corona virus btn
corona virus btn
Loading

বিদেশ থেকে ফিরে দিব্বি চালাচ্ছিলেন চেম্বার! চাপ বাড়তেই...

বিদেশ থেকে ফিরে দিব্বি চালাচ্ছিলেন চেম্বার! চাপ বাড়তেই...
  • Share this:

#শিলিগুড়ি:  বিদেশ থেকে ফিরে দিব্বি চালিয়ে আসছিলেন চেম্বার! প্রতিদিনই প্রচুর রোগী দেখে আসছিলেন। হ্যাঁ, একজন চিকিৎসক! ঠিকই পড়ছেন! শিলিগুড়ি জেলা হাসপাতালের উল্টো দিকে চেম্বার চালিয়ে আসছিলেন। সোমবার বিষয়টি সামনে চলে আসে। গত ১৯ মার্চ ইন্দোনেশিয়া থেকে ফিরেছেন ওই চিকিৎসক। তারপর থেকে নিয়মিতভাবে রোগী দেখে আসছিলেন তিনি। অবশেষে প্রকাশ্যে আসতেই সমাজসেবীরা যান ডাক্তারের চেম্বারে। জিজ্ঞেস করতেই তা স্বীকার করে নেন ওই চিকিৎসক অনুপ ঘোষ।

কেন নিজের বিদেশ সফর গোপন করে চেম্বার চালিয়ে আসছিলেন এই প্রশ্নই তুলেছেন শহরবাসী। একজন চিকিৎসক হয়ে কেন এমনটা করলেন? প্রশ্ন রোগীসহ তাদের আত্মীয়দেরও। সতর্কতা হিসেবে তাঁর গৃহ পর্যবেক্ষণে থাকার কথা। উল্টে তিনিই চেম্বারে! সাংবাদিকদের কাছেও বিষয়টি স্বীকার করে নেন তিনি। তাঁর জবাব, বিমানবন্দরে হেলথ স্ক্রিণিংয়ে পাশ করায় চেম্বারে বসেছেন। ফিট সার্টিফিকেট পেয়েছেন। কিন্তু রাজ্য এবং কেন্দ্রের নির্দেশিকায় পরিস্কার বলা রয়েছে যে বিদেশ থেকে ফিরলে ১৪ দিন হোম কোয়ারান্টেনে থাকতে হবে। চিকিৎসক হয়েও তিনি তা মানেন নি কেন? জবাব, এটা তাঁর জানান ছিল না! তবে চাপ বাড়াতে থাকেন রোগী, সমাজসেবীরা। বন্ধ করে দেওয়া হয় তাঁর চেম্বার। আর যেন চেম্বারে তাঁকে দেখা না যায়। দাবী স্থানীয়দের। চাপে পড়ে পিছু হঠতে হয় চিকিৎসককে।

তিনি আবার এক সময়ে শিলিগুড়ি জেলা হাসপাতালের সুপারও ছিলেন। শুধু চিকিৎসকই নন, ইদানীং বিদেশ ফেরতেরা তাদের সফর গোপনে রাখার প্রবণতা বাড়ছে শিলিগুড়িতে। প্রায় প্রতিটি ওয়ার্ডেই একজন, দু'জন করে বিদেশ ফেরত বাসিন্দা আসছেন। গোপনেই রাখছেন তাদের বিদেশ সফর। চাপ বাড়াচ্ছে প্রতিবেশীরা। পুলিশ, স্বাস্থ্য কর্মীরা পৌঁছলেও উলটে খারাপ ব্যবহার করার অভিযোগও উঠছে। অথচ মুখ্যমন্ত্রী পরিস্কার ঘোষণা করেছেন, বিদেশ থেকে ফিরলে ১৪ দিন গৃহ পর্যবেক্ষণে থাকতে হবে। আইন ভাঙলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Published by: Pooja Basu
First published: March 23, 2020, 6:19 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर