corona virus btn
corona virus btn
Loading

Dhanvantri Rath| করোনা মোকাবিলায় এক অনন্য নজির সৃষ্টি

Dhanvantri Rath| করোনা মোকাবিলায় এক অনন্য নজির সৃষ্টি

প্রচুর মানুষের সুবিধা হচ্ছে দেখে বাড়ানো হয়েছে ধনবন্ত্রী রথের সংখ্যা৷

  • Share this:

#আহমেদাবাদ: ধনবন্ত্রী রথে করোনা মোকাবিলার অনন্য দিশা খুঁজে পেয়েছে আহমেদাবাদ মিউনিসিপ্যাল কর্পোরেশন৷ গুজরাতে এই এলাকায় এক একটি রথে থাকছেন চিকিৎসক, প্যারা মেডিক্যাস স্টাফ ও ফার্মাসিস্ট৷ এদের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় চলছে করোনার বিরুদ্ধে লড়াই৷ প্রাথমিকভাবে ৫০টি ধনবন্ত্রী রথের সূচনা হয়৷ যা দু’ঘণ্টা ধরে নির্দিষ্ট জায়গায় ঘুরে পরীক্ষা করে৷ এরফলে প্রথমেই ১৪টি কনটাইনমেন্ট এলাকার ২০০টি জায়গায় কাজ করে এই রথ৷ প্রচুর মানুষের সুবিধা হচ্ছে দেখে বাড়ানো হয়ে ধনবন্ত্রী রথের সংখ্যা৷ ৫০ থেকে যা বেড়ে দাঁড়ায় ৮৪টি৷ ফলে ৩৩৬ জায়গার মানুষ এই বিশেষ সুবিধা পেতে শুরু করেন৷

ধনবন্ত্রী রথে (Dhanvantri Rath) কী সুবিধা পাচ্ছেন রোগীরা? প্রথমেই তাঁদের তাপমাত্রা থার্মাল গানের মাধ্যমে পরীক্ষা করা হচ্ছে৷ তারপর পরীক্ষা করা হচ্ছে শরীরে সর্করার মাত্রা৷ অক্সিমিটার দিয়ে শরীরে অক্সিজেনের লেভেল পরীক্ষা হচ্ছে৷ তারপর তাদের শরীরের অবস্থা বুঝে দেওয়া হচ্ছে প্যারাসিটামল, সেট্রিজিন, অ্যাজিথ্রামাইসিন৷ এর সঙ্গে আয়ুষ অনুমোদিত ওষুধ শ্যাম শ্যাম নি বটি এবং হোমিওপ্যাথি ওষুধও দেওয়া হচ্ছে রোগীদের৷

এই বিষয়টি পরিসংখ্যান দিয়ে খুব সুন্দর করে বোঝানো হয়েছে৷ ১৭ মে প্রায় ১০ শতাংশ রোগীর জ্বর হয়েছিল৷ ৩২ শতাংশ রোগী ভুগছিলেন সর্দি-কাশিতে৷ এবং ০.৬ শতাংশ মানুষের নিঃশ্বাসের সমস্যা হচ্ছিল৷ ধনবন্ত্রী রথে এদের সকলকে ওষুধ দেওয়া হয়েছিল এবং পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছিল৷ দেখা গিয়েছে যে, ২৬ মে এঁদের সকলের শারীরিক অবস্থার উন্নতি হয়েছে৷ ২ শতাংশ মানুষের জ্বর কমে গিয়েছিল৷ ১৬ শতাংশ মানুষের সর্দি-কাশিও কমেছিল এবং নিঃশ্বাসের সমস্যা প্রায় কারও আর ছিলই না৷ এখনও

পর্যন্ত ৭১হাজার মানুষ ধনবন্ত্রী রথের সুবিধা পেয়েছেন৷ এরফলে স্থানীয় এসভিপি ও সিভিল হাসপাতালে রোগীর চাপ অনেকটাই কমেছে৷

Published by: Pooja Basu
First published: May 28, 2020, 1:18 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर