corona virus btn
corona virus btn
Loading

বাড়ছে করোনা, সরাসরি সব বৈঠক বাতিল করলেন পূর্ব বর্ধমানের জেলাশাসক

বাড়ছে করোনা, সরাসরি সব বৈঠক বাতিল করলেন পূর্ব বর্ধমানের জেলাশাসক

অনেক সময় বৈঠক শেষ হতে রাত ৯টা বেজে যায়। সেইসব বৈঠক থেকে করোনার সংক্রমণ ছড়াতে পারে এই আশঙ্কাতেই যাবতীয় বৈঠক এখন ভিডিও কনফারেন্সে করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

  • Share this:

#বর্ধমান: করোনার সংক্রমণ লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়তে থাকায় আধিকারিকদের সঙ্গে সরাসরি বৈঠক বাতিল করলেন পূর্ব বর্ধমানের জেলাশাসক বিজয় ভারতী। তার বদলে এখন থেকে এই পরিস্থিতিতে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে যাবতীয় বৈঠক হবে বলে জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে। করোনা আবহে সাধারণ বাসিন্দাদের সঙ্গে সরাসরি সাক্ষাৎ বন্ধ করেছেন জেলাশাসক। সপ্তাহে একদিন আধিকারিকদের নিয়ে ব্লকে গিয়ে উন্নয়নের অগ্রগতি খতিয়ে দেখতেন জেলাশাসক। করোনা আবহে সেই কর্মসূচিও আপাতত স্থগিত থাকছে।

পূর্ব বর্ধমান জেলায় এদিন পর্যন্ত ২৫৭ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। তার মধ্যে গত দু'দিনে আক্রান্ত হয়েছেন ৪৭ জন। হঠাৎ করে সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় উদ্বিগ্ন জেলা প্রশাসন। জেলা স্বাস্থ্য দফতর সূত্রে জানা গিয়েছে, এই জেলায় এখন ৬৮ জন করোনা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। একজনের মৃত্যু হয়েছে। বাকি ১৮৮ জন ইতিমধ্যেই চিকিৎসার পর সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন। এদিন পর্যন্ত জেলায় ৫২টি এলাকাকে কন্টেইনমেন্ট জোন ঘোষণা করে লকডাউন চালানো হচ্ছে। এই পরিস্থিতিতে জেলার প্রশাসনিক অফিসগুলিতে সাধারণের যাতায়াত নিয়ন্ত্রণ করা শুরু হয়েছে। জেলাশাসকের অফিসে এখন কাউকে ঢুকতে দেওয়া হচ্ছে না। সাংবাদিকদের সঙ্গেও সরাসরি যোগাযোগ আপাতত স্থগিত রাখার কথা ঘোষণা করেছেন জেলাশাসক। অন্যান্য আধিকারিকদের জেলাশাসকের অফিসে ডাকা হচ্ছে না। প্রশাসনিক কাজে বৈঠকের প্রয়োজন হলে তাও অনলাইনে করা হবে বলে জেলা শাসকের অফিস থেকে আধিকারিকদের জানিয়ে দেওয়া হয়েছে।

সোমবার সন্ধ্যায় করোনার সংক্রমণ ঠেকাতে ইতিকর্তব্য ঠিক করতে প্রশাসনিক আধিকারিকদের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্স করেন জেলাশাসক বিজয় ভারতী। ভিডিও কনফারেন্সে জেলা পরিষদের সভাধিপতি শম্পা ধারা সহ জেলা পরিষদের কর্মাধ্যক্ষদের সঙ্গে যোগাযোগ  করা হয়। একইভাবে বৈঠকে অংশ নেন জেলা পুলিশ সুপার ভাস্কর মুখোপাধ্যায়-সহ জেলার পদস্থ পুলিশ কর্তা ও বিডিওরা। করোনার সংক্রমণ থেকে বাঁচতে সকলকে সতর্ক থাকতে পরামর্শ দেওয়া হয়। ভিডিও কনফারেন্সে অনেকেই কন্টেইনমেন্ট জোনের পরিধি বাড়ানোর পক্ষে মতামত জানান। এমনিতে প্রতিদিনই একাধিক বৈঠক হয় জেলা শাসকের কনফারেন্স হলে। অনেক সময় বৈঠক শেষ হতে রাত ৯টা বেজে যায়। সেইসব বৈঠক থেকে করোনার সংক্রমণ ছড়াতে পারে এই আশঙ্কাতেই যাবতীয় বৈঠক এখন ভিডিও কনফারেন্সে করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

Saradindu Ghosh

Published by: Siddhartha Sarkar
First published: July 14, 2020, 4:28 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर