বর্ধমানে হু হু করে বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা! কন্টেইনমেন্ট জোনের পরিধি বাড়তে পারে প্রশাসন

বর্ধমানে হু হু করে বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা! কন্টেইনমেন্ট জোনের পরিধি বাড়তে পারে প্রশাসন
করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা দিন দিন বাড়তে থাকায় ফের বেশ কিছু পদক্ষেপ নেওয়ার কথা ভাবা হচ্ছে। কন্টেইনমেন্ট জোনের পরিধি বাড়িয়ে লকডাউন কড়াকড়ির বিষয়টিও ভাবনা চিন্তার মধ্যে রয়েছে।

করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা দিন দিন বাড়তে থাকায় ফের বেশ কিছু পদক্ষেপ নেওয়ার কথা ভাবা হচ্ছে। কন্টেইনমেন্ট জোনের পরিধি বাড়িয়ে লকডাউন কড়াকড়ির বিষয়টিও ভাবনা চিন্তার মধ্যে রয়েছে।

  • Share this:

Saradindu Ghosh

#বর্ধমান: এ বার পূর্ব বর্ধমান জেলায় কন্টেইনমেন্ট জোনের এলাকা বাড়িয়ে লকডাউন কড়াকড়ি করার কথা ভাবছে জেলা প্রশাসন। সোমবার এ ব্যাপারে অতিরিক্ত জেলাশাসক সহ সংশ্লিষ্ট আধিকারিকদের নিয়ে করোনার সংক্রমণ রোধে কী করণীয় সে বিষয়ে আলোচনা করেন জেলাশাসক বিজয় ভারতী। বৈঠকের পর জেলাশাসক জানান, করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা দিন দিন বাড়তে থাকায় ফের বেশ কিছু পদক্ষেপ নেওয়ার কথা ভাবা হচ্ছে। কন্টেইনমেন্ট জোনের পরিধি বাড়িয়ে লকডাউন কড়াকড়ির বিষয়টিও ভাবনা চিন্তার মধ্যে রয়েছে।

গত চব্বিশ ঘন্টায়  পূর্ব বর্ধমান জেলায় ৩৮ জনের শরীরে করোনার সংক্রমণ মিলেছে। ২১০  থেকে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ২৪৮  জন। গ্রামীণ এলাকার পাশাপাশি শহর এলাকাগুলি নিয়েও উদ্বিগ্ন জেলা প্রশাসন।এমনিতেই কেতুগ্রাম, কাটোয়া, মঙ্গলকোট, কালনা, পূর্বস্থলী, রায়নার গ্রামীণ এলাকায় করোনার সংক্রমণ বাড়ছে। তার ওপর সংক্রমণ বাড়ছে শহর এলাকাগুলিতেও। পুর শহরগুলির মধ্যে জেলার সদর শহর বর্ধমানে এখনও পর্যন্ত ২০ জন আক্রান্তের হদিশ মিলেছে। কাটোয়া শহরে এখন পর্যন্ত ১১ জন আক্রান্ত হয়েছেন। তার মধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত হয়েছেন পাঁচ জন। কালনা, মেমারি, গুসকরা শহরেও করোনার সংক্রমণ মিলেছে।


দু-চারটি বাড়ি নিয়ে কন্টেইনমেন্ট জোন করে লকডাউন করলে সেভাবে সুফল মিলবে না বলে আগেই জানিয়েছিলেন বর্ধমানের সচেতন বাসিন্দারা। তাঁরা বলছেন, কন্টেইনমেন্ট জোনের বাঁশের ব্যারিকেডের পাশ দিয়েই বাসিন্দাদের যাতায়াত চলছে। ফলে তাঁরাও যে কোনও সময় করোনায় সংক্রমিত হতে পারেন। লকডাউনের সুফল পেতে হলে কন্টেইনমেন্ট জোনের পরিধি বাড়ানো উচিত বলে মত ব্যক্ত করেছিলেন অনেকেই। এ দিন জেলাশাসক বিজয় ভারতী বলেন, করোনার সংক্রমণ ঠেকাতে সব রকম বিষয় ভেবে দেখা হচ্ছে। জনবহুল এলাকাগুলিতে কন্টেইনমেন্ট জোনের পরিধি বাড়ানোর বিষয়টি ভাবনা চিন্তার মধ্যে রয়েছে। আক্রান্ত এলাকার খুব কাছ দিয়ে যানবাহন বা এলাকার বাসিন্দারা যাতে চলাচল করতে না পারেন তা দেখা হচ্ছে। লকডাউন কার্যকর করতে পুলিশকে তৎপরতা বাড়াতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

Published by:Simli Raha
First published:

লেটেস্ট খবর