হিমোগ্লোবিন কম? সাবধান! লোহিতকণিকা তৈরিতেও বাধা দিচ্ছে করোনাভাইরাস, বলছে সমীক্ষা!

হিমোগ্লোবিন কম? সাবধান! লোহিতকণিকা তৈরিতেও বাধা দিচ্ছে করোনাভাইরাস, বলছে সমীক্ষা!
আমাদের শরীরের অভ্যন্তরে প্রবেশ করার পর লোহিত রক্তকণিকাকে শুধু নষ্টই করে দেয় না, পাশাপাশি নতুন লোহিত রক্তকণিকা তৈরিতেও বাধা দিচ্ছে করোনা ভাইরাস।

আমাদের শরীরের অভ্যন্তরে প্রবেশ করার পর লোহিত রক্তকণিকাকে শুধু নষ্টই করে দেয় না, পাশাপাশি নতুন লোহিত রক্তকণিকা তৈরিতেও বাধা দিচ্ছে করোনা ভাইরাস।

  • Share this:

#কলকাতা: কোভিড ১৯-এর ভ্যাকসিন আবিষ্কার নিয়ে যে দেশ অনেকটা এগিয়ে গিয়েছে বলে খবর মিলেছিল এক সময়ে, সেই রাশিয়ার ফার ইস্টার্ন ফেডেরাল ইউনিভার্সিটির বিজ্ঞানীরা তাঁদের জাপানি সহকর্মীদের সঙ্গে গবেষণার পর প্রকাশ্যে নিয়ে এসেছেন এই উদ্বেগজনক তথ্যটি! তাঁরা দাবি করছেন যে সার্স-কভ-১৯ অর্থাৎ যে ভাইরাসের কারণে কোভিড ১৯-এর সংক্রমণের মুখে দাঁড়িয়ে রয়েছে বিশ্ব, তা আমাদের শরীরের অভ্যন্তরে প্রবেশ করার পর লোহিত রক্তকণিকাকে শুধু নষ্টই করে দেয় না, পাশাপাশি নতুন লোহিত রক্তকণিকা তৈরি করার ক্ষেত্রেও প্রতিবন্ধকতার জন্ম দেয়।

আর ঠিক এই জায়গা থেকেই যাঁদের শরীরে হিমোগ্লোবিনের পরিমাণ কম, তাঁদের সতর্ক হওয়ার প্রয়োজন আছে। হিমোগ্লোবিনের পরিমাণ কম থাকা বা শরীরে আয়রনের ঘাটতি আদতে লোহিত রক্তকণিকার সংখ্যা কমের দিকেই নির্দেশ করে। অর্থাৎ তা যদি কম থাকে, তা হলে স্বাভাবিক ভাবেই রোগীর শরীর এই ভাইরাসের সঙ্গে যুঝে উঠতে সমস্যার মুখে পড়বে। পাশাপাশি আশঙ্কা ডেকে আনবে নতুন লোহিত রক্তকণিকা তৈরি না হওয়া!কেন না, এই লোহিত রক্তকণিকার মধ্যে দিয়েই আমাদের শরীরের প্রতিটি কোষে অক্সিজেন পৌঁছে যায়। এখন যদি লোহিত রক্তকণিকার পরিমাণ কমে আসে, সে ক্ষেত্রে শরীর চাহিদামতো অক্সিজেন পাবে না। যার পরিণামে মস্তিষ্কের স্নায়ু, রক্তপরিবাহী নালী ক্ষতিগ্রস্ত হবে, ভাইরাস-আক্রান্ত ব্যক্তির রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা একেবারে তলানিতে এসে ঠেকবে!


সমস্যা চূড়ান্ত পর্যায়ে পৌঁছে গেলে এ ক্ষেত্রে একাধিক অঙ্গ পর পর বিকল হয়ে যাওয়াও অস্বাভাবিক নয় বলে জানাচ্ছেন গবেষকরা!

তাই গবেষকরা যাঁদের বয়স হয়েছে, তাঁদের সাবধান থাকতে বলছেন। কেন না, বয়স্ক মানুষদের ক্ষেত্রে রক্তে লোহিতকণিকার পরিমাণ কম থাকা খুব সাধারণ একটা ব্যাপার। পাশাপাশি গবেষকরা বলছেন যে সতর্ক হওয়ার প্রয়োজন আছে ওবেসিটি এবং ডায়াবেটিক রোগীদেরও সাবধান থাকতে হবে। সব রকম স্বাস্থ্যবিধি মেনে সংক্রমণের হাত থেকে নিজেকে যথাসম্ভব রক্ষা করতে হবে অন্তঃসত্ত্বাদের; HIV এবং ক্যানসারে আক্রান্ত রোগীরও সতর্ক না থাকলেই নয়। কেন না, এই সবক'টি ক্ষেত্রেই রক্তে লোহিতকণিকার উপস্থিতি প্রয়োজনের তুলনায় কম থাকে, জানিয়েছে আর্কাইভ ইউরোমেডিকায় প্রকাশিত এই গবেষণা।

Published by:Simli Raha
First published:

লেটেস্ট খবর