Coronavirus Tragedy: আর ফিরবে না মানুষটা, কষ্টে কোভিডে মৃত বাবার চিতায় ঝাঁপ মেয়ের!

কোভিডে মৃত বাবার চিতায় ঝাঁপ মেয়ের! (প্রতীকী ছবি)

মঙ্গলবার রাজস্থানের বারমের জেলার একটি হাসপাতালে করোনা প্রাণ কেড়ে নিয়েছে তাঁর।

  • Share this:

    #জয়পুর: করোনাভাইরাসের শিকার হয়েছেন বাবা। সেই শোকে বাবার চিতার উপর ঝাঁপ দিয়ে ভয়াবহ ভাবে পুড়ে গেলেন ৩৪ বছরের এক যুবতী। ঘটনাটি ঘটেছে বুধবার রাজস্থানের বারমেরে। মৃত ব্যক্তির নাম দামোদর শারদা। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৭৩ বছর। মঙ্গলবার রাজস্থানের বারমের জেলার একটি হাসপাতালে করোনা প্রাণ কেড়ে নিয়েছে তাঁর।

    পুলিশ সূত্রে খবর, দামোদর শারদার দেহ সৎকারের জন্য নিয়ে যাওয়া হয়েছিল। তাঁর তিন কন্যাসন্তান রয়েছে। তাঁদের মধ্যেই সবচেয়ে ছোট মেয়ে চন্দ্রা শারদা চিতার উপর আচমকাই ঝাঁপ দেন। সেখানে উপস্থিত ব্যক্তিরা সঙ্গে সঙ্গেই চন্দ্রাকে টেনে বের করে আনেন চিতা থেকে। তাঁর শরীরের প্রায় ৭০ শতাংশ পুড়ে গিয়েছে বলে খবর।

    সেখান থেকেই তাঁকে স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। পরে তাঁকে যোধপুরের হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়। কোতওয়ালি পুলিশ স্টেশনের স্টেশন হাউজ অফিসার প্রেম প্রকাশ বলেছেন, 'দামোদরদাস শারদার তিন মেয়ে রয়েছে। কয়েকদিন আগেই তাঁর স্ত্রী মারা গিয়েছেন। তিন মেয়ের সবচেয়ে ছোট জন আচমকাই চিতার উপর ঝাঁপ দেন।'

    গত রবিবার করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন বারমারের বাসিন্দা দামোদরদাস শারদা। তাঁকে সেই রাতেই জেলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল। মঙ্গলবার তিনি প্রয়াত হন। তাঁর সৎকারের কাজে একমাত্র ছোট মেয়েই গিয়েছিলেন।

    Published by:Raima Chakraborty
    First published: