Home /News /coronavirus-latest-news /
School Closed: করোনার বাড়বাড়ন্ত, সব ক্লাসের জন্যই স্কুল বন্ধের নির্দেশ রাজধানীতে

School Closed: করোনার বাড়বাড়ন্ত, সব ক্লাসের জন্যই স্কুল বন্ধের নির্দেশ রাজধানীতে

করোনার বাড়বাড়ন্ত, সব ক্লাসের জন্যই স্কুল বন্ধের নির্দেশ রাজধানীতে

করোনার বাড়বাড়ন্ত, সব ক্লাসের জন্যই স্কুল বন্ধের নির্দেশ রাজধানীতে

ভয়াবহ হারে বাড়ছে করোনায় আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা। শুক্রবার ফের একদিনে এক লক্ষের বেশি আক্রান্ত ধরা পড়েছে। রাজধানী দিল্লিরও করোনা পরিস্থিতি ফের বেহাল। ফলে স্কুল বন্ধের নির্দেশ দিল রাজ্যের সরকার।

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: দেশজুড়ে করোনাভাইরাসের (Coronavirus) বাড়বাড়ন্ত। ভয়াবহ হারে বাড়ছে করোনায় আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা। শুক্রবার ফের একদিনে এক লক্ষের বেশি আক্রান্ত ধরা পড়েছে। রাজধানী দিল্লিরও করোনা পরিস্থিতি ফের বেহাল। ফলে স্কুল বন্ধের নির্দেশ দিল রাজ্যের সরকার। শুক্রবার দিল্লি সরকারের তরফে ঘোষণা করা হয়েছে, কোভিড ১৯ (Covid-19)-এর বাড়াবাড়ির জন্যই সব স্কুল বন্ধ রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এখনও পর্যন্ত রাজ্যের প্রায় ৭ লক্ষ মানুষ করোনা (Corona) আক্রান্ত হয়েছেন এবং মৃত্যু হয়েছে ১১ হাজার ১৫৭ জনের। দেশজুড়ে করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে নাজেহাল অবস্থা প্রশাসনের।

    দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল (Arvind Kejriwal) ট্যুইট করেও স্কুল বন্ধ রাখার কথা ঘোষণা করেছেন। সেখানে লেখা হয়েছে, 'কোভিডের বাড়াবাড়ির কারণে দিল্লির সব সরকারি ও বেসরকারি স্কুল বন্ধ রাখা হবে। পরবর্তী নির্দেশ পর্যন্ত সব ক্লাসের স্কুল বন্ধ থাকবে।' শুধু দিল্লিই নয়, অন্য বেশ কয়েকটি রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলও করোনার কারণে স্কুল বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছে। বেশ কয়েকটি রাজ্যে কলেজও বন্ধ রাখা হয়েছে।

    গত বছর করোনাভাইরাসের সংক্রমণ শুরু হওয়ার কিছুদিন পর থেকেই দেশের সব স্কুল-কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধের নির্দেশ দিয়েছিল কেন্দ্রীয় সরকার। অনলাইনে ক্লাস চলে গোটা লকডাউনে। পরে মে-জুন থেকে ৯ থেকে ১২ ক্লাসের জন্য স্কুল খোলা হয় তাঁদের বোর্ডের পরীক্ষার জন্য। অনেক বোর্ডই এই বছর পরীক্ষা বাতিল করে দিয়েছে। তবে সিবিএসই ও সিআইএসসিই পরীক্ষা বাতিল না করায় পড়ুয়া ও বিরোধীদের বিক্ষোভের মুখে পড়ে।

    দিল্লির করোনা পরিস্থিতিও মারাত্মক রূপ ধারণ করেছে। বৃহস্পতিবার নতুন করে ৭.৪৩৭ জন করোনা রোগী ধরা পড়েছে। গত নভেম্বর থেকে এটি এখনও পর্যন্ত সর্বোচ্চ। গত সপ্তাহে প্রায় ৫ হাজার করে রোজ করোনা রোগী ধরা পড়েছে। ১ ডিসেম্বরের থেকেও গড়ে যার পরিমাণ অনেকটাই বেশি। গত ৬ এপ্রিল থেকে দিল্লিতে রাতে কার্ফু চালু করা হয়েছে, রাত ১০টা থেকে ভোর ৫টা পর্যন্ত। চলবে ৩০ এপ্রিল অবধি।

    Published by:Raima Chakraborty
    First published:

    পরবর্তী খবর