Home /News /coronavirus-latest-news /
লকডাউন শেষে ‘আনলক’ পাহাড়, খুলেছে হোটেল, কর্মীদের বকেয়া বেতন নিয়ে সিদ্ধান্ত কবে? জেনে নিন

লকডাউন শেষে ‘আনলক’ পাহাড়, খুলেছে হোটেল, কর্মীদের বকেয়া বেতন নিয়ে সিদ্ধান্ত কবে? জেনে নিন

File Photo

File Photo

দার্জিলিংয়ে কমপক্ষে সাড়ে তিনশো হোটেল রয়েছে। তার সঙ্গে প্রত্যক্ষভাবে জড়িয়ে রয়েছে প্রায় ১০ হাজার কর্মীর জীবন-জীবিকা। পরোক্ষভাবে পর্যটনের উপরই গোটা পাহাড় নির্ভরশীল।

  • Share this:

    #দার্জিলিং: লকডাউন শেষে আনলক পাহাড়। আজ, মঙ্গলবার থেকে দার্জিলিংয়ে খুলতে শুরু করেছে হোটেলের দরজা। কর্মীদের বকেয়া বেতন নিয়ে বুধবার বৈঠক হবে। এখন পর্যটকদের পথ চেয়ে দার্জিলিং ৷

    লকডাউনের ধূলো ঝেড়ে মঙ্গলবার থেকে খুলতে শুরু করেছে দার্জিলিঙের হোটেল। দার্জিলিংয়ে কমপক্ষে সাড়ে তিনশো হোটেল রয়েছে। তার সঙ্গে প্রত্যক্ষভাবে জড়িয়ে রয়েছে প্রায় ১০ হাজার কর্মীর জীবন-জীবিকা। পরোক্ষভাবে পর্যটনের উপরই গোটা পাহাড় নির্ভরশীল।

    লকডাউনে প্রায় আড়াই মাস পর্যটকদের আসা যাওয়া বন্ধ। কবে পর্যটকদের পা পড়বে পাহাড়ে, তাও জানান নেই। তাই লোকসান ঠেকাতে পয়লা জুলাই থেকে পাহাড়ের সব হোটেল বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল দার্জিলিং হোটেল ওনার্স অ্যাসোসিয়েশন। ৬৫% কেটে বেতন দেওয়ারও সিদ্ধান্ত নেয় মালিকপক্ষ। এরপরই GTA, প্রশাসনের হস্তক্ষেপ। সোমবার লালকুঠিতে বৈঠকের পর মঙ্গলবার থেকে ধাপে ধাপে হোটেল খোলার সিদ্ধান্ত। বকেয়া বেতন মেটানোর জন্য তৈরি হয়েছে কমিটি।

    মরশুমে ফাঁকা পাহাড়া। ফাঁকা মল। বাতাসিয়া লুপ, বোট্যানিকাল গার্ডেন, চিড়িয়াখানা....পাহাড়ের পর্যটনকেন্দ্রগুলো আজ বড্ড একা। তাও পর্যটকদের পথ চেয়ে সেজে উঠছে হোটেলগুলি।

    পর্যটন ও চা শিল্পই পাহাড়ের অর্থনীতির ভিত। তাই পাহাড়কে সচল করতে উদ্যোগী প্রশাসনও।

    পর্যটনমন্ত্রী গৌতম দেব জানান, ‘‘পর্যটন ও চা-ই আয়ের উৎস। মানুষের অনেক সমস্যা হচ্ছে। আজ থেকে খুলছে। পাহাড় ছন্দে ফিরুক।’’

    পর্যটকদের নিয়েই বেঁচে থাকে শৈল শহর। করোনার আতঙ্ক কাটিয়ে তাই ঘুরে দাঁড়ানোর পথ খুঁজছে পাহাড়ের রানি।

    Published by:Siddhartha Sarkar
    First published:

    Tags: Coronavirus, Darjeeling

    পরবর্তী খবর