এই পরীক্ষায় সামিল হয়েছেন, তারা হলেন সারা সিলবার্ট, অ্যান্ড্রু পোলার্ড, স্যান্ডি ডগলাস, টেরেসা ল্যাম্ব, অ্যাড্রিয়ান হিল৷ তারা জানাচ্ছেন এই ধরণের পরীক্ষার মধ্যে কোনও ভয় থাকছে না৷ এবং যে ভ্যাকসিন তৈরি হবে তা সব বয়সের জন্যই ব্যবহার যোগ্য৷

 
View this post on Instagram
 

ELISA GRANATO HAS BECOME FIRST PATIENT PLUS VOLUNTEER TO GET INJECTED IN UK OXFORD COVID-19 VACCINE HUMAN TRIAL ON THURSDAY.

A post shared by Rokon Mahmud (@rokonbdsmc) on

First published: April 24, 2020, 6:03 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर