corona virus btn
corona virus btn
Loading

আতঙ্কিত বাসিন্দারা! দুর্গাপুর-আসানসোলে লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে সংক্রমণ

আতঙ্কিত বাসিন্দারা! দুর্গাপুর-আসানসোলে লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে সংক্রমণ

লাফিয়ে লাফিয়ে করোনার সংক্রমণ বাড়তে থাকায় বাসিন্দাদের মধ্যে প্রচণ্ড আতঙ্কের সৃষ্টি হয়েছে।

  • Share this:

#বর্ধমান: পশ্চিম বর্ধমানে লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। গত চব্বিশ ঘণ্টায় নতুন করে দুর্গাপুর-আসানসোল মহকুমায় ৩৬ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। লাফিয়ে লাফিয়ে করোনার সংক্রমণ বাড়তে থাকায় বাসিন্দাদের মধ্যে প্রচণ্ড আতঙ্কের সৃষ্টি হয়েছে। এরই মধ্যে শনিবার রাতে আসানসোলের এক নামী বেসরকারি স্কুলের অধ্যক্ষার করোনা আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে।

স্বাস্থ্য দফতর সূত্রে জানা গিয়েছে, দুর্গাপুরের একটি বেসরকারি হাসপাতালে তিনি ভর্তি ছিলেন। তিনি করোনা আক্রান্ত হলেও তিনি অন্য কারণে গুরুতর অসুস্থ ছিলেন বলে দাবি প্রশাসনের। দুর্গাপুর রানীগঞ্জে লাফিয়ে লাফিয়ে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বাড়তে থাকায় উদ্বিগ্ন বাসিন্দারা। নতুন করে আক্রান্ত ৩৬ জনের মধ্যে রানীগঞ্জে রয়েছেন ১১ জন। দুর্গাপুরে নতুন করে ১৫ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। দুর্গাপুরের সেপকো এলাকায় নতুন করে ছয় জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। বেনাচিতিতে নতুন করে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন পাঁচ  জন। এছাড়া মামড়া বাজার, গোপালমাঠ, বিধান নগর এবং এ জোনেও করোনা আক্রান্তের হদিশ মিলেছে। করোনার সংক্রমণ রুখতে বিধি নিষেধ কঠোর করার পরিকল্পনা নিয়েছে দুর্গাপুর মহকুমা প্রশাসন।

দুর্গাপুরের সিটি সেন্টার এলাকায় দুটি কন্টেইনমেন্ট জোন তৈরি করে সেখানে লকডাউন কড়াকড়ি করা হচ্ছে। সেই সঙ্গে রেস্তোরাঁগুলিতে ভিড় নিয়ন্ত্রণে পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। এখন থেকে আর রেস্তোরাঁ বা খাবারের দোকানে বসে খাবার খাওয়া যাবে না। রেস্তোরাঁ বা খাবারের দোকানগুলি থেকে শুধুমাত্র খাবার হোম ডেলিভারি করা যাবে। সোমবার থেকেই বাজার খোলার সময় অনেকটাই কমানো হয়েছে দুর্গাপুর শহরে। সকাল আটটা থেকে বেলা একটা পর্যন্ত বাজার খোলা থাকবে। বিকেল বা সন্ধ্যায় কোনও বাজার বসবে না। শহরে মিনিবাস চলাচল বন্ধ রাখার কথাও ভাবছে প্রশাসন। সেই সঙ্গে দুর্গাপুর,রানীগঞ্জ ও আসানসোল শহরে পুরোপুরি লকডাউন করার বিষয়টিও ভেবে দেখা হচ্ছে। জেলা প্রশাসনের এক আধিকারিক জানান, প্রতিদিন লাফিয়ে লাফিয়ে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে। এই অবস্থা চলতে থাকলে দু-একদিনের মধ্যেই পুরোপুরি লকডাউনের কথাও ভাবতে হতে পারে।

শরদিন্দু ঘোষ

Published by: Siddhartha Sarkar
First published: July 20, 2020, 1:29 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर