Home /News /coronavirus-latest-news /
অটোতে করে শ্মশানে পৌঁছল করোনা রোগীর দেহ! তেলেঙ্গনায় চরম গাফিলতি

অটোতে করে শ্মশানে পৌঁছল করোনা রোগীর দেহ! তেলেঙ্গনায় চরম গাফিলতি

এভাবেই অটোতে করে নিয়ে যাওয়া হয় করোনা রোগীর দেহ৷

এভাবেই অটোতে করে নিয়ে যাওয়া হয় করোনা রোগীর দেহ৷

অ্যাম্বুল্যান্সের ব্যবস্থা না করেই তেলেঙ্গানার ওই সরকারি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ রোগীর দেহ পরিজনদের হাতে দিয়ে দেয়৷

  • Share this:

    #নিজামাবাদ: দেশে হু হু করে বাড়ছে করোনা সংক্রমণ৷ সেলিব্রিটি থেকে সাধারণ মানুষ, করোনার গ্রাস থেকে যেন বাঁচতে পারছেন না কেউই৷ তবু এক শ্রেণির মানুষ তো বটেই, যাঁরা করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে সরাসরি যুক্ত, তাঁদের মধ্যেও যেন সচেতনতার অভাব থেকেই যাচ্ছে৷ সেরকমই একটি চরম গাফিলতির ছবি এবার সামনে এল তেলেঙ্গনা থেকে৷

    অভিযোগ, তেলেঙ্গানার নিজামাবাদে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত এক রোগীর দেহ অটোতে করে শ্মশানে নিয়ে যাওয়া হয়৷ এ ক্ষেত্রে নিজামাবাদের একটি সরকারি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধেই গাফিলতির অভিযোগ উঠেছে৷ কারণ মৃতদেহ নিয়ে যাওয়ার সময় অটোতে হাসপাতালের কোনও কর্মী ছিলেন না৷ হাসপাতালের নিযুক্ত বা সরকারি কর্মীদের নজরদারিতে যেখানে করোনা আক্রান্তের মৃতদের দেহ শ্মশানে পৌঁছনো এবং শেষকৃত্য হওয়ার কথা৷ এ ক্ষেত্রে গোটা বিষয়টাই রোগীর পরিজনরাই সামলান বলে অভিযোগ৷

    সংবাদসংস্থা এএনআই-এর খবর অনুযায়ী, অ্যাম্বুল্যান্সের ব্যবস্থা না করেই তেলেঙ্গনার ওই সরকারি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ রোগীর দেহ পরিজনদের হাতে দিয়ে দেয়৷ ঘটনাটি জানাজানি হওয়ার পর হাসপাতালের সুপার নাগেশ্বর রাও দাবি করেন, মৃতের এক আত্মীয় হাসপাতালের কর্মী৷ তাঁর কথাতেই মৃতদেহ পরিবারের হাতে দেওয়া হয়৷ সুপারের দাবি, হাসপাতালের মর্গের এক কর্মীর সাহায্যেই ওই দেহ বের করে নিয়ে অটোতে করে চলে যান মৃতের পরিজনরা৷

    হাসপাতালের সুপার জানিয়েছেন, ২৭ জুন ৫০ বছর বয়সি একজন রোগীকে হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়৷ চিকিৎসা চলাকালীন তাঁর করোনা ধরা পড়ে৷ শনিবার ওই রোগীর মৃত্যু হয়৷ সুপারের আরও দাবি, রোগীর পরিবারকে অ্যাম্বুল্যান্স আসার জন্য অপেক্ষা করতে বলা হয়েছিল৷ কিন্তু তাঁরা অটো ডেকে এনে মৃতদেহ নিয়ে চলে যান৷

    Published by:Debamoy Ghosh
    First published:

    Tags: Coronavirus, Telengana

    পরবর্তী খবর